Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১সোমবার , ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী সুবাস, স্বতন্ত্র লিটু

নড়াইল প্রতিনিধি
সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২ ৪:৪৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) গণভবনে দলের মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভা শেষে জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলের মনোনীত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নড়াইলের ৩টি উপজেলা থেকে মোট ১১ জন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তাদের মধ্যে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস। অন্যদিকে, দলের মনোনয়ন না পেয়ে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়বেন লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু। নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি তিনি নিজেই নিশ্চিত করেছেন ।

উল্লেখ্য, আগামী ১৭ অক্টোবর দেশের ৬১টি জেলা পরিষদের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১৫ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই ১৮ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল দায়েরের সময় ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর। আপিল নিষ্পত্তি ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ২৬ সেপ্টেম্বর। এদিকে এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দ্বিধা বিভক্ত আওয়ামী লীগের গ্রæপিংয়ে নতুন মোড় নিতে পারে। নতুন করে এক গ্রæপ ছেড়ে অন্য গ্রæপে গিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালানো ও ভোট গোছানোর ঘটনা ঘটতে পারে। সেই সাথে দলীয় গ্রæপিং বৃদ্ধির কারণে অভ্যন্তরীণ কোন্দল প্রকট হওয়া এবং অনাকাংখিত পরিবশে সৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। ইতোমধ্যে দু’একজন নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে মুখ খুলতে শুরু করেছেন। আবার অনেকে প্রকাশ্যে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীর পক্ষে কথা বলছেন, আবার গোপনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সাথে যোগাযোগ রাখছেন। অপর একটি সূত্রে জানা গেছে, প্রার্থীদের এবার ভোটার প্রতি সর্বনি¤œ ১ লাখ টাকা ব্যয় হবে। অধিকাংশ ভোটার টাকার বিনিময়ে ভোট দিবেন বলে গুঞ্জণ উঠেছে। আবার অনেক ভোটার আছেন যারা একাধিক প্রার্থীর নিকট হতে টাকা নিয়ে একজনের সাথে প্রতারণা করে অপরজনকে ভোট দিবেন।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।