শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিদ্যার দেবী স্বরস্বতী প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত দুর্গাপুরের প্রতিমা শিল্পীরা

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার দেবী স্বরস্বতী পূজা উপলেক্ষে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা।
শাস্ত্রমতে, প্রতি বছর মাঘ মাসের শুক্লপক্ষের পঞ্চমী তিথিতে শ্বেতশুভ্র কল্যাণময়ী স্বরস্বতী দেবীর বন্দনা করা হয়।
আগামী শনিবার (৫ফেব্রুয়ারি ) অনুষ্ঠিত হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম এ পূজা।
এ উৎসবকে সামনে রেখে নেত্রকোনার দুর্গাপুরের পূজা মণ্ডপগুলোতে প্রতিমা গড়ে তুলতে দিন-রাত কাজ করছেন শিল্পীরা। পূজা ঘনিয়ে আসায় উপজেলার কারিগরদের যেন দম ফেলার ফুরসত নেই। আপন মনের মাধুরী মিশিয়ে শিল্পীরা তৈরি করছেন স্বরস্বতী প্রতিমা।
রোববার( ৩০জানুয়ারী) দুর্গাপুর পৌর শহরের দশভূজা বাড়ী মন্দির ঘুরে দেখা যায়,ছোট-বড় বিভিন্ন আকৃতির প্রতিমা তৈরির কাজ চলছে। ইতি মধ্যে কারিগররা প্রতিমার মাটির কাজ শেষ করে শুরু করেছে রং ও সাজ সজ্জার কাজ।
দশভূজা বাড়ী মন্দিরের প্রতিমা শিল্পী নিরঞ্জন পাল (৫০) বলেন, আর কিছুদিন পর স্বরস্বতী পূজা। এ পূজাকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছি। মাটির কাজ শেষে বর্তমানে প্রতিমায় রংয়ের কাজ করছি।
প্রতিমা শিল্পী নারায়ণ পাল (৪৫) বলেন, দশভূজা বাড়ি মন্দির প্রাঙ্গণে উপজেলা বিভিন্ন মন্দির, ক্লাব, ও বাসা বাড়ির জন্য প্রায় ২০০ প্রতিমা তৈরি করছি। প্রতিমা তৈরিতে খরচটা একটু বেশি পরছে,তাই বিক্রীও একটু চড়া দামে করতে হবে। সর্বনিন্ম ৫শত টাকা থেকে দশ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্যের প্রতিমা রয়েছে আমাদের কাছে। আশা করছি প্রায় সব প্রতিমা-ই বিক্রী হয়ে যাবে।
স্বরস্বতী পূজাকে ঘিরে এখন উপজেলার হিন্দু পাড়া মহল্লা গুলোতে আগাম উৎসবের আমেজ বয়ে চলছে। সনাতন ধর্মীয় বিশ্বাস অনুযায়ী, জ্ঞান ও বিদ্যার অধিষ্ঠাত্রী দেবী তার আশীর্বাদের মাধ্যমে মানুষের চেতনাকে উদ্দীপ্ত করতে প্রতি বছর আবির্ভূত হন ভক্তদের মাঝে। শিক্ষার্থীরাই এ পূজায় মনোযোগী হয়। বিভিন্নশিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ঘরে ঘরে এবং মন্দিরে স্বরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে।সব মিলিয়ে সুষ্ঠু এবং সুন্দর ভাবে সম্পন্ন হবে পূজার সকল প্রস্তুতি এমনটাই প্রত্যাশা সকলের।
দুর্গাপুর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট মানেশ চন্দ্র সাহা বলেন, আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি স্বরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলার সবকটি মন্দিরে সরকারী সকল নি‌র্দেশনা ও স্বাস্থ‌্যবি‌ধি মে‌নে স্বরস্বতী পূজার আয়োজন করা হবে।

বিদ্যার দেবী স্বরস্বতী প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত দুর্গাপুরের প্রতিমা শিল্পীরা

প্রকাশের সময় : ০৯:২৭:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২২
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার দেবী স্বরস্বতী পূজা উপলেক্ষে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা।
শাস্ত্রমতে, প্রতি বছর মাঘ মাসের শুক্লপক্ষের পঞ্চমী তিথিতে শ্বেতশুভ্র কল্যাণময়ী স্বরস্বতী দেবীর বন্দনা করা হয়।
আগামী শনিবার (৫ফেব্রুয়ারি ) অনুষ্ঠিত হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম এ পূজা।
এ উৎসবকে সামনে রেখে নেত্রকোনার দুর্গাপুরের পূজা মণ্ডপগুলোতে প্রতিমা গড়ে তুলতে দিন-রাত কাজ করছেন শিল্পীরা। পূজা ঘনিয়ে আসায় উপজেলার কারিগরদের যেন দম ফেলার ফুরসত নেই। আপন মনের মাধুরী মিশিয়ে শিল্পীরা তৈরি করছেন স্বরস্বতী প্রতিমা।
রোববার( ৩০জানুয়ারী) দুর্গাপুর পৌর শহরের দশভূজা বাড়ী মন্দির ঘুরে দেখা যায়,ছোট-বড় বিভিন্ন আকৃতির প্রতিমা তৈরির কাজ চলছে। ইতি মধ্যে কারিগররা প্রতিমার মাটির কাজ শেষ করে শুরু করেছে রং ও সাজ সজ্জার কাজ।
দশভূজা বাড়ী মন্দিরের প্রতিমা শিল্পী নিরঞ্জন পাল (৫০) বলেন, আর কিছুদিন পর স্বরস্বতী পূজা। এ পূজাকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছি। মাটির কাজ শেষে বর্তমানে প্রতিমায় রংয়ের কাজ করছি।
প্রতিমা শিল্পী নারায়ণ পাল (৪৫) বলেন, দশভূজা বাড়ি মন্দির প্রাঙ্গণে উপজেলা বিভিন্ন মন্দির, ক্লাব, ও বাসা বাড়ির জন্য প্রায় ২০০ প্রতিমা তৈরি করছি। প্রতিমা তৈরিতে খরচটা একটু বেশি পরছে,তাই বিক্রীও একটু চড়া দামে করতে হবে। সর্বনিন্ম ৫শত টাকা থেকে দশ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্যের প্রতিমা রয়েছে আমাদের কাছে। আশা করছি প্রায় সব প্রতিমা-ই বিক্রী হয়ে যাবে।
স্বরস্বতী পূজাকে ঘিরে এখন উপজেলার হিন্দু পাড়া মহল্লা গুলোতে আগাম উৎসবের আমেজ বয়ে চলছে। সনাতন ধর্মীয় বিশ্বাস অনুযায়ী, জ্ঞান ও বিদ্যার অধিষ্ঠাত্রী দেবী তার আশীর্বাদের মাধ্যমে মানুষের চেতনাকে উদ্দীপ্ত করতে প্রতি বছর আবির্ভূত হন ভক্তদের মাঝে। শিক্ষার্থীরাই এ পূজায় মনোযোগী হয়। বিভিন্নশিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ঘরে ঘরে এবং মন্দিরে স্বরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে।সব মিলিয়ে সুষ্ঠু এবং সুন্দর ভাবে সম্পন্ন হবে পূজার সকল প্রস্তুতি এমনটাই প্রত্যাশা সকলের।
দুর্গাপুর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট মানেশ চন্দ্র সাহা বলেন, আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি স্বরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলার সবকটি মন্দিরে সরকারী সকল নি‌র্দেশনা ও স্বাস্থ‌্যবি‌ধি মে‌নে স্বরস্বতী পূজার আয়োজন করা হবে।