রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অভিনেত্রী শিমু হত্যা : স্বামীসহ আটক ২

ফাইল ছবি

বিনোদন ডেস্ক ।।

ভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমুর (৩৫) বস্তাবন্দি মৃতদেহ উদ্ধারের পর সন্দেহভাজন হিসেবে স্বামী নোবেল ও তার বন্ধু ফরহাদকে আটক করেছে র‍্যাব।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে কেরানীগঞ্জ আলীপুর ব্রিজের পাশ থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় মরদেহ উদ্ধারের পর দিবাগত রাতে তাদের আটক করা হয়।

র‍্যাব জানায়, অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমু হত্যার পেছনে পারিবারিক দ্বন্ধ বা পূর্ব শত্রুতা আছে কি না সে বিষয়ে জানতে দুজনকে হেফাজতে নেয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে একটি গাড়িও জব্দ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানায় র‍্যাব।

এর আগে সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে কেরানীগঞ্জ আলীপুর ব্রিজের পাশ থেকে বস্তা বন্দী অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় অভিনেত্রী শিমুর ভাই মরদেহটি শনাক্ত করেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু সালাম মিয়া জানান, এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেছেন শিমুর ভাই খোকন। ধরনা করা হচ্ছে অন্য কোথাও তাকে হত্য মরদেহটি আলীপুর ব্রিজের পাশে ফেলে যাওয়া হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে মরদেহ ফেলে যাওয়া গাড়ীটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

রাজধানীর গ্রিনরোডের বাসিন্দা ছিলেন অভিনেত্রী শিমু। রাইমা ইসলাম শিমু ২০২০ সালে এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ১৯৯৮ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত তিনি ১৮ থেকে ২২টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

১৯৯৮ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বর্তমান’ সিনেমা দিয়ে রুপালি পর্দায় তার অভিষেক হয়। এরপর একে একে অভিনয় করেছেন ৫০টিরও বেশি সিনেমায়। কাজ করেছেন বহু নাটকে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসবেও সক্রিয় ছিলেন তিনি।

বাংলাদেশের অনেক গুণী পরিচালকের সাথে কাজ করেছেন শিমু। সে তালিকায় আছেন মরহুম চাষী নজরুল ইসলাম, পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, এ জে রানা, শরিফুদ্দিন খান দ্বীপু, এনায়েত করিম, শবনম পারভীন। অভিনয় করেছেন রিয়াজ, অমিত হাসান, বাপ্পারাজ, জাহিদ হাসান, মোশারফ করিম, শাকিব খানসহ অনেক গুণী ও জনপ্রিয় অভিনেতাদের বিপরীতে।

সাংবাদিক হামিদুল ইসলামের চিকিৎসায় আর্থিক সহায্য প্রয়োজন

অভিনেত্রী শিমু হত্যা : স্বামীসহ আটক ২

প্রকাশের সময় : ১০:৫৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২

বিনোদন ডেস্ক ।।

ভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমুর (৩৫) বস্তাবন্দি মৃতদেহ উদ্ধারের পর সন্দেহভাজন হিসেবে স্বামী নোবেল ও তার বন্ধু ফরহাদকে আটক করেছে র‍্যাব।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে কেরানীগঞ্জ আলীপুর ব্রিজের পাশ থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় মরদেহ উদ্ধারের পর দিবাগত রাতে তাদের আটক করা হয়।

র‍্যাব জানায়, অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমু হত্যার পেছনে পারিবারিক দ্বন্ধ বা পূর্ব শত্রুতা আছে কি না সে বিষয়ে জানতে দুজনকে হেফাজতে নেয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে একটি গাড়িও জব্দ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানায় র‍্যাব।

এর আগে সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে কেরানীগঞ্জ আলীপুর ব্রিজের পাশ থেকে বস্তা বন্দী অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় অভিনেত্রী শিমুর ভাই মরদেহটি শনাক্ত করেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু সালাম মিয়া জানান, এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেছেন শিমুর ভাই খোকন। ধরনা করা হচ্ছে অন্য কোথাও তাকে হত্য মরদেহটি আলীপুর ব্রিজের পাশে ফেলে যাওয়া হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে মরদেহ ফেলে যাওয়া গাড়ীটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

রাজধানীর গ্রিনরোডের বাসিন্দা ছিলেন অভিনেত্রী শিমু। রাইমা ইসলাম শিমু ২০২০ সালে এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ১৯৯৮ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত তিনি ১৮ থেকে ২২টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

১৯৯৮ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বর্তমান’ সিনেমা দিয়ে রুপালি পর্দায় তার অভিষেক হয়। এরপর একে একে অভিনয় করেছেন ৫০টিরও বেশি সিনেমায়। কাজ করেছেন বহু নাটকে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসবেও সক্রিয় ছিলেন তিনি।

বাংলাদেশের অনেক গুণী পরিচালকের সাথে কাজ করেছেন শিমু। সে তালিকায় আছেন মরহুম চাষী নজরুল ইসলাম, পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, এ জে রানা, শরিফুদ্দিন খান দ্বীপু, এনায়েত করিম, শবনম পারভীন। অভিনয় করেছেন রিয়াজ, অমিত হাসান, বাপ্পারাজ, জাহিদ হাসান, মোশারফ করিম, শাকিব খানসহ অনেক গুণী ও জনপ্রিয় অভিনেতাদের বিপরীতে।