শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুলনা বিভাগে ৯০ দিনের মধ্যে করোনায় সর্বনিম্ন মৃত্যু

ফাইল ছবি

খুলনা ব্যুরো ।।
খুলনা বিভাগে করোনার প্রকোপ কমে এসেছে। তিন মাসের মধ্যে বিভাগে করোনায় সর্বনিম্ন ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৪১ জনের।
রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. জসিম উদ্দিন হাওলাদার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।
খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দপ্তরের প্রধান সহকারী (নন-মেডিকেল) মো. জোবায়ের হোসেন জানান, এর আগে গত ৭ জুন বিভাগে ২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। মে মাসের ৪ তরিখ ১ জনের মৃত্যু হয়।
শনিবার (০৪ সেপ্টেম্বর) খুলনা বিভাগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছিল ৮৫ জনের।
আর ৯ জুলাই সর্বোচ্চ ৭১ জনের মৃত্যু হয়েছিল।
স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে খুলনা ও যশোরে একজন করে মারা গেছেন।
খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট ১ লাখ ৯ হাজার ৭৩০ জনের শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩ হাজার ৩৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ লাখ ২৩৪ জন।

খুলনা বিভাগে ৯০ দিনের মধ্যে করোনায় সর্বনিম্ন মৃত্যু

প্রকাশের সময় : ০৩:৪৭:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
খুলনা ব্যুরো ।।
খুলনা বিভাগে করোনার প্রকোপ কমে এসেছে। তিন মাসের মধ্যে বিভাগে করোনায় সর্বনিম্ন ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৪১ জনের।
রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. জসিম উদ্দিন হাওলাদার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।
খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দপ্তরের প্রধান সহকারী (নন-মেডিকেল) মো. জোবায়ের হোসেন জানান, এর আগে গত ৭ জুন বিভাগে ২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। মে মাসের ৪ তরিখ ১ জনের মৃত্যু হয়।
শনিবার (০৪ সেপ্টেম্বর) খুলনা বিভাগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছিল ৮৫ জনের।
আর ৯ জুলাই সর্বোচ্চ ৭১ জনের মৃত্যু হয়েছিল।
স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে খুলনা ও যশোরে একজন করে মারা গেছেন।
খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট ১ লাখ ৯ হাজার ৭৩০ জনের শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩ হাজার ৩৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ লাখ ২৩৪ জন।