শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কাজ করলেই কঠোর ব্যবস্থা : মায়া চৌধুরী                                                        

রাহাত খান, চাঁদপুর প্রতিনিধি।। 

আজ শনিবার (২ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল প্রতিনিধি সভায় এ কথা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম।
তিনি বলেন আওয়ামী লীগ কোটি কোটি নেতাকর্মীর একটি দল কাজেই ছোটখাটো ঝামেলা নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে  কাজ করলেই কঠোর ব্যবস্হা। নৌকা প্রতীক যে পাবে তার সাথে সকল নেতাকর্মীদের থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন আমাদের কোন শত্রু নেই শত্রু একটাই সেটা হলো স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি। স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির সঙ্গে লড়াই করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছি । কাজেই সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। দলকে সুসংগঠিত করতে হবে। এবং নৌকা জিতলেই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে। তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন সম্মান দিলে সম্মান বাড়বে ।সম্মান অর্জন করতে অনেক কষ্ট করা লাগে ।
এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মাহবুব আলম হানিফ,এমপি ।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. দীপু মনি,মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। জনাব ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর, এমপি। জনাব মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম। অবসরপ্রাপ্ত মেজর রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম। সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, এমপি সহ আরো অনেক কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কাজ করলেই কঠোর ব্যবস্থা : মায়া চৌধুরী                                                        

প্রকাশের সময় : ০৭:০৩:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ অক্টোবর ২০২১

রাহাত খান, চাঁদপুর প্রতিনিধি।। 

আজ শনিবার (২ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল প্রতিনিধি সভায় এ কথা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম।
তিনি বলেন আওয়ামী লীগ কোটি কোটি নেতাকর্মীর একটি দল কাজেই ছোটখাটো ঝামেলা নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে  কাজ করলেই কঠোর ব্যবস্হা। নৌকা প্রতীক যে পাবে তার সাথে সকল নেতাকর্মীদের থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন আমাদের কোন শত্রু নেই শত্রু একটাই সেটা হলো স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি। স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির সঙ্গে লড়াই করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছি । কাজেই সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। দলকে সুসংগঠিত করতে হবে। এবং নৌকা জিতলেই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে। তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন সম্মান দিলে সম্মান বাড়বে ।সম্মান অর্জন করতে অনেক কষ্ট করা লাগে ।
এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মাহবুব আলম হানিফ,এমপি ।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. দীপু মনি,মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। জনাব ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর, এমপি। জনাব মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম। অবসরপ্রাপ্ত মেজর রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম। সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, এমপি সহ আরো অনেক কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।