শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রাম্পকে অপহরণ ও হত্যার হুমকি, গ্রেফতার ১

ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোনে অপহরণ ও হত্যার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস।

জানা গেছে, ৭২ বছর বয়সী নিউইয়র্কের ওই বাসিন্দাকে স্থানীয় সময় সোমবার (১০ জানুয়ারি) মার্কিন সিক্রেট সার্ভিসের সদস্যরা গ্রেফতার করেন। তিনি সিক্রেট সার্ভিসকে ফোন করে একাধিকবার ট্রাম্পকে হুমকি দেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ব্রুকলিনের প্রসিকিউটররা জানান, টমাস ওয়েলনিকি নামের ওই ব্যক্তি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টকে জেনেশুনে এবং ইচ্ছাকৃতভাবে অপহরণ ও শারীরিকভাবে ক্ষতি, এমনকি হত্যার হুমকি দেন।

টমাস ওয়েলনিকির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ২০২০ সালের জুলাইয়ে এক সাক্ষাৎকারে ক্যাপিটল পুলিশকে বলেন, যদি ট্রাম্প ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হেরে যান, আর পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানান, তবে তিনি অস্ত্র সংগ্রহ করবেন এবং তাকে হত্যা করবেন।

টমাস ওয়েলনিকি গত বছরের ৪ জানুয়ারি সিক্রেট সার্ভিসকে তার মোবাইল ফোন থেকেও ফোন করেন। তিনি দুটি ভয়েস মেইলও পাঠান। এই ভয়েস মেইলে তিনি ট্রাম্পকে হত্যার কথা জানান।

হুমকিতে ট্রাম্পকে ‘হিটলার’ বলে অভিহিত করেন টমাস ওয়েলনিকি। তিনি বলেন, ট্রাম্পের মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য তিনি সবকিছুই করবেন।

কুইনসে বসবাসকারী অভিযুক্ত ৭২ বছর বয়সী এই ব্যক্তি বলেন, হ্যাঁ সেটা হুমকি, আসুন আমাকে গ্রেফতার করুন। আমি তাকে সরাতে যে কোনো কিছু করবো।

গত বছরের নভেম্বরেও ওয়েলনিকি তিনবার তার ফোন থেকে সিক্রেট সার্ভিসে কল করেন। প্রতিবারেই তিনি তার পরিচয় দিয়ে হুমকি দেন।

প্রোসিকিউটর অফিসের এক মুখপাত্র জানান, গত সোমবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ব্রুকলিন ফেডারেল আদালতে অভিযোগেরভিত্তিতে ওয়েলনিকিকে সাজা দেওয়া হয়। সাজায় তাকে ৫০ হাজার ডলার জরিমানার শর্তে জামিন দেওয়ার কথা বলা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে মানসিক চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করা এবং অ্যালকোহল বা মাদক জাতীয় জিনিস থেকে দূরে রাখতে বলা হয়েছে। সূত্র- এএফপি

ট্রাম্পকে অপহরণ ও হত্যার হুমকি, গ্রেফতার ১

প্রকাশের সময় : ০১:২১:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারী ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোনে অপহরণ ও হত্যার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস।

জানা গেছে, ৭২ বছর বয়সী নিউইয়র্কের ওই বাসিন্দাকে স্থানীয় সময় সোমবার (১০ জানুয়ারি) মার্কিন সিক্রেট সার্ভিসের সদস্যরা গ্রেফতার করেন। তিনি সিক্রেট সার্ভিসকে ফোন করে একাধিকবার ট্রাম্পকে হুমকি দেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ব্রুকলিনের প্রসিকিউটররা জানান, টমাস ওয়েলনিকি নামের ওই ব্যক্তি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টকে জেনেশুনে এবং ইচ্ছাকৃতভাবে অপহরণ ও শারীরিকভাবে ক্ষতি, এমনকি হত্যার হুমকি দেন।

টমাস ওয়েলনিকির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ২০২০ সালের জুলাইয়ে এক সাক্ষাৎকারে ক্যাপিটল পুলিশকে বলেন, যদি ট্রাম্প ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হেরে যান, আর পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানান, তবে তিনি অস্ত্র সংগ্রহ করবেন এবং তাকে হত্যা করবেন।

টমাস ওয়েলনিকি গত বছরের ৪ জানুয়ারি সিক্রেট সার্ভিসকে তার মোবাইল ফোন থেকেও ফোন করেন। তিনি দুটি ভয়েস মেইলও পাঠান। এই ভয়েস মেইলে তিনি ট্রাম্পকে হত্যার কথা জানান।

হুমকিতে ট্রাম্পকে ‘হিটলার’ বলে অভিহিত করেন টমাস ওয়েলনিকি। তিনি বলেন, ট্রাম্পের মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য তিনি সবকিছুই করবেন।

কুইনসে বসবাসকারী অভিযুক্ত ৭২ বছর বয়সী এই ব্যক্তি বলেন, হ্যাঁ সেটা হুমকি, আসুন আমাকে গ্রেফতার করুন। আমি তাকে সরাতে যে কোনো কিছু করবো।

গত বছরের নভেম্বরেও ওয়েলনিকি তিনবার তার ফোন থেকে সিক্রেট সার্ভিসে কল করেন। প্রতিবারেই তিনি তার পরিচয় দিয়ে হুমকি দেন।

প্রোসিকিউটর অফিসের এক মুখপাত্র জানান, গত সোমবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ব্রুকলিন ফেডারেল আদালতে অভিযোগেরভিত্তিতে ওয়েলনিকিকে সাজা দেওয়া হয়। সাজায় তাকে ৫০ হাজার ডলার জরিমানার শর্তে জামিন দেওয়ার কথা বলা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে মানসিক চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করা এবং অ্যালকোহল বা মাদক জাতীয় জিনিস থেকে দূরে রাখতে বলা হয়েছে। সূত্র- এএফপি