Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১বৃহস্পতিবার , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন

দুদকের ভাবমূর্তি রক্ষায় শরীফকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২ ৭:১৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে আলোচিত দুদক কর্মকর্তা শরীফকে ‘চাকরিচ্যুত করার বিকল্প ছিল না’ বলে দাবি করেছেন কমিশন সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

দুদক সচিবের ভাষ্য, দুদকের ভাবমূর্তি রক্ষায় উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিনকে অপসারণ করা হয়েছে। তিনি (শরীফ) দুদকের বিধিবিরোধী কাজ করেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকার সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন কমিশন সচিব। এর আগে শরীফকে বরখাস্তের প্রতিবাদে কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেন কমিশনের শতাধিক কর্মকর্তা।

দুদক সচিব বলেন, দুদক কর্মচারী চাকরি বিধিমালা ২০০৮ রয়েছে। সেখানে কর্মচারী, কর্মকর্তারা কি কাজ করবেন, কিভাবে করবেন সেটা বলা আছে। বুধবার উপ-সহকারী পরিচালক শরীফ উদ্দীনকে চাকরি বিধি মেনেই চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

এর ব্যাখ্যা দিয়ে দুদক সচিব বলেন, দুদক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যে বিধিবিধান মানা প্রয়োজন সেগুলো না মেনে অব্যাহতভাবে বিধি বহির্ভূত কাজ করেছেন ওই কর্মকর্তা। দুদক ভাবমূর্তি রক্ষার স্বার্থে এবং সকলে যাতে সঠিকভাবে কাজটি করেন সেই লক্ষ্যে তাকে চাকরি থেকে অপসারণ করেছে।

কর্মকর্তা শরীফকে চাকরিচ্যুত করার বিষয়ে ব্যাখ্যায় মাহবুব হোসন বলেন, আইন ও চাকরি বিধি যেন সবাই মেনে চলি; সেটির আলোকেই ব্যবস্থাটা নেওয়া হয়েছে।

‘উনি (শরীফ) বিধি বিধানের বাইরে অনেক কাজ করেছেন। যেটা আমি পাবলিকলি বলতে চাই না। ফলশ্রুতিতে দুদক মনে করেছে ভাবমূর্তি রক্ষার্থে সকলের স্বার্থে এই জন্য ৫৪ এর ২ ধারায় এখানে প্রজোয্য হয়েছে। চরম পর্যায়ে চলে গেলে যে পদক্ষেপ নেওয়া হয় সেটির একটা অংশ এটি।

চাকরিচ্যুত শরীফ উদ্দিন।

চাকরিচ্যুত শরীফ উদ্দিন।

শরীফের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের কমিশন সচিব বলেন, তার বিরুদ্ধে অনেক কমপ্লেইন রয়েছে। তিনটি বিভাগীয় মামলা চালু আছে। উনি একটা বদলির বিষয়ে, তদন্তকালে অনুসন্ধানকালে যে টাকা উদ্ধার হয়েছিল সে বিষয়ে কাজ করছিলেন। মহামান্য হাইকোর্ট থেকেও এই বিষয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল। চাকরিবিধি পরিপন্থীর কারণে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

সহকর্মীকে অপসারেণর প্রতিবাদে শতাধিক কর্মকর্তার নিজিরবিহীন মানববন্ধনের বিষয়ে সচিব বলেন, মানবন্ধন কে করেছে এটি আমার সামনে ঘটেনি। উনারা কয়েকজন আমার কাছে এসেছেন। আদেশটি বিবেচনার কথা বলেছেন। তারা বলেছেন, কাজ কর্ম করতে উনারা লজ্জিত বোধ করছেন। আমি তাদের আস্বস্ত করেছি বিধি অনুযায়ী কাজ করেন, সততা রক্ষা করে কাজ করেন তাহলে ভয়ের কিছু নেই।’

শরিফ দুর্নীতি বিরোধী কার্যক্রম করায় কোনো চাপের বলি হলো কিনা প্রশ্নের জবাবে বলেন, এখানে কোন ঘটনাও ঘটেনি যে এই তদন্তের কারণে, বা একে লক্ষ্য করার কারণে কেউ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যা ঘটেছে তার সঙ্গে তদন্ত বা প্রসেস করা এর সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নাই।

চাকরি বিধিতে বলা হয়েছে কারণ দর্শানোর কথা, সেই সঙ্গে তাকে যেই আইনে অপসারণ করা হয়েছে সেই ৫৪(২) ধারাকে হাইকোর্ট অবৈধ বলেছেন।

এই বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মাহবুব হোসেন বলেন, ‘চাকরি বিধিতে বলা হয়েছে যখন কমিশন মনে করবে কর্মচারীর কারণে অব্যাহত ভাবে দুদকের কাজে ব্যাঘাত হবে এজন্য সিদ্ধান্ত তারা নিতে পারবে। এ জন্য কাউকে কোন কাউকে কারণ দর্শানোর কোনো অবকাশ নেই।’

বুধবার এক অফিস আদেশে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় পটুয়াখালীর উপ-সহকারী পরিচালক শরীফ উদ্দিনকে চাকরিচ্যুত করা হয়। দুদক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে তার চাকরিচ্যুতির বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া হয়েছে।

আদেশে বলা হয়, ‘দুর্নীতি দমন কমিশন (কর্মচারী) বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি ৫৪ (২) তে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে মো. শরীফ উদ্দীন, উপ-সহকারী পরিচালক, দুদক, সমন্বিত জেলা কার্যক্রম, পটুয়াখালীকে চাকরি থেকে অপসারণ করা হলো। তিনি বিধি মোতাবেক ৯০ দিনের বেতন এবং প্রযোজ্য সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।