Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১বৃহস্পতিবার , ২১ জুলাই ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন

ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ চালু করলো রাশিয়া

বার্তাকন্ঠ
জুলাই ২১, ২০২২ ২:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

১০ দিন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখার পর নর্ড স্ট্রিম ১ নামের বৃহত্তম পাইপলাইনের মাধ্যমে ইউরোপে পুনরায় গ্যাস সরবরাহ চালু করেছে রাশিয়া। দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

রাশিয়া বলছে, রক্ষণাবেক্ষণের কাজের জন্য এতোদিন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ ছিল।

একদিন আগেই রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সতর্ক করে জানান যে, ইউরোপে গ্যাসের সরবরাহ কম থাকবে। তা নিয়ে ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে উদ্বেগ দেখা দেয়। ফলে ধারণা করা হচ্ছিল যে, গ্যাস সরবরাহ হয়তো আগের মতো হবে না।

ফলে আগামী সাত মাস গ্যাস সরবরাহ ১৫ শতাংশ কমানোর আহ্বান জানায় ইউরোপীয় কমিশন। চলতি বছরের ১ আগস্ট থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত গ্যাসের ব্যবহার কমানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়। রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই এই প্রস্তাব দিয়েছে ইউরোপীয় কমিশন।

বাল্টিক সাগরের নিচ থেকে জার্মানি পর্যন্ত রয়েছে নর্ড স্ট্রিম ১ পাইপলাইন। গত ১১ জুলাই থেকে এই পাইপলাইন দিয়ে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখা হয়।

এদিকে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া। যুদ্ধ-সংঘাতের ক্রমবর্ধমান এই উত্তেজনার মধ্যে, জার্মান কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছিলেন রাশিয়া হয়তো এই পাইপলাইন দিয়ে আর গ্যাস সরবরাহ নাও করতে পারে। রাশিয়া থেকে জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহের প্রধান উৎস এটি।

অপরদিকে, গত বছর ইউরোপের দেশগুলোতে ৪০ শতাংশ প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ করেছে রাশিয়া। ২০২০ সালে রাশিয়া থেকে সবচেয়ে বেশি গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে জার্মানিতে। কিন্তু ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে দেশটি রাশিয়া থেকে গ্যাস সরবরাহ ৫৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩৫ শতাংশে এনেছে। তারা গ্যাসের জন্য রাশিয়ার ওপর থেকে পুরোপুরি নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনতে চায়।

তবে নতুন করে গ্যাস সরবরাহ চালু হলেও ওই পাইপলাইনের পূর্ণ সক্ষমতার চেয়ে কম গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে। বর্তমানে এ পাইপলাইন দিয়ে প্রায় ৪০ শতাংশ গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।