শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সিত্রাংয়ের আঘাতে শরণখোলায় ৭২৭টি বসতঘর বিধ্বস্ত

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের আঘাতে শরণখোলায় গাছ উপরে পড়ে সহস্রাধিক বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। ভেসে গেছে পুকুর ঘেরের মাছ। দুই দিন ধরে  বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

সোমবার (২৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং শরণখোলা উপজেলায় আঘাত হানে। প্রবল ঝড়বৃষ্টিতে উপজেলার ধানসাগর, খোন্তাকাটা, রায়েন্দা ও সাউথখালী ইউনিয়নে শত শত গাছ উপরে পড়ে। গাছচাপায় চারটি ইউনিয়নে সহস্রাধিক বসতঘর বিধস্ত হয়েছে কেউ হতাহত হওয়ার  খবর পাওয়া যায়নি। উপজেলায় ৬ শতাধিক পুকুর ও ঘেরের মাছ ভেসে গেছে। ঝড়ে  অনেক জায়গায় বিদ্যুৎ লাইনের খুটি পড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

বকুলতলা গ্রামের মতস্যচাষী ওহাব মীর জানান,অতিভারী বৃষ্টিতে তার ঘের ডুবে  তিন লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ভেসে গেছে।

শরণখোলা উপজেলা মতস্য অফিসার বিনয় কুমার রায় বলেন, প্রাথমিক হিসেবে উপজেলায় ৬শতাধিক পুকুর ও ঘেরের মাছ ভেসে গেছে। পূর্ণাঙ্গ ক্ষতির হিসেবের কাজ চলছে।

শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নুর-ই আলম সিদ্দিকী বলেন, ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ে উপজেলায় গাছপালা ও বসতবাড়ীর ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। সময়মত উপজেলার ৯১টি সাইক্লোন শেল্টারে মানুষজন আশ্রয় নেওয়ায় হতাহতের ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে ।  প্রাথমিক হিসেবে গাছচাপা পড়ে ৭২৭টি বসতঘর বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে এবং ক্ষয়ক্ষতির পুরো বিবরণ পেতে একটু সময় লাগবে বলে ইউএনও জানিয়েছেন।

বার্তাকণ্ঠ/এন

ব্রায়ান লারার অপরাজিত ৪০০ রানের রেকর্ড, দু’দশক আজ

সিত্রাংয়ের আঘাতে শরণখোলায় ৭২৭টি বসতঘর বিধ্বস্ত

প্রকাশের সময় : ০২:২৩:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০২২

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের আঘাতে শরণখোলায় গাছ উপরে পড়ে সহস্রাধিক বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। ভেসে গেছে পুকুর ঘেরের মাছ। দুই দিন ধরে  বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

সোমবার (২৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং শরণখোলা উপজেলায় আঘাত হানে। প্রবল ঝড়বৃষ্টিতে উপজেলার ধানসাগর, খোন্তাকাটা, রায়েন্দা ও সাউথখালী ইউনিয়নে শত শত গাছ উপরে পড়ে। গাছচাপায় চারটি ইউনিয়নে সহস্রাধিক বসতঘর বিধস্ত হয়েছে কেউ হতাহত হওয়ার  খবর পাওয়া যায়নি। উপজেলায় ৬ শতাধিক পুকুর ও ঘেরের মাছ ভেসে গেছে। ঝড়ে  অনেক জায়গায় বিদ্যুৎ লাইনের খুটি পড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

বকুলতলা গ্রামের মতস্যচাষী ওহাব মীর জানান,অতিভারী বৃষ্টিতে তার ঘের ডুবে  তিন লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ভেসে গেছে।

শরণখোলা উপজেলা মতস্য অফিসার বিনয় কুমার রায় বলেন, প্রাথমিক হিসেবে উপজেলায় ৬শতাধিক পুকুর ও ঘেরের মাছ ভেসে গেছে। পূর্ণাঙ্গ ক্ষতির হিসেবের কাজ চলছে।

শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নুর-ই আলম সিদ্দিকী বলেন, ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ে উপজেলায় গাছপালা ও বসতবাড়ীর ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। সময়মত উপজেলার ৯১টি সাইক্লোন শেল্টারে মানুষজন আশ্রয় নেওয়ায় হতাহতের ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে ।  প্রাথমিক হিসেবে গাছচাপা পড়ে ৭২৭টি বসতঘর বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে এবং ক্ষয়ক্ষতির পুরো বিবরণ পেতে একটু সময় লাগবে বলে ইউএনও জানিয়েছেন।

বার্তাকণ্ঠ/এন