Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১শুক্রবার , ১৩ মে ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন

মারা গেছেন আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ আল নাহিয়ান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মে ১৩, ২০২২ ৮:১১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রপতি শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান মারা গেছেন।

শুক্রবার (১৩ মে) তিনি মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর।

আমিরাতের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ওয়ামের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস।

ওয়াম এক বিবৃতিতে জানায়, রাষ্ট্রপতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় জায়েদ আল নাহিয়ানের মৃত্যুতে আমিরাতের জনগণ, আরব ও ইসলামি জাতি এবং বিশ্ববাসীকে সমবেদনা জানিয়েছে।

জায়েদ আল নাহিয়ান ২০০৪ সালের ৩ নভেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রপতি এবং আবুধাবির শাসক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন শেখ খলিফা। তিনি ছিলেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি এবং আবুধাবির ১৬তম শাসক। শেখ জায়েদের বড় ছেলে ছিলেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর, শেখ খলিফা সংযুক্ত আরব আমিরাতের নাগরিক এবং বাসিন্দাদের সমৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে সুষম ও টেকসই উন্নয়ন অর্জনের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের জন্য তার প্রথম কৌশলগত পরিকল্পনা চালু করেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার মূল উদ্দেশ্য ছিল তার পিতা শেখ জায়েদের নির্দেশিত পথে দেশ পরিচালনা করা।

শেখ খলিফা তেল ও গ্যাস খাত এবং নিম্নধারার শিল্পের উন্নয়ন পরিচালনা করেন যা দেশের অর্থনৈতিক বহুমুখীকরণে সফলভাবে অবদান রেখেছে।

তিনি উত্তর আমিরাতের চাহিদাগুলো অধ্যয়ন করার জন্য সমগ্র সংযুক্ত আরব আমিরাতে সফর করেন, এই সময়ে তিনি আবাসন, শিক্ষা এবং সামাজিক পরিষেবা সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি প্রকল্প নির্মাণের নির্দেশনা দিয়েছিলেন।

এ ছাড়াও তিনি ফেডারেল ন্যাশনাল কাউন্সিলের সদস্যদের জন্য মনোনয়ন পদ্ধতির বিকাশের একটি উদ্যোগ চালু করেছিলেন, যা সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরাসরি নির্বাচন প্রতিষ্ঠার দিকে প্রথম পদক্ষেপ হিসাবে দেখা হয়েছিল।

শেখ খলিফা একজন ভালো শ্রোতা, বিনয়ী এবং তার জনগণের বিষয়ে গভীরভাবে আগ্রহী বলে পরিচিত ছিলেন।

তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের একজন অত্যন্ত প্রিয় ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তিনি প্রায়ই অফিশিয়াল মিশন এবং অন্যান্য মাধ্যমে সরাসরি আউটরিচ পরিচালনা করেন।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।