Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১বৃহস্পতিবার , ২ জুন ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বন্ধন এক্সপ্রেস ৩৯ দিয়ে, নিয়ে গেল ৭১ যাত্রী

ইমরান হোসেন আশা, বেনাপোল
জুন ২, ২০২২ ১১:৫০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

করোনা কালীন সময়ে দুই বছর বন্ধ থাকার পর খুলনা-কলকাতা রুটে গত ২৯ মে আবার চালু হয়েছে ট্রেন ‘বন্ধন’ এক্সপ্রেস।

চালুর দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার ((০২ জুন ) সকালে কলকাতা থেকে ৩৯ জন যাত্রী নিয়ে বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশনে প্রবেশ করে। পরে দুপুরে খুলনা থেকে ৭১ যাত্রী নিয়ে বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশনের ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসের কার্যক্রম শেষ করে কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে ট্রেনটি। দীর্ঘদিন পর যাত্রীরা খুলনা-কলকাতা সরাসরি যাতায়াতের সুযোগ পেয়েছে ট্রেনটি।

বেনাপোল রেল স্টেশন ম্যানেজার শাইদুজজামান বলেন, আজ রোববার সকাল ৭ টা ৪৫ মিনিটে ভারতের চিৎপুর থেকে ৩৯ জন যাত্রী নিয়ে সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে বেনাপোল স্টেশনে পৌছে। পরে দুপুর ১২ টা ৫০ মিনিটের সময় খুলনা স্টেশনে পৌছায়।খুলনা থেকে ৭১ জন যাত্রী নিয়ে বেনাপোল থেকে কলকাতার উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে ‘বন্ধন এক্সপ্রেসটি’।

তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল ট্রেনটি। গতদিনের থেকে আজ যাত্রীর পরিমান দ্বিগুনের বেশি। পরবর্তীতে যাত্রী আরও বাড়বে। প্রতি বৃহস্পতিবার ও রোববার দুই দিন খুলনা-কলকাতা রুটে ট্রেনটি চলাচল করবে।

ট্রেনের ভাড়া ও ভ্রমণ কর বিষয়ে তিনি বলেন, সবমিলিয়ে ট্রেনের এসি চেয়ার টিকিটের মূল্য ১ হাজার ৫৩৫ টাকা এবং কেবিনের ভাড়া ২ হাজার ২৫৫ টাকা।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর কলকাতা-খুলনার মধ্যে ৪৫৬ আসনের ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ নামের আন্তর্জাতিক ট্রেনটি চলাচল শুরু হয়। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এ ট্রেনে কেবিনে সিট ভাড়া ভ্রমনকর সহ ২২৫৫ টাকা ও চেয়ার কোচ ভাড়া ভ্রমনকর সহ ১৫৩৫  টাকা। বেনাপোল স্থলবন্দরে যাত্রীর পাসপোর্ট, ভিসাসহ ইমিগ্রেশনের যাবতীয় কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়। এরপর যাত্রীরা সরাসরি খুলনা ও কলকাতার মধ্যে যাতায়াত করতে পারেন।ট্রেনটির ৪৫৬ আসনের মধ্যে ৩১২টি এসি চেয়ার ও ১৪৪টি প্রথম শ্রেণির আসন রয়েছে। কলকাতা–খুলনার মধ্যে দূরত্ব ১৭২ কিলোমিটার। এর মধ্যে বাংলাদেশে পড়েছে ৯৫ কিলোমিটার ও ভারতে পড়েছে ৭৭ কিলোমিটার।

‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ সকাল ৭টা ১০ মিনিটে কলকাতার চিৎপুর থেকে যাত্রী নিয়ে সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে বেনাপোল স্টেশনে পৌঁছাবে। পরে ইমিগ্রেশন কার্যক্রম শেষে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে পৌঁছাবে ১২টা ৩০ মিনিটে। খুলনা থেকে আবার যাত্রী নিয়ে দুপুর দেড় টায় রওনা দিয়ে বেনাপোল পৌঁছাবে বিকাল ৩টা ১৫ মিনিটে। পরে বেনাপোলে রেলওয়ে ইমিগ্রেশনে পাসপোর্টের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকাল ৪টা ১৫ মিনিটে রওনা দিয়ে কলকাতা পৌঁছাবে সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে।

খুলনা থেকে কলকাতায় যাওয়া যাত্রী আশিক বলেন, চিকিৎসার উদ্দেশ্যে কলকাতায় যাচ্ছি। আমিসহ ৩ জন কলকাতা যাচ্ছি । তিনি বলেন, এটা আনন্দদায়ক ভ্রমণ। চেয়ার সিটে ১ হাজার ৫৩৫ টাকা ভাড়া নিয়েছে।

অপর যাত্রী  নীলিমা রানি বলেন, যাত্রাটা খুবই আনন্দের। কলকাতা যাওয়ার জন্য ট্রেন যাত্রা খুবই আরামদায়ক।তবে ভাড়া অনেক বেশি। হাজারের মধ্যে থাকলে ভালো হতো।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে খুলনা-কলকাতা রুটে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ চালু হয়। করোনা কালীন ২০২০ সালের ১৫ মার্চ থেকে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে চলাচলকারী আন্তঃদেশী ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।