রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পেকুয়ায় দিনব্যাপী প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত 

কক্সবাজারের পেকুয়ায়  দিনব্যাপী প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় “পুষ্টি মেধা,দারিদ্র্য বিমোচন,প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনীর আয়োজন ” এ প্রতিপাদ্য বিষয় কে সামনে নিয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর কার্যালয় চত্বরে প্রদর্শনী মেলার শুভ উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম।
পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আসিফ আল জিনাত এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার -১(চকরিয়া -পেকুয়া)  আসনের সাংসদ আলহাজ্ব জাফর আলম।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ  মোঃ আসাদুজ্জামান।
এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম মিনু,  ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আর. এম. ও ডাঃ মজিবুর রহমান,  উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল আনোয়ার,  উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তপন কুমার দে।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন  প্রাণী সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা (এল ডি ডি পি প্রকল্প)
ডাঃ মোঃ সাইফুল্লাহ, উপসহকারী প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা (সম্প্রসারণ) মোহাম্মদ হাবিবুল হোসাইন চৌধুরী,  উপসহকারী প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা (প্রাণী স্বাস্থ্য)  কাজী আকতার হোসেন, উপসহকারী প্রাণী সম্পদ(কৃত্রিম প্রজনন)মোহাম্মদ আশিকুর রহমান, ফিল্ড সহকারী মোহাম্মদ আলমগীর,  এল ডিডিপি প্রকল্প এল এফ এ ইব্রাহীম, অফিস সহায়ক মোহাম্মদ ইউনুস সহ সাংবাদিকবৃন্দ, ভেটেরিনারিগণ ও স্থানীয় খামারীরা প্রমুখ।
 জেলাব্যাপী প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী মেলার পরিদর্শনের ন্যায় পেকুয়ায়ও মেলার প্রদর্শনী পরির্দশন করেন জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ জর্তিময় ভৌমিক।
এবার প্রদর্শনী মেলায় বিভিন্ন রকম পশু পাখি ও গবাদিপশু এবং নানা ধরনের হাস, মুরগী, ছাগল নিয়ে খামারীরা ১৩ টি স্টলে বসে প্রদর্শনী দেখান।  এ মেলায় ৩ কাটাগরিতে ৯ জন খামারী ও সামগ্রিক ভাবে ১ জন নূর এগ্রোর মালিককে পুরস্কৃত করা হয়।
সভায় অতিথিরা বলেন বর্তমানে প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তরের মাধ্যমে পেকুয়ায় অনেক পশুপাখির খামার গড়ে উঠেছে। প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার সু-পরামর্শে অনেক খামারী সফল হয়েছেন। তারই প্রমাণ ডাঃ মজিবুর রহমানের নুর এগ্রো।  অতিথিরা আরো বলেন,বর্তমানে অনেক ডিজিটাল মেশিনের মাধ্যমে প্রাণী পরিচর্যা করা হচ্ছে।
বার্তা/এন

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

গ্রন্থাগার দিবসের প্রতিপাদ্য ‘স্মার্ট গ্রন্থাগার, স্মার্ট বাংলাদেশ : মতিয়া চৌধুরী

পেকুয়ায় দিনব্যাপী প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত 

প্রকাশের সময় : ১১:৪০:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২২
কক্সবাজারের পেকুয়ায়  দিনব্যাপী প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় “পুষ্টি মেধা,দারিদ্র্য বিমোচন,প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনীর আয়োজন ” এ প্রতিপাদ্য বিষয় কে সামনে নিয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর কার্যালয় চত্বরে প্রদর্শনী মেলার শুভ উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম।
পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আসিফ আল জিনাত এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার -১(চকরিয়া -পেকুয়া)  আসনের সাংসদ আলহাজ্ব জাফর আলম।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ  মোঃ আসাদুজ্জামান।
এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম মিনু,  ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আর. এম. ও ডাঃ মজিবুর রহমান,  উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল আনোয়ার,  উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তপন কুমার দে।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন  প্রাণী সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা (এল ডি ডি পি প্রকল্প)
ডাঃ মোঃ সাইফুল্লাহ, উপসহকারী প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা (সম্প্রসারণ) মোহাম্মদ হাবিবুল হোসাইন চৌধুরী,  উপসহকারী প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা (প্রাণী স্বাস্থ্য)  কাজী আকতার হোসেন, উপসহকারী প্রাণী সম্পদ(কৃত্রিম প্রজনন)মোহাম্মদ আশিকুর রহমান, ফিল্ড সহকারী মোহাম্মদ আলমগীর,  এল ডিডিপি প্রকল্প এল এফ এ ইব্রাহীম, অফিস সহায়ক মোহাম্মদ ইউনুস সহ সাংবাদিকবৃন্দ, ভেটেরিনারিগণ ও স্থানীয় খামারীরা প্রমুখ।
 জেলাব্যাপী প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী মেলার পরিদর্শনের ন্যায় পেকুয়ায়ও মেলার প্রদর্শনী পরির্দশন করেন জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ জর্তিময় ভৌমিক।
এবার প্রদর্শনী মেলায় বিভিন্ন রকম পশু পাখি ও গবাদিপশু এবং নানা ধরনের হাস, মুরগী, ছাগল নিয়ে খামারীরা ১৩ টি স্টলে বসে প্রদর্শনী দেখান।  এ মেলায় ৩ কাটাগরিতে ৯ জন খামারী ও সামগ্রিক ভাবে ১ জন নূর এগ্রোর মালিককে পুরস্কৃত করা হয়।
সভায় অতিথিরা বলেন বর্তমানে প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তরের মাধ্যমে পেকুয়ায় অনেক পশুপাখির খামার গড়ে উঠেছে। প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার সু-পরামর্শে অনেক খামারী সফল হয়েছেন। তারই প্রমাণ ডাঃ মজিবুর রহমানের নুর এগ্রো।  অতিথিরা আরো বলেন,বর্তমানে অনেক ডিজিটাল মেশিনের মাধ্যমে প্রাণী পরিচর্যা করা হচ্ছে।
বার্তা/এন