Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১বৃহস্পতিবার , ২৪ নভেম্বর ২০২২
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ব্লকবাস্টার হিট সিনেমা ‘টাইটানিক’র কিছু বিষ্ময়কর কথা

বার্তাকন্ঠ
নভেম্বর ২৪, ২০২২ ৭:৫০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জেমস ক্যামেরন তার ব্লকবাস্টার হিট সিনেমা ‘টাইটানিক’র আগামী মাসে ২৫ বছর বা রজতজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে কিছু বিষ্ময়কর বিস্তারিত ভক্তদের খুলে বলেছেন।

বিশ্বখ্যাত মার্কিন ‘জিকিউ’ ম্যাগাজিনের সঙ্গে একটি নতুন ভিডিও সাক্ষাৎকারে সেরা পরিচালক, সেরা চলচ্চিত্র সম্পাদক ও সেরা ছবি’র অস্কার জয় করা-টাইটানিক ও অ্যাভাটারের জন্য, কানাডিয়ান এই আদর্শ চলচ্চিত্র পরিচালক জানিয়েছেন, তিনি প্রায় নিতে যাচ্ছিলেন না শিল্পী হিসেবে লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও বা কেট উন্সলেটকে, তার দুটি প্রধান ও রোমান্টিকচরিত্রে, যারা হলিউড তারকা হিসেবে তাদের বেশিরভাগ অস্কারজয়ী সিনেমাগুলোকে দৃঢ়ভাবে সংযুক্ত করে মাইলফলক করে দেবার মাধ্যমে ক্যারিয়ার গড়েছেন।

চরিত্রগুলোকে রূপদান করতে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের বিচার করার সময় ডুবে যাওয়া ‘ওশান লাইনার’ জাহাজের মতো সিনেমাটিতে ভাগ্য বিড়ম্বিত ভালোবাসার জুটি হিসেবে, ক্যামেরন ব্যাখ্যা করেছেন, তিনি শুরুতে ভাবছিলেন অন্য তারকাদের, যেমন-গিনেথ প্যালট্রোকে ‘রোজ’ চরিত্রে।

যখন উইন্সলেট একটি বিকল্প হিসেবে তার সামনে প্রস্তাবিত হলেন, তিনি ভীত হয়ে ছিলেন এই কারণে, তিনি একটি টাইপ বা নির্দিষ্ট ধরন বড় বেশি অভিনয় করেছেন।

‘আমি আসলে প্রথমে কেটকে দেখিনি। সে আরও কটি বা অন্য ঐতিহাসিক ছবিগুলো ভালোভাবে করেছে ও সে একটি খ্যাতি লাভ করছিল, ঐতিহাসিক ছবিগুলোতে ‘অর্ন্তবাসনির্ভর কেট’ হিসেবে। (এই কথাটি সত্য যে, ‘দ্য রিডার্স’ সিনেমার এই তারকা অভিনেত্রী তার ‘টাইটানিক’, ‘সেন্স অ্যান্ড সেনসিবিলিটি’-১৯৯৫, ‘জুড’ ও হ্যামলেট ছবিতে স্ত্রীলোকের ঐতিহাসিক পোশাক পরেছেন ও এই ধরনের অভিনয় করেছেন।)’

ভিডিও সাক্ষাৎকারে ক্যামেরন আরও জানিয়েছেন, এই রোজ চরিত্রে উইন্সলেটকে নির্বাচনের সময় তিনি ভয়ে বিশ্বের সবচেয়ে সময় নিয়ে নির্বাচনের দিকে গিয়েছেন। তবুও তিনি তার সঙ্গে দেখা করার সময় দিতে শেষ পর্যন্ত (চরিত্র নিবাচনের আগে) রাজি হননি।

তবে তিনি উল্লেখ করেছেন, অবশ্যই তিনি ভাবতেন যে, কেট উইন্সলেট ‘অদ্ভুত সুন্দর’। টাইটানিক সিনেমায় কেট উইন্সলেটকে নায়িকা চরিত্রে নির্বাচনের পর থেকে ইতিহাস গড়ে চলেছেন তিনি আজও। তার নায়ক হিসেবে ডিক্যাপ্রিওকে নির্বাচনের সময়ও কবার হেঁচকি তুলেছেন সেভাবে তিনি।

