শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাত্র ৪২০ টাকার জন্য বন্ধুকে খুন

সংগৃহীত ছবি

এক বন্ধু তার অপর বন্ধুকে মাত্র ৪২০ টাকার জন্য খুন করেছেন। আজ রোববার বিকেলে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ডে এই ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক পৌর শহরের বড়পাড়া এলাকার কাউসার আহমেদের ছেলে।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযুক্ত রেজুয়ান মিয়া (২৫) ও তার ভাই রোহান মিয়াকে (২৩) আটক করেছে পুলিশ। আটক রেজুয়ান ও রোহান জেলার শান্তিগঞ্জ উপজেলার উজানীগাঁও গ্রামের নুরুল হোসাইনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- নিহত নয়ন ও রেজুয়ান ঘনিষ্ট বন্ধু ছিলেন। রেজুয়ান এক সপ্তাহের জন্য বন্ধু নয়নের কাছ থেকে ৪২০ টাকা ধার নেন। কিন্তু নয়ন রেজুয়ানের কাছে টাকা চাইলে তিনি টাকা দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। এ নিয়ে তর্কতর্কির এক পর্যায়ে রেজুয়ান নয়নকে ছুরিকাঘাত করেন।

গুরুতর আহত নয়নকে প্রথমে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এবং পরে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলেও কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে এ ঘটনায় রেজুয়ান ও তার ভাই রোহানকে আটক করে পুলিশ।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, তদন্ত শেষে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

মাত্র ৪২০ টাকার জন্য বন্ধুকে খুন

প্রকাশের সময় : ১১:০৯:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২২

এক বন্ধু তার অপর বন্ধুকে মাত্র ৪২০ টাকার জন্য খুন করেছেন। আজ রোববার বিকেলে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ডে এই ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক পৌর শহরের বড়পাড়া এলাকার কাউসার আহমেদের ছেলে।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযুক্ত রেজুয়ান মিয়া (২৫) ও তার ভাই রোহান মিয়াকে (২৩) আটক করেছে পুলিশ। আটক রেজুয়ান ও রোহান জেলার শান্তিগঞ্জ উপজেলার উজানীগাঁও গ্রামের নুরুল হোসাইনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- নিহত নয়ন ও রেজুয়ান ঘনিষ্ট বন্ধু ছিলেন। রেজুয়ান এক সপ্তাহের জন্য বন্ধু নয়নের কাছ থেকে ৪২০ টাকা ধার নেন। কিন্তু নয়ন রেজুয়ানের কাছে টাকা চাইলে তিনি টাকা দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। এ নিয়ে তর্কতর্কির এক পর্যায়ে রেজুয়ান নয়নকে ছুরিকাঘাত করেন।

গুরুতর আহত নয়নকে প্রথমে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এবং পরে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলেও কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে এ ঘটনায় রেজুয়ান ও তার ভাই রোহানকে আটক করে পুলিশ।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, তদন্ত শেষে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।