শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুলছে ফিলিপাইন

ফাইল ছবি

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে প্রায় দুই বছর বন্ধ রাখার পর অবশেষে বিদেশি পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিলিপাইনের সরকার। আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে টিকার দুই ডোজ সম্পূর্ণ করা বিদেশি পর্যটকরা দেশটিতে যেতে পারবেন।

দেশটির রাষ্ট্রপতির দফতরের মুখপাত্র কার্লো নগ্রালেস শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়ে বলেন, ‘আমাদের পর্যটন শিল্প ইতোমধ্যে মহমারির ধকল কাটিয়ে উঠেছে এবং যেসব বিদেশি পর্যটক ফিলিপাইনে আসতে চান, তাদের স্বাগত জানাতে আমরা প্রস্তুত।

তবে যেসব পর্যটক ফিলিপাইনে যেতে চান, তাদেরকে করোনা টিকার দুই ডোজ নেওয়ার পাশাপাশি অবশ্যই বিমানে ওঠার ৭২ ঘণ্টা আগে করোনা টেস্ট করানো এবং সেই রিপোর্ট সঙ্গে রাখা বাধ্যতামূলক বলে শুক্রবারের সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন কার্লো নগ্রালেস।

ফিলিপাইনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আন্ডারসেক্রেটারি রোসারিও ভার্গেইরি বার্তাসংস্থা এএফপিকে জানান, গত বছর ডিসেম্বরেই বিদেশী পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল সরকারের, কিন্তু করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরন ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাবের কারণে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

‘কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি, দৈনিক সংক্রমণের বৃদ্ধিও ঠেকানো যায়নি। এদিকে, গত দুই বছর সীমান্ত বন্ধ থাকায় আমাদের পর্যটন শিল্প ‍রীতিমত ধুঁকছে।

এ কারণে, সবদিক বিবেচনা করেই সরকার (বিদেশি পর্যটকদের জন্য) সীমান্ত খুলে দিচ্ছে’- এএফপিকে বলেন রোসারিও ভার্গেইরি।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, মহামারির গত দুই বছরে ফিলিপাইনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩৫ লাখ ১১ হাজার ৪১৯ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে মোট ৫৩ হাজার ৮০১ জনের।

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

‘পাঠান’ দিয়ে ৩২ বছর পর কাশ্মীরের সিনেমা হল হাউসফুল

পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুলছে ফিলিপাইন

প্রকাশের সময় : ০৮:০৫:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে প্রায় দুই বছর বন্ধ রাখার পর অবশেষে বিদেশি পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিলিপাইনের সরকার। আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে টিকার দুই ডোজ সম্পূর্ণ করা বিদেশি পর্যটকরা দেশটিতে যেতে পারবেন।

দেশটির রাষ্ট্রপতির দফতরের মুখপাত্র কার্লো নগ্রালেস শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়ে বলেন, ‘আমাদের পর্যটন শিল্প ইতোমধ্যে মহমারির ধকল কাটিয়ে উঠেছে এবং যেসব বিদেশি পর্যটক ফিলিপাইনে আসতে চান, তাদের স্বাগত জানাতে আমরা প্রস্তুত।

তবে যেসব পর্যটক ফিলিপাইনে যেতে চান, তাদেরকে করোনা টিকার দুই ডোজ নেওয়ার পাশাপাশি অবশ্যই বিমানে ওঠার ৭২ ঘণ্টা আগে করোনা টেস্ট করানো এবং সেই রিপোর্ট সঙ্গে রাখা বাধ্যতামূলক বলে শুক্রবারের সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন কার্লো নগ্রালেস।

ফিলিপাইনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আন্ডারসেক্রেটারি রোসারিও ভার্গেইরি বার্তাসংস্থা এএফপিকে জানান, গত বছর ডিসেম্বরেই বিদেশী পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল সরকারের, কিন্তু করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরন ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাবের কারণে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

‘কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি, দৈনিক সংক্রমণের বৃদ্ধিও ঠেকানো যায়নি। এদিকে, গত দুই বছর সীমান্ত বন্ধ থাকায় আমাদের পর্যটন শিল্প ‍রীতিমত ধুঁকছে।

এ কারণে, সবদিক বিবেচনা করেই সরকার (বিদেশি পর্যটকদের জন্য) সীমান্ত খুলে দিচ্ছে’- এএফপিকে বলেন রোসারিও ভার্গেইরি।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, মহামারির গত দুই বছরে ফিলিপাইনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩৫ লাখ ১১ হাজার ৪১৯ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে মোট ৫৩ হাজার ৮০১ জনের।