সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মার্কিন সেনাবাহিনীর আমন্ত্রণে সেনাপ্রধান গেলেন যুক্তরাষ্ট্রে

ঢাকা ব্যুরো।। যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর আমন্ত্রণে ইন্দো-প্যাসিফিক আর্মি চিফ কনফারেন্সে (আইপিএসিসি) অংশ নিতে সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাত ১টা ৪০ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে সেনাপ্রধানের ঢাকা ছেড়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)।

আইএসপিআর-এর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মার্কিন ইন্দো-প্যাসিফিক কমান্ড এবং পাপুয়া নিউগিনি ডিফেন্স ফোর্সের যৌথ আয়োজনে এ বছর যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াইতে হতে যাচ্ছে আইপিএসিসি। এ সম্মেলনে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের ১৭টি দেশের জ্যেষ্ঠ নেতারা অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। এবার সম্মেলনে ভবিষ্যৎ অপারেশনাল এনভায়রনমেন্টের ওপর আলোচনা হবে।

সম্মেলনে বিভিন্ন দেশের সেনাপ্রধানদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। সেনাপ্রধানের এ সফরের মধ্য দিয়ে ইন্দো-প্যাসিফিক দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে এবং পারস্পরিক সহযোগিতার সম্ভাবনা বাড়বে বলে আশা করে হচ্ছে।

সফর শেষে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর সেনাপ্রধানের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা,চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দোয়া মাহফিল

মার্কিন সেনাবাহিনীর আমন্ত্রণে সেনাপ্রধান গেলেন যুক্তরাষ্ট্রে

প্রকাশের সময় : ০৮:৪৭:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

ঢাকা ব্যুরো।। যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর আমন্ত্রণে ইন্দো-প্যাসিফিক আর্মি চিফ কনফারেন্সে (আইপিএসিসি) অংশ নিতে সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাত ১টা ৪০ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে সেনাপ্রধানের ঢাকা ছেড়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)।

আইএসপিআর-এর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মার্কিন ইন্দো-প্যাসিফিক কমান্ড এবং পাপুয়া নিউগিনি ডিফেন্স ফোর্সের যৌথ আয়োজনে এ বছর যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াইতে হতে যাচ্ছে আইপিএসিসি। এ সম্মেলনে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের ১৭টি দেশের জ্যেষ্ঠ নেতারা অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। এবার সম্মেলনে ভবিষ্যৎ অপারেশনাল এনভায়রনমেন্টের ওপর আলোচনা হবে।

সম্মেলনে বিভিন্ন দেশের সেনাপ্রধানদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। সেনাপ্রধানের এ সফরের মধ্য দিয়ে ইন্দো-প্যাসিফিক দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে এবং পারস্পরিক সহযোগিতার সম্ভাবনা বাড়বে বলে আশা করে হচ্ছে।

সফর শেষে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর সেনাপ্রধানের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।