Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১সোমবার , ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন

সার্চ ক‌মি‌টিতে নাম দেবে না বিএনপি: ফখরুল

ডেস্ক রিপোর্ট
ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২২ ৩:৩৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নির্বাচন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটিতে বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো নাম দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর বিআরবি হাসপাতলে সন্ত্রাসী হামলায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন বিএনপির নেতা আবদুল আজিজকে দেখতে গিয়ে একথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, সার্চ কমিটিতে নাম প্রস্তাব করা আমাদের কাছে মূল্যহীন, অর্থহীন। আমরা গতবার ও তার আগেরবার অভিজ্ঞতা থেকে দেখেছি সরকার নিজেদের পছন্দের লোকদের দ্বারা নির্বাচন কমিশন গঠন করেছে। কাজেই এ ব্যাপারে আমাদের কোনো আগ্রহ নেই। আমরা চাই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন।

নির্বাচন কমিশন গঠনে গঠিত সার্চ কমিটিকে কিভাবে মূল্যায়ন করছেন জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা মনে করি আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য যা যা করার তাই করছে। নির্বাচন কমিশন গঠন আইন তৈরি করেছে, সার্চ কমিটি গঠন করেছে, গতবার ও তার আগেরবার যেভাবে করেছে সেইভাবে জাস্ট একটা খোলস লাগিয়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে তারা আইন তৈরি করেছে। তারা সার্চ কমিটি গঠন করেছে যেন ‘ওল্ড ওয়াইন নিট বোতল’।

তিনি বলেন, সরকার (তারা) বলবে আমরা আইন তৈরি করেছি, আমরা সবার মতামত নিয়ে করেছি। তারপর দেখা যাবে নিজেদের মত লোকদের নিয়ে করাবে। ইতোমধ্যে আপনারা নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন, গঠিত সার্চ কমিটির বেশিরভাগ সদস্যই আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পৃক্ত। একজন আছেন যিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। এই ধরনের সার্চ কমিটি তারা তৈরি করবে বলেই আমরা রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাইনি, যাওয়ার প্রয়োজন মনে করিনি। আমরা আগেও বলেছি এখনও বলছি নির্বাচন কমিশন যদি আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে হয় সেটা গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন হবে না। তাদের গ্রহণযোগ্যতা থাকবে না, তারা নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পারবে না। কারণ দলীয় সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না, হতে পারেনা। নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে এটা বিশ্ব স্বীকৃত। ইতোমধ্যে মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। আর নিষেধাজ্ঞা তখনই আসে যখন একটি দেশে গণতন্ত্র থাকে না, মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘন হয়, কেউ জোর করে রাষ্ট্র ক্ষমতা ধরে রাখতে চায় তখন।

বাংলাদেশের মতো মিয়ানমার সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশের সরকারের যে চরিত্র, মিয়ানমার সরকারের চরিত্র একই। মিয়ানমার সরকার সামরিক জান্তার মাধ্যমে মানুষকে হত্যা করছে আর এদেশের সরকার জনগণকে বন্দুকের নল দিয়ে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে।

সরকারের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গুম হওয়া বিভিন্ন জন ভূমধ্যসাগরে ভূপাতিত হয়েছেন বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যকে হাস্যকর এবং দুঃখজনক আখ্যায়িত করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, যারা পরিবার-পরিজন হারিয়েছেন তাদের অভিযোগ হচ্ছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাদের তুলে নিয়ে গেছেন। এ ব্যাপারে সরকারের কাছ থেকে জবাবদিহিতা পায়নি। সেক্ষেত্রে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমি বলতে চাই ভূমধ্যসাগরে কাদের লাশ ভূপাতিত হয়েছে তা দেশবাসী ও গুম পরিবারের সদস্যরা জানতে চায়। সরকারের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিশ্চয়ই এসবের সঙ্গে জড়িত, নতুবা আপনারা কিভাবে বলতে পারছেন যে ভূমধ্যসাগরে তাদের লাশ ভূপাতিত হয়েছে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।