রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রবাসীর গর্ভবতী স্ত্রীকে বেঁধে রাতভর ধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

বান্দরবান প্রতিনিধি ।।

লামা রূপসীপাড়ায় দুই শিশু সন্তানকে ঘরে তালাবদ্ধ করে প্রবাসীর গর্ভবতী স্ত্রীকে বেঁধে রাতভর ধর্ষণ, মারধর ও বসতবাড়িতে লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার রাতে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন বৈদ্দ্যভিটা রূপসীপাড়া ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার আবু তাহের।

এলাকাবাসী জানায়, সকালে পাশের এক নারী পানি আনতে প্রবাসীর বাড়ির পাশে টিউবওয়েলে যান। তখন প্রবাসীর বাড়ির জানালা দিয়ে দুই শিশুকে কান্না করতে দেখে। তিনি এগিয়ে গেলে এই মর্মান্তিক ঘটনা দেখেন। পরে জানাজানি হলে স্বজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন।

পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ঘরে প্রবাসীর স্ত্রী ও তার দুই শিশু ছিল। রাত ২টার দিকে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হলে দুর্বৃত্তরা মুখ চেপে ধরে প্রবাসীর স্ত্রীর। এ সময় তার দুই শিশুকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে। পরে রাতভর নির্যাতন, মারধর করা হয়। এদিকে দুর্বৃত্তরা বাড়ির আলমারি, ওয়ারড্রব ও শোকেস ভেঙে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। সকালে পুলিশ এসে স্থানীয়দের সহায়তায় রশি কেটে ওই নারীকে উদ্ধার করে।

লামা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোল্লা রমিজ জাহান জুম্মা বলেন, সকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় রশি কেটে ওই নারীকে উদ্ধার করা হয়। তাকে জেলা সদর হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হচ্ছে।

ঘটনার খবর পেয়ে লামা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘অপরাধীদের ছাড় দেয়া হবে না। পুলিশ তদন্ত করছে। দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে৷

প্রবাসীর গর্ভবতী স্ত্রীকে বেঁধে রাতভর ধর্ষণ

প্রকাশের সময় : ০৬:০৫:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২১

বান্দরবান প্রতিনিধি ।।

লামা রূপসীপাড়ায় দুই শিশু সন্তানকে ঘরে তালাবদ্ধ করে প্রবাসীর গর্ভবতী স্ত্রীকে বেঁধে রাতভর ধর্ষণ, মারধর ও বসতবাড়িতে লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার রাতে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন বৈদ্দ্যভিটা রূপসীপাড়া ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার আবু তাহের।

এলাকাবাসী জানায়, সকালে পাশের এক নারী পানি আনতে প্রবাসীর বাড়ির পাশে টিউবওয়েলে যান। তখন প্রবাসীর বাড়ির জানালা দিয়ে দুই শিশুকে কান্না করতে দেখে। তিনি এগিয়ে গেলে এই মর্মান্তিক ঘটনা দেখেন। পরে জানাজানি হলে স্বজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন।

পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ঘরে প্রবাসীর স্ত্রী ও তার দুই শিশু ছিল। রাত ২টার দিকে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হলে দুর্বৃত্তরা মুখ চেপে ধরে প্রবাসীর স্ত্রীর। এ সময় তার দুই শিশুকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে। পরে রাতভর নির্যাতন, মারধর করা হয়। এদিকে দুর্বৃত্তরা বাড়ির আলমারি, ওয়ারড্রব ও শোকেস ভেঙে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। সকালে পুলিশ এসে স্থানীয়দের সহায়তায় রশি কেটে ওই নারীকে উদ্ধার করে।

লামা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোল্লা রমিজ জাহান জুম্মা বলেন, সকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় রশি কেটে ওই নারীকে উদ্ধার করা হয়। তাকে জেলা সদর হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হচ্ছে।

ঘটনার খবর পেয়ে লামা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘অপরাধীদের ছাড় দেয়া হবে না। পুলিশ তদন্ত করছে। দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে৷