শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাষ্ট্রপতির দেশের আইন আধুনিকায়ন,যুগোপযোগী করার নির্দেশ

ঢাকা ব্যুরো।। দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় যুগোপযোগী আইনের পাশাপাশি বিদ্যমান আইনের নিরপেক্ষ প্রয়োগও সমান গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ।

তিনি বলেছেন, যুগোপযোগী আইনের পাশাপাশি আইনের নিরপেক্ষ প্রয়োগও সমান গুরুত্বপূর্ণ। আমি দেশের বিদ্যমান আইন-কানুন আধুনিকায়ন ও যুগোপযোগী করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আইন কমিশনের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বঙ্গভবনে আইন কমিশনের চার সদস্যের প্রতিনিধি দল রাষ্ট্রপতির কাছে কমিশনের ২০২০ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করে। তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন।

প্রতিনিধি দল কমিশনের সার্বিক কর্মকাণ্ড এবং বার্ষিক প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। প্রতিনিধি দলে নেতৃত্ব দেন কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিশন সদস্য বিচারপতি এ টি এম ফজলে কবীর।

এসময় রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম এবং সচিব (সংযুক্ত) ওয়াহিদুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপতির দেশের আইন আধুনিকায়ন,যুগোপযোগী করার নির্দেশ

প্রকাশের সময় : ০৯:২৩:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

ঢাকা ব্যুরো।। দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় যুগোপযোগী আইনের পাশাপাশি বিদ্যমান আইনের নিরপেক্ষ প্রয়োগও সমান গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ।

তিনি বলেছেন, যুগোপযোগী আইনের পাশাপাশি আইনের নিরপেক্ষ প্রয়োগও সমান গুরুত্বপূর্ণ। আমি দেশের বিদ্যমান আইন-কানুন আধুনিকায়ন ও যুগোপযোগী করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আইন কমিশনের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বঙ্গভবনে আইন কমিশনের চার সদস্যের প্রতিনিধি দল রাষ্ট্রপতির কাছে কমিশনের ২০২০ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করে। তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন।

প্রতিনিধি দল কমিশনের সার্বিক কর্মকাণ্ড এবং বার্ষিক প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। প্রতিনিধি দলে নেতৃত্ব দেন কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিশন সদস্য বিচারপতি এ টি এম ফজলে কবীর।

এসময় রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম এবং সচিব (সংযুক্ত) ওয়াহিদুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।