রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুই বছরের শিশুদেরও করোনার টিকা দেওয়া শুরু করলো কিউবা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। 

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে দুই বছর বয়সী শিশুদের করোনার টিকার আওতায় নিয়ে আসছে লাতিন আমেরিকার দেশ কিউবা।

এরইমধ্যে শিশুদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় এ বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মহামারি করোনা মোকাবিলায় অনেক দেশই ১২ বছর বয়সী শিশুদের টিকার আওতায় নিয়ে এসেছে। চীন ও ভেনেজুয়েলাসহ বেশ কয়েকটি দেশ আরও কম বয়সী শিশুদের টিকার আওতায় নিয়ে আসার কথা ভাবছে। এরই মধ্যে সবাইকে ছাড়িয়ে গেছে লাতিন আমেরিকার ছোট্ট একটি দেশ কিউবা।

দেশটিতে দুই বছর বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়া কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চলতি মাসে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি শিশুদের স্কুলে ফেরানোর উদ্দেশ্যে চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কিউবা কর্তৃপক্ষ।

কিউবায় ধাপে ধাপে খুলছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আগামী মাসে শিশুদের টিকার আওতায় এনে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। এরইমধ্যে ধাপে ধাপে শিশুদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। প্রথম ধাপে টিকা পেয়েছে ১২ ও এর বেশি বয়সী শিশুরা। এর পরের ধাপে টিকা দেওয়া হচ্ছে ২ বছর বয়সী শিশুদের।

মহামারি করোনা ছড়িয়ে পড়লে গতবছরের মার্চে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয় কিউবা। অবশেষে নিজেদের তৈরি টিকা দিয়েই শিক্ষার্থীদের স্কুলে ফিরিয়ে আনতে কাজ শুরু করেছে ফিদেল কাস্ত্রোর দেশ।

এদিকে ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ৬ হাজার ৬৯ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭১ হাজার ৯২০ জন।

এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট মারা গেছেন ৪৭ লাখ ৫ হাজার ৩৮৪ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২২ কোটি ৯২ লাখ ৮৩ হাজার ৬৪২ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ কোটি ৫৯ লাখ ৩ হাজার ৬৮৫ জন।

এর আগে, রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ৬ হাজার ৭৬৪ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ১৬ হাজার ৭৮৪ জন। আর শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা যান ৮ হাজার ৪৪৭ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৬৩ হাজার ৮৮৭ জন। তার আগের দিন শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) মারা গিয়েছিলেন ১০ হাজার ৩৫৩ জন এবং আক্রান্ত হয়েছিলেন ৫ লাখ ৬৮ হাজার ৪৫২ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৪ কোটি ২৯ লাখ ৯০৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৯১ হাজার ৮৮০ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৭৭ হাজার ৮১৯ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৪৫ হাজার ১৬৫ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ২ কোটি ১২ লাখ ৩৯ হাজার ৭৮৩ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৯০ হাজার ৭৮৬ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৭৪ লাখ ২৯ হাজার ৭৪৬ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৩৫ হাজার ২০৩ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭২ লাখ ৭৪ হাজার ৯২৮ জন। মারা গেছেন এক লাখ ৯৮ হাজার ২১৮ জন।

আক্রান্তের তালিকায় ফ্রান্স ষষ্ঠ, তুরস্ক সপ্তম, ইরান অষ্টম, আর্জেন্টিনা নবম এবং কলম্বিয়া দশম অবস্থানে রয়েছে। এ তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৮তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।সূত্র-আলজাজিরা

দুই বছরের শিশুদেরও করোনার টিকা দেওয়া শুরু করলো কিউবা

প্রকাশের সময় : ০৯:২৯:৩১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। 

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে দুই বছর বয়সী শিশুদের করোনার টিকার আওতায় নিয়ে আসছে লাতিন আমেরিকার দেশ কিউবা।

এরইমধ্যে শিশুদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় এ বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মহামারি করোনা মোকাবিলায় অনেক দেশই ১২ বছর বয়সী শিশুদের টিকার আওতায় নিয়ে এসেছে। চীন ও ভেনেজুয়েলাসহ বেশ কয়েকটি দেশ আরও কম বয়সী শিশুদের টিকার আওতায় নিয়ে আসার কথা ভাবছে। এরই মধ্যে সবাইকে ছাড়িয়ে গেছে লাতিন আমেরিকার ছোট্ট একটি দেশ কিউবা।

দেশটিতে দুই বছর বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়া কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চলতি মাসে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি শিশুদের স্কুলে ফেরানোর উদ্দেশ্যে চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কিউবা কর্তৃপক্ষ।

কিউবায় ধাপে ধাপে খুলছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আগামী মাসে শিশুদের টিকার আওতায় এনে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। এরইমধ্যে ধাপে ধাপে শিশুদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। প্রথম ধাপে টিকা পেয়েছে ১২ ও এর বেশি বয়সী শিশুরা। এর পরের ধাপে টিকা দেওয়া হচ্ছে ২ বছর বয়সী শিশুদের।

মহামারি করোনা ছড়িয়ে পড়লে গতবছরের মার্চে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয় কিউবা। অবশেষে নিজেদের তৈরি টিকা দিয়েই শিক্ষার্থীদের স্কুলে ফিরিয়ে আনতে কাজ শুরু করেছে ফিদেল কাস্ত্রোর দেশ।

এদিকে ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ৬ হাজার ৬৯ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭১ হাজার ৯২০ জন।

এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট মারা গেছেন ৪৭ লাখ ৫ হাজার ৩৮৪ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২২ কোটি ৯২ লাখ ৮৩ হাজার ৬৪২ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ কোটি ৫৯ লাখ ৩ হাজার ৬৮৫ জন।

এর আগে, রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ৬ হাজার ৭৬৪ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ১৬ হাজার ৭৮৪ জন। আর শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা যান ৮ হাজার ৪৪৭ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৬৩ হাজার ৮৮৭ জন। তার আগের দিন শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) মারা গিয়েছিলেন ১০ হাজার ৩৫৩ জন এবং আক্রান্ত হয়েছিলেন ৫ লাখ ৬৮ হাজার ৪৫২ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৪ কোটি ২৯ লাখ ৯০৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৯১ হাজার ৮৮০ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৭৭ হাজার ৮১৯ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৪৫ হাজার ১৬৫ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ২ কোটি ১২ লাখ ৩৯ হাজার ৭৮৩ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৯০ হাজার ৭৮৬ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৭৪ লাখ ২৯ হাজার ৭৪৬ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৩৫ হাজার ২০৩ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭২ লাখ ৭৪ হাজার ৯২৮ জন। মারা গেছেন এক লাখ ৯৮ হাজার ২১৮ জন।

আক্রান্তের তালিকায় ফ্রান্স ষষ্ঠ, তুরস্ক সপ্তম, ইরান অষ্টম, আর্জেন্টিনা নবম এবং কলম্বিয়া দশম অবস্থানে রয়েছে। এ তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৮তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।সূত্র-আলজাজিরা