এই হৃদয় ভেঙে দেওয়া হলিউড তারকার সঙ্গে একটি প্রাথমিক মিটিংয়ের সময় প্রডাকশন অফিসের সব নারী কর্মী ক্যামেরনের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন। ফলে তাদের সাক্ষাৎকারটি ‘ঐতিহাসিক’ রূপ লাভ করেছে।

ডিক্যাপ্রিওকে আবার দাওয়াত করা হলো উইন্সলেটের সঙ্গে স্ক্রিন টেস্টের জন্য, যিনি এর মধ্যে নির্বাচিত হয়ে গিয়েছেন। তবে যখন ‘রোমিও এবং জুলিয়েট’ খ্যাত সিনেমার নায়ক-নায়িকা এলেন, নায়ক ডিক্যাপ্রিও আশ্চর্য হয়ে গেলেন যে, তাকে লাইনগুলো পড়তে হবে ক্যামেরার সামনে ও তাকে উইন্সলেটের সঙ্গে তখন ক্যামেরাবন্দী হতে হবে সিনেমার দৃশ্যগুলোর মতো, যাতে ছবিটিতে তাদের জুটির রসায়ন মাপা সম্ভব হয়।

ক্যামেরনের মনে পড়ে, ‘সে এলো। ভেবেছিল, কেটের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক আলাপের জন্য আরেকটি সভায় এসেছে।’ তিনি এই জুটিকে বলেছেন, ‘আমরা কেবল কটি লাইন অভিনয়ের মতো পড়ব এবং আমি তার ভিডিও করব।’

তবে তখন ডিক্যাপ্রিও, যিনি এর মধ্যে কয়েকটি হলিউড সিনেমার মূল চরিত্রে অভিনয় সম্পন্ন করেছেন ও একটি অস্কার মনোনয়ন লাভ করেছেন তার ১৯৯৩ সালের হোয়াট’স ইটিং গিলবাট গ্রেইপ’ ছবির জন্য, ক্যামেরনকে জানালেন, ‘আপনি বোঝাতে চাইছেন আমি পড়ছি? আমি পড়ব না।’ তিনি তাকে বোঝাতে চেয়েছেন, তিনি সিনেমার চরিত্রের জন্য আর অডিশন দেন না। কথাটির পর এক মুহূর্তটি না থেমে ক্যামেরন তার হাতটি বাড়িয়ে দিলেন তারকা অভিনেতার দিকে ও তাকে বললেন, ‘ভালো, আসার জন্য ধন্যবাদ।’

এরপর তাদের পরিচালক ক্যামেরন ডিক্যাপ্রিওকে ব্যাখ্যা করলেন, এই প্রকল্পের বিশালতা, কীভাবে এই চলচ্চিত্রটি তার জীবনের দুটি বছর নিয়ে নিয়েছে এবং কেন তিনি চরিত্র নির্বাচনের সময় কোনো ভুল সিদ্ধান্ত নিতে রাজি নন। এরপর তরুণ অভিনেতাকে তিনি বলেছেন, ‘ফলে তোমাদের এই বাক্যগুলো অভিনয় করে দেখাতে হবে নয়তো ছবিটির অংশ হতে পারবে না।’

এরপর ডিক্যাপ্রিও অনিচ্ছুকভাবে তাকে সম্মানিত করলেন। তবে সিনেমাটি তৈরি করার সময় বিশেষভাবে উল্লেখ্য বলে ক্যামেরন জানিয়েছেন, শুটিংয়ের সময় কীভাবে ছবিটিকে আলোকিত করেছেন ডিক্যাপ্রিও এবং কেমনভাবে তিনিও সিনেমার জ্যাক চরিত্রটিকে চিরকালের সেরা করে দিয়েছেন।

তাদের সম্মিলিত শ্রমের ফসল টাইটানিক ১৯৯৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর সিনেমা হলগুলোতে পাল ওড়াল এবং পরিণামে সেবারের অস্কারে মোট ১১টি পুরস্কার জয় করেছে। ক্যামেরন লাভ করেছেন সেরা পরিচালকের বিশ্বসেরা সম্মান।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
 
%d bloggers like this: