শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঘরের আড়ায় ঝুলছিল মা, বিছানায় শিশুর লাশ

ছবি: সংগৃহীত

কুষ্টিয়া ব্যুরো ।।
কুষ্টিয়া শহরে শিশু মেয়ের লাশ পড়েছিল বিছানায়। ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছিল মায়ের লাশ। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার বদরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।পারিবারিক কলহের কারণে মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

মৃতরা হলেন, আকলিমা খাতুন (৩৫) ও তার নয় মাস বয়সী ছেলে জিম। আকলিমা থানাপাড়া পুরাতন বাঁধ এলাকার মো. রতনের স্ত্রী।
স্থানীয়রা জানায়, গড়াই নদী সংলগ্ন থানাপাড়া পুরাতন বাঁধে আকলিমা ও রতনের বাস। পাশেই বাবা মাজেদ আলীর বাড়ি। রতনের বাড়িতে সংস্কার কাজ চলায় মঙ্গলবার রাতে বাবার বাড়িতে নয় মাসের সন্তানকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। ভোরে এলাকাবাসী ঘরে ঢুকে দেখেন, আকলিমা ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস নিয়ে ঝুলছে। পাশেই বিছানায় শিশু জিমের লাশ পড়ে আছে। তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়।
আকলিমার বাবা মাজেদ মোল্লা জানান, আমাদের বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে ছিলাম। ঘুম থেকে উঠে দেখি আকলিমা গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুঁলে আছে।
কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল ইসলাম জানান, বুধবার সকালে থানাপাড়া বাঁধের একটি বাড়ি থেকে আড়ায় গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় মা এবং বিছানায় পড়ে থাকা শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। আকলিমা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।
তিনি আরও জানান, প্রথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারী আত্মহত্যা করেছেন। তবে তদন্ত প্রতিবেদন পেলে সবকিছু নিশ্চিত হওয়া যাবে।

ঘরের আড়ায় ঝুলছিল মা, বিছানায় শিশুর লাশ

প্রকাশের সময় : ০২:৫৯:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
কুষ্টিয়া ব্যুরো ।।
কুষ্টিয়া শহরে শিশু মেয়ের লাশ পড়েছিল বিছানায়। ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছিল মায়ের লাশ। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার বদরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।পারিবারিক কলহের কারণে মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

মৃতরা হলেন, আকলিমা খাতুন (৩৫) ও তার নয় মাস বয়সী ছেলে জিম। আকলিমা থানাপাড়া পুরাতন বাঁধ এলাকার মো. রতনের স্ত্রী।
স্থানীয়রা জানায়, গড়াই নদী সংলগ্ন থানাপাড়া পুরাতন বাঁধে আকলিমা ও রতনের বাস। পাশেই বাবা মাজেদ আলীর বাড়ি। রতনের বাড়িতে সংস্কার কাজ চলায় মঙ্গলবার রাতে বাবার বাড়িতে নয় মাসের সন্তানকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। ভোরে এলাকাবাসী ঘরে ঢুকে দেখেন, আকলিমা ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস নিয়ে ঝুলছে। পাশেই বিছানায় শিশু জিমের লাশ পড়ে আছে। তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়।
আকলিমার বাবা মাজেদ মোল্লা জানান, আমাদের বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে ছিলাম। ঘুম থেকে উঠে দেখি আকলিমা গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুঁলে আছে।
কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল ইসলাম জানান, বুধবার সকালে থানাপাড়া বাঁধের একটি বাড়ি থেকে আড়ায় গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় মা এবং বিছানায় পড়ে থাকা শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। আকলিমা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।
তিনি আরও জানান, প্রথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারী আত্মহত্যা করেছেন। তবে তদন্ত প্রতিবেদন পেলে সবকিছু নিশ্চিত হওয়া যাবে।