শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যশোর বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৯৩.০৯

যশোর প্রতিনিধি ।।

শোরে বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় এবছর পাসের হার ৯৩.০৯ পার্সেন্ট। এরমধ্যে ছাত্রদের পাসের হার ৯২.৪২ এবং ছাত্রীদের পাসের হার ৯৩.৭৯। এবছর যশোর বোর্ডে মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ হাজার ৪শ ৬১ জন। এরমধ্যে ছাত্রদের জিপিএ -৫ এর সংখ্যা ৭ হাজার ৪শ ৭২জন এবং ছাত্রী ৮ হাজার ৯শ ৮৯ জন। চলতি বছর যশোর বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিলো ১ লাখ ৭৮ হাজার ৭ শ ৯৫ জন। পরীক্ষায় পাস করেছে ১ লাখ ৬৬ হাজার ৪শ ৩৯ জন। ২ হাজার ৫শ ৩৭ টি শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। শতভাগ পাশ করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২৫৫ । কেন্দ্রের সংখ্যা ছিলো ২৯১ টি। শূন্যভাগ পাসের কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবার নেই।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে এক ব্রিফিংএ এ তথ্য জানান যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র র“দ্র।
এবার পাসের হার বেশির বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র র“দ্র বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা ৩ বিষয়ে পরীক্ষা দিলেও মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে জেএসসির ফলাফলের উপর ভিত্তি করে অবশিষ্ট বিষয়ের ফল তৈরি করা হয়। এবার পাসের হার বেশি হওয়ার কারন, আমরা শুধুমাত্র তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা নিয়েছি। আমরা মাধ্যমিকের ক্ষেত্রে অধিকাংশ সময় যেটা লক্ষ্য করি যে মানবিক বিভাগে ইংরেজি ও গনিত এবং আইসিটিতে কিছু ছাত্র জেএসসিতে পাস করার পরও পাস করতে পারেনা। কিš‘ এবার যেহেতু গনিত ইংরেজিসহ অন্য যে বিষয়গুলো তাতে কিš‘ ফেল করার সুযোগ নাই। যেহেতু জেএসসি পাস করে আসছে। ঐ পাসটার ইফেক্টটা কিš‘ এখানে সরাসরিভাবে চলে আসছে। যেহেতু তারা পাস করা ছিলো সেই রেজাল্টগুলো এখানে চলে আসছে। একারনে পাসের হারের ক্ষেত্রে উর্দ্ধগতি লক্ষ্য করছি।
সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তবে ভর্তির ক্ষেত্রে চাপ পড়বে, তবে একটি আশার কথা মাধ্যমিক পর্যায়ে যত সংখ্যাক আসন আছে তার থেকে কিš‘ পাসের সংখ্যা সবসময় বৃদ্ধি হয় বিষয়টি এমন নয়, কোন কোন নিদৃষ্ট কলেজে হয়তো চাপ বেশি পড়বে কিš‘ পাসের সংখ্যা অনুযায়ী আমাদের ভর্তির আসন সংখ্যা ঠিক আছে।

যশোর বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৯৩.০৯

প্রকাশের সময় : ০৩:৫৪:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২১

যশোর প্রতিনিধি ।।

শোরে বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় এবছর পাসের হার ৯৩.০৯ পার্সেন্ট। এরমধ্যে ছাত্রদের পাসের হার ৯২.৪২ এবং ছাত্রীদের পাসের হার ৯৩.৭৯। এবছর যশোর বোর্ডে মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ হাজার ৪শ ৬১ জন। এরমধ্যে ছাত্রদের জিপিএ -৫ এর সংখ্যা ৭ হাজার ৪শ ৭২জন এবং ছাত্রী ৮ হাজার ৯শ ৮৯ জন। চলতি বছর যশোর বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিলো ১ লাখ ৭৮ হাজার ৭ শ ৯৫ জন। পরীক্ষায় পাস করেছে ১ লাখ ৬৬ হাজার ৪শ ৩৯ জন। ২ হাজার ৫শ ৩৭ টি শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। শতভাগ পাশ করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২৫৫ । কেন্দ্রের সংখ্যা ছিলো ২৯১ টি। শূন্যভাগ পাসের কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবার নেই।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে এক ব্রিফিংএ এ তথ্য জানান যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র র“দ্র।
এবার পাসের হার বেশির বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র র“দ্র বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা ৩ বিষয়ে পরীক্ষা দিলেও মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে জেএসসির ফলাফলের উপর ভিত্তি করে অবশিষ্ট বিষয়ের ফল তৈরি করা হয়। এবার পাসের হার বেশি হওয়ার কারন, আমরা শুধুমাত্র তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা নিয়েছি। আমরা মাধ্যমিকের ক্ষেত্রে অধিকাংশ সময় যেটা লক্ষ্য করি যে মানবিক বিভাগে ইংরেজি ও গনিত এবং আইসিটিতে কিছু ছাত্র জেএসসিতে পাস করার পরও পাস করতে পারেনা। কিš‘ এবার যেহেতু গনিত ইংরেজিসহ অন্য যে বিষয়গুলো তাতে কিš‘ ফেল করার সুযোগ নাই। যেহেতু জেএসসি পাস করে আসছে। ঐ পাসটার ইফেক্টটা কিš‘ এখানে সরাসরিভাবে চলে আসছে। যেহেতু তারা পাস করা ছিলো সেই রেজাল্টগুলো এখানে চলে আসছে। একারনে পাসের হারের ক্ষেত্রে উর্দ্ধগতি লক্ষ্য করছি।
সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তবে ভর্তির ক্ষেত্রে চাপ পড়বে, তবে একটি আশার কথা মাধ্যমিক পর্যায়ে যত সংখ্যাক আসন আছে তার থেকে কিš‘ পাসের সংখ্যা সবসময় বৃদ্ধি হয় বিষয়টি এমন নয়, কোন কোন নিদৃষ্ট কলেজে হয়তো চাপ বেশি পড়বে কিš‘ পাসের সংখ্যা অনুযায়ী আমাদের ভর্তির আসন সংখ্যা ঠিক আছে।