Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১রবিবার , ১৯ জুন ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রেম করতে গিয়ে সঙ্গীর পেট বার বার মোচড় দিচ্ছিল

স্পোর্টস ডেস্ক
জুন ১৯, ২০২২ ৪:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

টেনিস দুনিয়ায় লাস্যময়ী হিসেবেই পরিচিত ইউজিনি বুশার্ড। কানাডার এই খেলোয়াড় কাঁধে চোট পেয়ে প্রায় এক বছরের বেশি সময় কোর্টের বাইরে। এই সুযোগে ডেটিংয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেখানেও এক রাশ বিরক্তিই সার হল তার। কারণ, যার সঙ্গে ডেটিংয়ে গিয়েছিলেন তিনি অদ্ভুত কাণ্ড ঘটালেন।

ডান কাঁধের অস্ত্রোপচারের পর এখনও টেনিস কোর্টে ফেরেননি বুশার্ড। সুস্থ হওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। ফলে হাতে তার অখণ্ড অবসর। সেই সুযোগেই ডেটিংয়ে গিয়েছিলেন ২০১৪ সালের উইম্বলডন রানার্স।

কী হয়েছিল। সঙ্গী পছন্দ হয়নি তার? বিষয়টা তেমন নয়। পছন্দ হয়েছিল বলেই সেই পুরুষের সঙ্গে সমুদ্রসৈকতে সময় কাটাতে গিয়েছিলেন বুশার্ড। শুরুটাও খারাপ হয়নি। কিন্তু কিছু ক্ষণ পর থেকে প্রায় একাই সৈকতে বসে থাকতে হয় বিকিনি পরিহিতা বুশার্ডকে। কারণ, তার সঙ্গী প্রতি ১৫-২০ মিনিট অন্তর ছুটছিলেন প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে। খাদ্যে বিষক্রিয়ার জন্য সঙ্গীর পেট বার বার মোচড় দিচ্ছিল। আর তিনি ছুটছিলেন শৌচাগারে।

বুশার্ড বলেছেন, ‘এভাবেই বেশ কিছু ক্ষণ কাটার পর অত্যন্ত বিরক্ত লাগছিল। ভেবেছিলাম সমুদ্রের ধারে একটু শান্তিতে প্রেম করব। দূর! সারাক্ষণ একাই বসে থাকতে হল। শেষে বিরক্ত হয়ে ছেলেটাকে ওখানেই টাটা করে বাড়ি চলে যাই।

বুশার্ড এখন অনেকটাই সুস্থ। দীর্ঘ দিন না খেলায় ডব্লুটিএ ক্রমতালিকার বাইরে চলে গিয়েছেন বিশ্বের প্রাক্তন পাঁচ নম্বর। এ বারের উইম্বলডনেও খেলবেন না। শনিবার নাম প্রত্যাহার করে বুশার্ড জানিয়েছেন, ‘উইম্বলডন থেকে নাম তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। ডব্লুটিএ এ বারের প্রতিযোগিতায় পয়েন্ট রাখছে না। কাঁধের অস্ত্রোপচারের জন্য আমার খুব কম সংরক্ষিত পয়েন্ট রয়েছে। উইম্বলডন খেলতে আমার খুবই ভাল লাগে। তাও নাম তুলে নিতে হওয়ায় খারাপ লাগছে। এত কম সংরক্ষিত পয়েন্ট নিয়ে খেলতে নামা ঝুঁকির হতে পারে।’

দীর্ঘ সময় কোর্টের বাইরে থাকলেও টেনিসপ্রেমীদের সমর্থন পাচ্ছেন তিনি। এ জন্য অনুরাগীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন বুশার্ড। ইউএস ওপেনে খেলতে পারেন তিনি।

তার কোর্টে ফেরার সম্ভাবনা তৈরি হতেই অবশ্য উৎসাহী হয়ে ওঠেন স্পনসররা। একটা সময় লাস্যময়ী বুশার্ডের চাহিদা তুঙ্গে ছিল বিজ্ঞাপনের দুনিয়ায়। কোর্টের সাফল্য তার চাহিদা করেছিল গগনচুম্বী। বিশ্বের একাধিক বড় বহুজাতিক সংস্থা ছিল বুশার্ডের স্পনসর। বিজ্ঞাপনের বাজারে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, নেমারদের সঙ্গে সমানে সমানে পাল্লা দিতেন।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
%d bloggers like this: