শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সিরাজদিখানে বিড়াল হত্যার বিচার চেয়ে থানায় কিশোরী

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে পোষ্য বিড়াল হত্যার বিচার চেয়ে থানায় হাজির হয়েছেন আছিয়া আক্তার (১৩) নামে এক কিশোরী।
রোববার (৩০ অক্টোবর) বিকালে বিড়ালটির মালিক মালখানগর ইউনিয়নের ফুরশাইল গ্রামের ওই কিশোরী মা আকলিমা আক্তার বাদী হয়ে তার মেয়ের বিড়াল হত্যার অভিযোগ এনে সিরাজদিখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
বিড়াল প্রেমী কিশোরী আছিয়া আক্তার  কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, সেই ছোট্ট বেলা থেকে এই বিড়ালটাকে সে পালন করতো। রোববার আনুমানিক ১২ টার দিকে আমার বিড়াল টাকে উত্তর ফুরশাইল গ্রামের মৃত সিরাজ মিয়ার স্ত্রী তাসলিমা ও মেয়ে সেলিনা ঘাড়ে কাঠ দিয়ে একটি আঘাত করে। পরে সে বিড়ালটিকে নিয়ে পশু হাসপাতালে যায়। কিন্তু তারা বলেন বিড়ালটি নাকি মারা গেছে। পরে ওই কিশোরী বিচারের আশায় মৃত বিড়ালটা নিয়ে থানায় হাজির হয়। থানায় গেলে পুলিশ বিষয়টি নিয়ে হাসি ঠাট্টা করে। পরে  তার মা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। কিশোরী তার পোষ্য বিড়াল হত্যার বিচার চেয়েছেন।
এ ব্যপারে সিরাজদিখান উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা শবনম সুলতানা বলেন, বিড়ালটি যখন এখানে নিয়ে আসা হয় তখন বিড়ালটি মৃত অবস্থায় ছিলো।
অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এ.এস.আই ইসলাম বলেন, তিনি সেখানে গিয়েছিলেন। বিড়ালটির ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজদিখান পশু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।
বার্তাকণ্ঠ/এন

সিরাজদিখানে বিড়াল হত্যার বিচার চেয়ে থানায় কিশোরী

প্রকাশের সময় : ১১:৪৮:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩১ অক্টোবর ২০২২
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে পোষ্য বিড়াল হত্যার বিচার চেয়ে থানায় হাজির হয়েছেন আছিয়া আক্তার (১৩) নামে এক কিশোরী।
রোববার (৩০ অক্টোবর) বিকালে বিড়ালটির মালিক মালখানগর ইউনিয়নের ফুরশাইল গ্রামের ওই কিশোরী মা আকলিমা আক্তার বাদী হয়ে তার মেয়ের বিড়াল হত্যার অভিযোগ এনে সিরাজদিখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
বিড়াল প্রেমী কিশোরী আছিয়া আক্তার  কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, সেই ছোট্ট বেলা থেকে এই বিড়ালটাকে সে পালন করতো। রোববার আনুমানিক ১২ টার দিকে আমার বিড়াল টাকে উত্তর ফুরশাইল গ্রামের মৃত সিরাজ মিয়ার স্ত্রী তাসলিমা ও মেয়ে সেলিনা ঘাড়ে কাঠ দিয়ে একটি আঘাত করে। পরে সে বিড়ালটিকে নিয়ে পশু হাসপাতালে যায়। কিন্তু তারা বলেন বিড়ালটি নাকি মারা গেছে। পরে ওই কিশোরী বিচারের আশায় মৃত বিড়ালটা নিয়ে থানায় হাজির হয়। থানায় গেলে পুলিশ বিষয়টি নিয়ে হাসি ঠাট্টা করে। পরে  তার মা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। কিশোরী তার পোষ্য বিড়াল হত্যার বিচার চেয়েছেন।
এ ব্যপারে সিরাজদিখান উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা শবনম সুলতানা বলেন, বিড়ালটি যখন এখানে নিয়ে আসা হয় তখন বিড়ালটি মৃত অবস্থায় ছিলো।
অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এ.এস.আই ইসলাম বলেন, তিনি সেখানে গিয়েছিলেন। বিড়ালটির ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজদিখান পশু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।
বার্তাকণ্ঠ/এন