শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বসতবাড়ি থেকে ১১ ফুট লম্বা অজগর উদ্ধার

মোংলায় বসতবাড়ি থেকে বিশাল একটি অজগর সাপ উদ্ধার করেছে বন বিভাগ।মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) সকালে মোড়লগঞ্জ উপজেলার আমুরবুনিয়া গ্রামের আলামিনের বাড়ি থেকে অজগর সাপটি উদ্ধার করা হয়। পরে সকাল ১০ টায় সংরক্ষিত বনাঞ্চলে অবমুক্ত  করা হয়।এর ওজন ২০ কেজি লম্বা ১১ ফুট।
পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের জিউধারা স্টেশন কর্মকর্তা মো.শাহজাহান জানান,সকালবেলা মোড়লগঞ্জ উপজেলার আমরবুনিয়া গ্রামের আলামিনের বসতবাড়িতে সাপটি দেখে লোকজনের চিৎকার শুনে আমুরবুনিয়া টহলফাড়ির ভারপ্রাপ্তা কর্মকর্তা অসিৎ বাবুসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে সাপটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করি।সাপটির ওজন ২০ কেজি ও লম্বায় ১১ ফুট। সাপটি ওই বাড়ির খোপে ঢুকে তিনটি মুরগি খেয়ে ফেলে। পরে সকাল ১০ টায় সুন্দরবনের আমুরবুনিয়া সংরক্ষিত বনাঞ্চলে সাপটিকে অবমুক্ত করি।খাবারের সন্ধানে লোকালয়ের বাড়িঘরে ঢুকে হাঁস-মুরগি ধরে খেয়ে থাকে অজগর সাপ।হাঁস-মুরগি খাওয়ার লোভ ও ডিম পাহাড়ার জন্য সাপগুলো লোকালয়ে চলে আসছে বলেও জানান তিনি।
তিনি আরও বলেন,গত দুদিন সুন্দরবন উপকূলে স্বাভাবিকের চেয়ে অধিক উচ্চতায় জলোচ্ছ্বাস ও বৃষ্টির পানির জলাবদ্ধতার কারণে উপকূলবর্তী অনেক বাড়িঘর সহ মাছেরঘের ও অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অধিক জলোচ্ছ্বাসে কোন বন্যপ্রাণী লোকালয়ে চলে এসেছে কিনা তা উদ্ধারে বন কর্মীদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।আমরা ভোর হতে উদ্ধার অভিযানে রয়েছি।
কোথাও বন্য প্রাণী আটকে পড়ার সংবাদ পাওয়া গেলে কোন ক্ষতি না করে অনুগ্রহপূর্বক নিকটস্থ বনকর্মীদের অবহিত করার জন্য অনুরোধ করেছেন তিনি।এই কর্মকর্তা বলেন,এ পর্যন্ত লোকালয় থেকে যত অজগর উদ্ধার হয়েছে,তার বেশির ভাগই উদ্ধার হয়েছে বাড়িঘরের হাঁস-মুরগির খোপ/ঘর ও তার আশপাশ থেকে।
বার্তাকণ্ঠ/এন

ব্রায়ান লারার অপরাজিত ৪০০ রানের রেকর্ড, দু’দশক আজ

বসতবাড়ি থেকে ১১ ফুট লম্বা অজগর উদ্ধার

প্রকাশের সময় : ০২:৩৪:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০২২
মোংলায় বসতবাড়ি থেকে বিশাল একটি অজগর সাপ উদ্ধার করেছে বন বিভাগ।মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) সকালে মোড়লগঞ্জ উপজেলার আমুরবুনিয়া গ্রামের আলামিনের বাড়ি থেকে অজগর সাপটি উদ্ধার করা হয়। পরে সকাল ১০ টায় সংরক্ষিত বনাঞ্চলে অবমুক্ত  করা হয়।এর ওজন ২০ কেজি লম্বা ১১ ফুট।
পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের জিউধারা স্টেশন কর্মকর্তা মো.শাহজাহান জানান,সকালবেলা মোড়লগঞ্জ উপজেলার আমরবুনিয়া গ্রামের আলামিনের বসতবাড়িতে সাপটি দেখে লোকজনের চিৎকার শুনে আমুরবুনিয়া টহলফাড়ির ভারপ্রাপ্তা কর্মকর্তা অসিৎ বাবুসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে সাপটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করি।সাপটির ওজন ২০ কেজি ও লম্বায় ১১ ফুট। সাপটি ওই বাড়ির খোপে ঢুকে তিনটি মুরগি খেয়ে ফেলে। পরে সকাল ১০ টায় সুন্দরবনের আমুরবুনিয়া সংরক্ষিত বনাঞ্চলে সাপটিকে অবমুক্ত করি।খাবারের সন্ধানে লোকালয়ের বাড়িঘরে ঢুকে হাঁস-মুরগি ধরে খেয়ে থাকে অজগর সাপ।হাঁস-মুরগি খাওয়ার লোভ ও ডিম পাহাড়ার জন্য সাপগুলো লোকালয়ে চলে আসছে বলেও জানান তিনি।
তিনি আরও বলেন,গত দুদিন সুন্দরবন উপকূলে স্বাভাবিকের চেয়ে অধিক উচ্চতায় জলোচ্ছ্বাস ও বৃষ্টির পানির জলাবদ্ধতার কারণে উপকূলবর্তী অনেক বাড়িঘর সহ মাছেরঘের ও অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অধিক জলোচ্ছ্বাসে কোন বন্যপ্রাণী লোকালয়ে চলে এসেছে কিনা তা উদ্ধারে বন কর্মীদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।আমরা ভোর হতে উদ্ধার অভিযানে রয়েছি।
কোথাও বন্য প্রাণী আটকে পড়ার সংবাদ পাওয়া গেলে কোন ক্ষতি না করে অনুগ্রহপূর্বক নিকটস্থ বনকর্মীদের অবহিত করার জন্য অনুরোধ করেছেন তিনি।এই কর্মকর্তা বলেন,এ পর্যন্ত লোকালয় থেকে যত অজগর উদ্ধার হয়েছে,তার বেশির ভাগই উদ্ধার হয়েছে বাড়িঘরের হাঁস-মুরগির খোপ/ঘর ও তার আশপাশ থেকে।
বার্তাকণ্ঠ/এন