বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিদেশ থেকে ভারতে ঢুকলেই ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ওমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে বিদেশ থেকে আসা সব যাত্রীর জন্য ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি অনলইন।

পাশাপাশি ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকাও বড় করা হয়েছে। গত ডিসেম্বরে যেখানে ১০টি দেশকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল, শুক্রবার এই তালিকায় আরও ৯ দেশকে যোগ করার ফলে এই সংখ্যা পৌঁছেছে ১৯টিতে।

আর যারা টেস্টে নেগেটিভ হিসেবে শনাক্ত হবেন, তাদের কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ শেষ হলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। তবে পরবর্তী সাতদিন নিজেদের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে এবং যতদিন তারা ভারতে থাকবেন, ততদিন কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে ।

ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর যাত্রীরা ৭ দিন কোয়ারেন্টাইনে কাটানোর পর আরটিপিসিআর টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট এলেও তার সাত দিন পর ফের টেস্ট করাতে হবে তাদের।

গত বছর করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ধরন ডেল্টার প্রাদুর্ভাবে ভারতে দেখা দিয়েছিল করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, যার ধক্কায় ছারখার হয়ে গিয়েছিল দেশটির জনজীবন। কয়েকমাস বিরতির পর ওমিক্রনের প্রভাবে ফের ভারতে দৈনিক সংক্রমণ বাড়ছে হু হু করে।

ভারতে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ২০২০ সালের ৩০ জানুয়ারি, কেরালায়। তারপর থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩ কোটি ৫২ লাখ ২৬ হাজার ৩৮৬ জন এবং এ রোগে সেখানের মৃত্যু হয়েছে মোট ৪ লাখ ৮৩ হাজার ১৭৮ জনের।

২০২০ সালে মহামারি শুরুর পর থেকে করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হালনাগাদ সংখ্যা প্রদানকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, করোনায় মোট মৃত্যুর হিসেবে বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে তৃতীয় শীর্ষস্থানে আছে ভারত।

অবশেষে জল্পনা সত্যি! মা হচ্ছেন দীপিকা

বিদেশ থেকে ভারতে ঢুকলেই ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইন

প্রকাশের সময় : ০৯:১৫:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ জানুয়ারী ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ওমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে বিদেশ থেকে আসা সব যাত্রীর জন্য ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি অনলইন।

পাশাপাশি ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকাও বড় করা হয়েছে। গত ডিসেম্বরে যেখানে ১০টি দেশকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল, শুক্রবার এই তালিকায় আরও ৯ দেশকে যোগ করার ফলে এই সংখ্যা পৌঁছেছে ১৯টিতে।

আর যারা টেস্টে নেগেটিভ হিসেবে শনাক্ত হবেন, তাদের কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ শেষ হলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। তবে পরবর্তী সাতদিন নিজেদের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে এবং যতদিন তারা ভারতে থাকবেন, ততদিন কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে ।

ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর যাত্রীরা ৭ দিন কোয়ারেন্টাইনে কাটানোর পর আরটিপিসিআর টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট এলেও তার সাত দিন পর ফের টেস্ট করাতে হবে তাদের।

গত বছর করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ধরন ডেল্টার প্রাদুর্ভাবে ভারতে দেখা দিয়েছিল করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, যার ধক্কায় ছারখার হয়ে গিয়েছিল দেশটির জনজীবন। কয়েকমাস বিরতির পর ওমিক্রনের প্রভাবে ফের ভারতে দৈনিক সংক্রমণ বাড়ছে হু হু করে।

ভারতে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ২০২০ সালের ৩০ জানুয়ারি, কেরালায়। তারপর থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩ কোটি ৫২ লাখ ২৬ হাজার ৩৮৬ জন এবং এ রোগে সেখানের মৃত্যু হয়েছে মোট ৪ লাখ ৮৩ হাজার ১৭৮ জনের।

২০২০ সালে মহামারি শুরুর পর থেকে করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হালনাগাদ সংখ্যা প্রদানকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, করোনায় মোট মৃত্যুর হিসেবে বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে তৃতীয় শীর্ষস্থানে আছে ভারত।