রবিবার, ২৮ মে ২০২৩, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এ্যাম্বুলেন্স থেকে ৬৩৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার, আটক ২

মোস্তাফিজুর রহমান, লালমনিরহাট।।
ঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আইযুব আলীর বাসা সংলগ্ন বড়াবাড়ি এলাকা থেকে এ্যাম্বুলেন্স থামিয়ে তল্লাশি চালিয়ে ৬৩৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করেন আদিতমারী থানা পুলিশ।
আটক এ্যাম্বুলেন্স চালক আব্দুর রাজ্জাক কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার মনগইড় গ্রামের মৃত সফর আলীর ছেলে। আর মাদক ব্যবসায়ী লিটন একই উপজেলার আমিরাবাদ গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে। লিটনের বিরুদ্ধে কুমিল্লার বিভিন্ন থানায় ৪টি মাদক মামলা রয়েছে বলে উদ্ধারকারী অফিসার আদিতমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল আবেদীন নিশ্চিত করেছেন।

থানা পুলিশ সূত্র জানায়,গত সোমবার কুমিল্লা থেকে এ্যাম্বুলেন্সটি উপজেলার ভেলাবাড়ী নামক স্থানে অবস্থান করেন। পুলিশের সন্দেহ হলে ওই এ্যাম্বুলেন্সের উপর নজরদারি রাখেন থানা পুলিশ। উদ্ধারকারী অফিসার এসআই জয়নাল আবেদীন জানান, আজ মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকালে ভেলাবাড়ী থেকে এ্যাম্বুলেন্সটি একতার মোড় হয়ে আদিতমারীর দিকে রওনা করেন। পুলিশ এ্যাম্বুলেন্সের  পিছু নিলে চালক বিভিন্ন রুট পরিবর্তনের চেষ্টা চালায়। অবশেষে থানা পুলিশ আদিতমারী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এর বাসা সংলগ্ন বড়াবাড়ি সংলগ্ন এলাকা থেকে আটক করেন। এসময় এ্যাম্বুলেন্স তল্লাশি চালিয়ে ৬৩৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় এ্যাম্বুলেন্স চালক ও মাদক ব্যবসায়ীকে।

ওসি মোক্তারুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আটক দু’জনের মধ্যে মাদক ব্যবসায়ী লিটন মিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লার বিভিন্ন থানায় আরও ৪টি মামলা রয়েছে।

মহাশক্তিশালী সুপার টাইফুন ‘বেটি’ধেয়ে আসছে প্রবল শক্তিতে

এ্যাম্বুলেন্স থেকে ৬৩৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার, আটক ২

প্রকাশের সময় : ০৭:১৬:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারী ২০২২
মোস্তাফিজুর রহমান, লালমনিরহাট।।
ঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আইযুব আলীর বাসা সংলগ্ন বড়াবাড়ি এলাকা থেকে এ্যাম্বুলেন্স থামিয়ে তল্লাশি চালিয়ে ৬৩৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করেন আদিতমারী থানা পুলিশ।
আটক এ্যাম্বুলেন্স চালক আব্দুর রাজ্জাক কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার মনগইড় গ্রামের মৃত সফর আলীর ছেলে। আর মাদক ব্যবসায়ী লিটন একই উপজেলার আমিরাবাদ গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে। লিটনের বিরুদ্ধে কুমিল্লার বিভিন্ন থানায় ৪টি মাদক মামলা রয়েছে বলে উদ্ধারকারী অফিসার আদিতমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল আবেদীন নিশ্চিত করেছেন।

থানা পুলিশ সূত্র জানায়,গত সোমবার কুমিল্লা থেকে এ্যাম্বুলেন্সটি উপজেলার ভেলাবাড়ী নামক স্থানে অবস্থান করেন। পুলিশের সন্দেহ হলে ওই এ্যাম্বুলেন্সের উপর নজরদারি রাখেন থানা পুলিশ। উদ্ধারকারী অফিসার এসআই জয়নাল আবেদীন জানান, আজ মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকালে ভেলাবাড়ী থেকে এ্যাম্বুলেন্সটি একতার মোড় হয়ে আদিতমারীর দিকে রওনা করেন। পুলিশ এ্যাম্বুলেন্সের  পিছু নিলে চালক বিভিন্ন রুট পরিবর্তনের চেষ্টা চালায়। অবশেষে থানা পুলিশ আদিতমারী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এর বাসা সংলগ্ন বড়াবাড়ি সংলগ্ন এলাকা থেকে আটক করেন। এসময় এ্যাম্বুলেন্স তল্লাশি চালিয়ে ৬৩৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় এ্যাম্বুলেন্স চালক ও মাদক ব্যবসায়ীকে।

ওসি মোক্তারুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আটক দু’জনের মধ্যে মাদক ব্যবসায়ী লিটন মিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লার বিভিন্ন থানায় আরও ৪টি মামলা রয়েছে।