সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে ১১ কেজি সোনাসহ আটক ৪

এম এ জি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আজ সোমবার সকালে ১১ কেজি ২২০ গ্রাম ওজনের সোনা জব্দ করা হয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

সিলেট ব্যুরো ।।

সিলেট এমএজি ওসমানী বিমানবন্দর থেকে ১১ কেজি ২২০ গ্রাম সোনাসহ চারজনকে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ। আটক সোনার বাজার মূল্য আনুমানিক সাত কোটি টাকার ওপরে।

সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) সকাল ৯টায় বাংলাদেশ বিমানের বিজি-২৪৮ ফ্লাইটে দুবাই থেকে আয়রন ও জুসার মেশিনে করে সোনাগুলো নিয়ে আসেন তারা।

জব্দকৃত চালানে হোয়াইট গোল্ড (সাদা স্বর্ণ) রয়েছে বলেও জানা গেছে। সোনা চোরাচালানে জড়িত চার যাত্রীকে আটক করা হয়েছে। তাদের তিনজনের বাড়ি সিলেট ও একজন হবিগঞ্জের বাসিন্দা।

আটকরা হলেন-হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার শেখ আব্দুল জলিলের ছেলে শেখ জাহিদ, সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার আব্দুল আহাদের ছেলে মকবুল আলী, একই উপজেলার মন্তাজ আলীর ছেলে বশির উদ্দিন ও নাজিম উদ্দিনের ছেলে সুলতান মাহমুদ।

ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর কাস্টমসের উপ কমিশনার (ডিসি) আল আমিন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আটকদের কাছ থেকে একটি করে সোনার আয়রন, জুসার মেশিন ও এয়ার কমপ্রেসার জব্দ করা হয়। এগুলো সোনা গলিয়ে তৈরি করা হয়েছে। জব্দকৃত সোনার পরিমাণ ১১ কেজি ২২০ গ্রাম। যার বাজার মূল্য সাত কোটি ৭২ লাখ টাকা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া আরেকটি হোয়াইট গোল্ড পাওয়া গেছে। এটা পরিক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিমানের ওই ফ্লাইটে আসা চার যাত্রী গ্রীন জোনে পৌঁছালে তাদের চ্যালেঞ্জ করা হয়। এ সময় তাদের সঙ্গে থাকা লাগেজ থেকে স্বর্ণ গলিয়ে তৈরি একটি করে আয়রন, জুসার মেশিন ও এয়ার কমপ্রেসার জব্দ করা হয়।

সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে ১১ কেজি সোনাসহ আটক ৪

প্রকাশের সময় : ০৪:১৫:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১

সিলেট ব্যুরো ।।

সিলেট এমএজি ওসমানী বিমানবন্দর থেকে ১১ কেজি ২২০ গ্রাম সোনাসহ চারজনকে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ। আটক সোনার বাজার মূল্য আনুমানিক সাত কোটি টাকার ওপরে।

সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) সকাল ৯টায় বাংলাদেশ বিমানের বিজি-২৪৮ ফ্লাইটে দুবাই থেকে আয়রন ও জুসার মেশিনে করে সোনাগুলো নিয়ে আসেন তারা।

জব্দকৃত চালানে হোয়াইট গোল্ড (সাদা স্বর্ণ) রয়েছে বলেও জানা গেছে। সোনা চোরাচালানে জড়িত চার যাত্রীকে আটক করা হয়েছে। তাদের তিনজনের বাড়ি সিলেট ও একজন হবিগঞ্জের বাসিন্দা।

আটকরা হলেন-হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার শেখ আব্দুল জলিলের ছেলে শেখ জাহিদ, সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার আব্দুল আহাদের ছেলে মকবুল আলী, একই উপজেলার মন্তাজ আলীর ছেলে বশির উদ্দিন ও নাজিম উদ্দিনের ছেলে সুলতান মাহমুদ।

ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর কাস্টমসের উপ কমিশনার (ডিসি) আল আমিন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আটকদের কাছ থেকে একটি করে সোনার আয়রন, জুসার মেশিন ও এয়ার কমপ্রেসার জব্দ করা হয়। এগুলো সোনা গলিয়ে তৈরি করা হয়েছে। জব্দকৃত সোনার পরিমাণ ১১ কেজি ২২০ গ্রাম। যার বাজার মূল্য সাত কোটি ৭২ লাখ টাকা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া আরেকটি হোয়াইট গোল্ড পাওয়া গেছে। এটা পরিক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিমানের ওই ফ্লাইটে আসা চার যাত্রী গ্রীন জোনে পৌঁছালে তাদের চ্যালেঞ্জ করা হয়। এ সময় তাদের সঙ্গে থাকা লাগেজ থেকে স্বর্ণ গলিয়ে তৈরি একটি করে আয়রন, জুসার মেশিন ও এয়ার কমপ্রেসার জব্দ করা হয়।