Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১শুক্রবার , ১৭ জুন ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন

স্বপ্নের পদ্মাসেতু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খুলনা  বিভাগের ১০ লাখ মানুষ অংশ নেবে- এমপি শেখ

Link Copied!

বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি বলেছেন, দেশী-বিদেশী সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিয়ে স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণ করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য এখন দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলায় উৎসব মূখর পরিবেশ বিরাজ করছে। এই উদ্বোধনের স্বাক্ষী হতে বাগেরহাট সহ খুলনা বিভাগ থেকে ১০ লাখ মানুষ পদ্মাপাড়ে কাঁঠালবাড়ির সমাবেশে যোগ দেবে। এজন্য খুলনা বিভাগের সকল জেলা উপজেলা ও মহানগরে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকরা অংশ নেবেন। বাগেরহাটের জনগন সকল জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে সুশৃংখল ও স্বতঃস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করবেন।
স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশাল জনসভা সফল করার লক্ষ্যে ১৭ জুন শুক্রবার বিকেলে বাগেরহাট সার্কিট হাউজে জেলা আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্ত্যবে এমপি শেখ হেলাল উদ্দিন আরো বলেন, পদ্মা সেতুর উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে পরিবহন স্বল্পতার কারনে আমরা মাত্র ৫ থেকে ১০ শতাংশ মানুষকে অনুষ্ঠানে হাজির করতে পারবো। যারা অনুষ্ঠানে যেতে পারবেন না তারা নিজ নিজ এলাকায় জেলা, উপজেলা প্রশাসন ও দলীয় আয়োজনে প্লাকার্ড, ফেস্টুন নিয়ে মিছিল করবে ও মিষ্টি বিতরণ করবে। বড় পর্দায় পদ্মা সেতুর উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান সহ প্রধানমন্ত্রীর পদ্মাপাড়ের মহাসমাবেশের বক্তব্য শুনবেন। এমপি হেলাল আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারকে নিয়ে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র ও প্রতিকুলতা মোকাবিলা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন করে প্রমান করেছেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর মেয়ে। বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখতেন, এক সময়ে প্রমত্তা পদ্মায় সেতু হবে। পদ্মা সেতু নির্মাণ করে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেছেন। পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ সারা দেশের সাথে এক সুতোয় মিলিত হয়েছে। এখন এই অঞ্চলের মানুষকে আর পদ্মা পাড়ে দিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় নষ্ট ও বিড়ম্বনায় পড়তে হবে না।  সেতু উদ্বোধনে পদ্মা পাড়ের আনন্দ আমেজ সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের নিদের্শনা দেন।
বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ভুঁইয়া হেমায়েত উদ্দীনের সভাপতিত্বে এই মত বিনিময় সভায় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। এস এম কামাল হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের মধ্য দিয়ে ¯^^াধীনতাবিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উন্মোচিত হয়েছে। পদ্মা সেতু চালুর মধ্য দিয়ে পিছিয়ে পড়া দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ অর্থনৈতিক ভাবে সব থেকে বেশী সুবিধা লাভ করবে। পদ্মা সেতু উদ্ধোধনের পাশাপাশি মোংলা বন্দরের উন্নয়ন, খুলনা-মোংলা রেলপথ, রামপাল তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মানের পাশাপাশি এই অঞ্চলের সড়ক ও রেলপথ যোগাযোগ অবকাঠামো উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশব্যাপী আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাধাগ্রস্থ করতে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীরা এখনো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। জনগণকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগ সরকার তাদের এই ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করছে। ইনশাআল্লাহ জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম কেউ ঠেকাতে পারবে না।
কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. আমিরুল আলম মিলন সহ বাগেরহাটের বিভিন্ন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র ও জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ ও তার অংঙ্গ সংগঠনের নেতারা এই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।