রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মাদকের পার্টি থেকে আটক শাহরুখপুত্র আরিয়ান

ছবি: সংগৃহীত

বিনোদন ডেস্ক ।।

শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (এনসিবি)।

ভারতীয় সিনেমার সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে-মেয়ে দুজনই বারবার আলোচনা-সমালোচনায় আসছেন। এবার মাদকের পার্টি থেকে শাহরুখপুত্র আরিয়ানের আটক হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ইন্ডিয়া টুডের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার এমন তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার (২ অক্টোবর) রাতে মুম্বই থেকে গোয়াগামী একটি বিলাসবহুল ক্রুজে অভিযান চালিয়ে ১০ জনকে আটক করেন এনসিবির কর্মকর্তারা। অভিযোগ, সেখানে রেভ পার্টি চলছিলো। আটক হওয়া সেই ১০ জনের মধ্যেই রয়েছেন শাহরুখপুত্র।

শুধু বলিউড নয়, পুলিশ সূত্রে খবর ফ্যাশন জগতের অনেকেও উপস্থিত ছিলেন সেখানে। সেই ক্রুজ পার্টিতে নিষিদ্ধ মাদক ব্যবহারের খবর পেয়েই সেখানে হানা দেয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

শনিবার রাতে যাত্রীর ছদ্মবেশে কর্ডেলিয়া নামে বিলাসবহুল ওই ক্রুজে চেপে বসেছিলেন এনসিবি গোয়েন্দারা। সেই পার্টিতে অনেকেই যখন নেশায় বুঁদ তখনই তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলেন তারা। বাজেয়াপ্ত করা হয় কোকেন, হাশিস, এমডিএম-এর মতো প্রচুর টাকার মাদক।

মাদকের পার্টি থেকে আটক শাহরুখপুত্র আরিয়ান

প্রকাশের সময় : ০২:৩০:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ অক্টোবর ২০২১

বিনোদন ডেস্ক ।।

শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (এনসিবি)।

ভারতীয় সিনেমার সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে-মেয়ে দুজনই বারবার আলোচনা-সমালোচনায় আসছেন। এবার মাদকের পার্টি থেকে শাহরুখপুত্র আরিয়ানের আটক হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ইন্ডিয়া টুডের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার এমন তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার (২ অক্টোবর) রাতে মুম্বই থেকে গোয়াগামী একটি বিলাসবহুল ক্রুজে অভিযান চালিয়ে ১০ জনকে আটক করেন এনসিবির কর্মকর্তারা। অভিযোগ, সেখানে রেভ পার্টি চলছিলো। আটক হওয়া সেই ১০ জনের মধ্যেই রয়েছেন শাহরুখপুত্র।

শুধু বলিউড নয়, পুলিশ সূত্রে খবর ফ্যাশন জগতের অনেকেও উপস্থিত ছিলেন সেখানে। সেই ক্রুজ পার্টিতে নিষিদ্ধ মাদক ব্যবহারের খবর পেয়েই সেখানে হানা দেয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

শনিবার রাতে যাত্রীর ছদ্মবেশে কর্ডেলিয়া নামে বিলাসবহুল ওই ক্রুজে চেপে বসেছিলেন এনসিবি গোয়েন্দারা। সেই পার্টিতে অনেকেই যখন নেশায় বুঁদ তখনই তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলেন তারা। বাজেয়াপ্ত করা হয় কোকেন, হাশিস, এমডিএম-এর মতো প্রচুর টাকার মাদক।