সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্ত মোতাবেক নির্বাচন কমিশন গঠন হবে: আইনমন্ত্রী

ফাইল ছবি

ডেস্ক রিপোর্ট ।।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে দিয়েছেন জানিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে বিতর্ক করার সুযোগ নেই মন্তব্য করে আনিসুল হক বলেন, এটি রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব।  উনি এ বিষয়ে যে নির্দেশনা দেবেন সেই অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠিত হবে।  সেই কমিশন নির্বাচন পরিচালনা করবে।

নির্বাচন কমিশন আইন নিয়ে তিনি বলেন, ১৫ ফেব্রুয়ারি যেহেতু এই নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে।  এই সময়ের মধ্যে যেহেতু সংসদে আইন পাশ করা সম্ভব হবে না।  তাই আমার মনে হয় যে পদ্ধতিতে আগের কমিশন গঠিত হয়েছিল এবারও সেভাবেই হওয়া উচিত।

‘কারা নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন।  এখানে কিন্তু রাজনৈতিক ব্যক্তি নেই।  সার্চ কমিটিতে যে ছয়জন থাকবেন তাদের একজন আপিল বিভাগের একজন বিচারপতি, হাইকোর্ট বিভাগের একজন বিচারপতি, পাবলিক সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান, কন্ট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল।  এই চারজন সাংবিধানিক পোস্ট হোল্ডার বাকি দুজন সিভিল সোসাইটির প্রতিনিধি।  এখানে কিন্তু রাজনৈতিক দলের কেউ নেই, সরকারি দলের কেউ নেই।  সার্চ কমিটি ১০ জন ব্যক্তিকে বাছাই করে রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠাবেন।  এই সার্চ কমিটির কাছে সব রাজনৈতিক দলের নাম দেওয়ার সুযোগ আছে।  তাই নির্বাচন কমিশন গঠনে পক্ষপাতিত্বের সুযোগ নেই।

রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্ত মোতাবেক নির্বাচন কমিশন গঠন হবে: আইনমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ০৫:১৪:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২১

ডেস্ক রিপোর্ট ।।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে দিয়েছেন জানিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে বিতর্ক করার সুযোগ নেই মন্তব্য করে আনিসুল হক বলেন, এটি রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব।  উনি এ বিষয়ে যে নির্দেশনা দেবেন সেই অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠিত হবে।  সেই কমিশন নির্বাচন পরিচালনা করবে।

নির্বাচন কমিশন আইন নিয়ে তিনি বলেন, ১৫ ফেব্রুয়ারি যেহেতু এই নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে।  এই সময়ের মধ্যে যেহেতু সংসদে আইন পাশ করা সম্ভব হবে না।  তাই আমার মনে হয় যে পদ্ধতিতে আগের কমিশন গঠিত হয়েছিল এবারও সেভাবেই হওয়া উচিত।

‘কারা নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন।  এখানে কিন্তু রাজনৈতিক ব্যক্তি নেই।  সার্চ কমিটিতে যে ছয়জন থাকবেন তাদের একজন আপিল বিভাগের একজন বিচারপতি, হাইকোর্ট বিভাগের একজন বিচারপতি, পাবলিক সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান, কন্ট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল।  এই চারজন সাংবিধানিক পোস্ট হোল্ডার বাকি দুজন সিভিল সোসাইটির প্রতিনিধি।  এখানে কিন্তু রাজনৈতিক দলের কেউ নেই, সরকারি দলের কেউ নেই।  সার্চ কমিটি ১০ জন ব্যক্তিকে বাছাই করে রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠাবেন।  এই সার্চ কমিটির কাছে সব রাজনৈতিক দলের নাম দেওয়ার সুযোগ আছে।  তাই নির্বাচন কমিশন গঠনে পক্ষপাতিত্বের সুযোগ নেই।