সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকাপে আজ আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের মাঠের যুদ্ধ

কাতার বিশ্বকাপের ৩২ দেশের লড়াই শেষ করে আজ শুরু হচ্ছে কোয়ার্টার ফাইনালের যুদ্ধ। শেষ আটের লড়াই। এটাই বিশ্বকাপের ফরমেশন। শেষ আট থেকে সেমিফাইনাল এবং ফাইনাল। ১৮ ডিসেম্বর ফাইনালের আগেই কথার যুদ্ধ শুরু হয়েছে। জল্পনা শুরু হয়েছে বিশ্বকাপটা কি আজই শেষ হয়ে যাচ্ছে কি না। এক দিনেই মাঠে গড়াচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবলের দুই হেভিওয়েট দল ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার খেলা। অনেকের কাছেই বিশ্বকাপ আজই শেষ হয়ে যেতে পারে। বিশেষ করে বাংলাদেশের ফুটবল দর্শকের কাছে তো বটেই। অঙ্কের হিসাব বলছে, আজ ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনা যদি হেরে যায় তাহলে বিশ্বকাপের সব আলো শেষ হয়ে যাবে। ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা বাঁচলে বাংলাদেশের চোখে বিশ্বকাপও বেঁচে থাকবে। বিশ্বকাপের সব আলো বাঁচানোর যুদ্ধ শুরু আজ।

ব্রাজিল খেলবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। আর্জেন্টিনার সামনে নেদারল্যান্ডস। যদি দুই দল জিতে যায় তাহলে সেমিফাইনালে দেখা হবে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের। ফুটবলের সব উত্তেজনার পারদ সেখানেই পড়বে। যেসব দেশ বিশ্বকাপ ফুটবলে নেই, তারাও এমনটাই ভাবছেন। আর বাংলাদেশের ফুটবলের ঘরে তো আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল মানেই সব খেলার ঊর্ধ্বে মেসি-নেইমার।

মেসি এবং নেইমারের ওপর নির্ভর করছে বিশ্বকাপটাকে ধরে রাখার। সবাই যে যা-ই ভাবুক,  ব্রাজিল কোচ তিতে কিংবা আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালিনো কী ভাবছেন। আর্জেন্টিনার সংবাদ সম্মেলনে জর্ডানের সাংবাদিক হিবা সাব্বা প্রশ্ন তুললেন কোয়ার্টার ফাইনাল জিতলে সেমিফাইনালে কাকে চাও ? কথাটা শুনে মঞ্চে বসা কোচ লিওনেল স্কালোনি কপালটা কুচকাচ্ছিলেন। পরে মুখ তুলে স্কালোনি বললেন, ‘এখন বলতে পারব না।’ তাহলে কি ধরে নেব নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে তোমরা ক্রোয়েশিয়াকে চাও? স্কালোনি বললেন, ‘আহ হা। আগে আমি আজকে কোয়ার্টার ফাইনালটা জিতি। তারপর না হয় ভিন্ন কথা।’ কিন্তু আর্জেন্টিনার ম্যাচের আগেই তো ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচের রেজাল্টটা হয়ে যাবে।’ স্কালোনি বললেন, ‘আমরা এখন নিজেদের ম্যাচ নিয়ে ভাবছি। সেমিফাইনালের টিকিট পাওয়ার পর জানতে পারব, আর যদি না জিততে পারি তাহলে সব কিছুই তো উলটে যাবে তাই না।’
নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে টাইব্রেকার হবে কি না ? প্রশ্নটা শুনে মনে হলো স্কালোনি একটু বিব্রতই হলেন। পালটা প্রশ্ন করলেন, ‘কি করে আগেই নিশ্চিত হলেন টাইব্রেকার পর্যন্ত ম্যাচ যাবে। ৯০ মিনিট, নাকি আরও ৩০ মিনিট গড়াবে কে জানে! টাইব্রেকার তো আরও পরের ব্যাপার।’ তাহলে কি আর্জেন্টিনা টাইব্রেকারে যেতে চায় না। আগেই তারা ম্যাচ জয় নিশ্চিত করতে চায় ? স্কালোনি বললেন, ‘আমাদের পরিকল্পনা আছে।’ পরিকল্পনাটা কী, সেটা কি তাহলে ৯০ মিনিটে ম্যাচ জিতে নেওয়া। টাইব্রেকারে যাওয়া মানেই কি ঝুঁকি। স্কালোনি ম্যাচটা ১২০ মিনিট নিতে চান না সেটা পরিষ্কার। তবে আর্জেন্টাইনদের বার্তা দিয়েছেন, ‘আমরা পজিটিভ রেজাল্ট দিতে চাই।’ স্কালোনির পরিষ্কার কথা, ‘১১ দিনে চার ম্যাচ খেলেছি। অস্ট্রেলিয়া, মেক্সিকো, পোল্যান্ডের ম্যাচগুলোর মতোই কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যাচটা দেখছি আমরা।’ দিবালাকে খেলানো হচ্ছে না। প্রশ্নে স্কালোনির কৌশলী জবাব, ‘দিবালা ২৬ ফুটবলারের মধ্যেই একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়।’

আজ একই দিনে আর্জেন্টিনার আগেই মাঠে নামছে ব্রাজিল। গতবারের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে খেলবে। বিশ্বকাপের গত ২০ বছরে ইতিহাসে ব্রাজিল নকআউট পর্ব থেকে খালি হাতে বাড়ি গিয়েছিল। বড় সব তারকা মাথা নিচু করে ফিরেছেন। ২০০৬, ২০১০ ও সর্বশেষ ২০১৮ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায়। ২০১৪ সালে নিজেদের মাটির বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে বিধ্বস্ত হয়েছিল ৭-১ গোলে। এবার কোচ তিতে সেই সব ইতিহাস নিয়ে অঙ্ক করে দেখেছেন কী কী কারণে এমন দুরবস্থা হয়েছিল। পরে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচেও নেদারল্যান্ডসের কাছে হেরেছিল ব্রাজিল। তারপর ব্রাজিল কোচ তিতে এবার খুব আত্মবিশ্বাসী। চ্যাম্পিয়ন ট্রফিটা দেখছেন। বিশ্বকাপের আলো ধরে রেখে ট্রফিটা নিয়ে ঘরে ফিরতে চান। তবে ট্রফি হাতে তোলার আগে  আজকের ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে লড়াইটা নিজের পকেটে পুরে নিতে প্রস্তুত তিতে।

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

ঠাকুরগাঁওয়ে কুয়াশায় ঢাকা চারপাশ, কমেছে তাপমাত্রা

বিশ্বকাপে আজ আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের মাঠের যুদ্ধ

প্রকাশের সময় : ০৯:২৩:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২

কাতার বিশ্বকাপের ৩২ দেশের লড়াই শেষ করে আজ শুরু হচ্ছে কোয়ার্টার ফাইনালের যুদ্ধ। শেষ আটের লড়াই। এটাই বিশ্বকাপের ফরমেশন। শেষ আট থেকে সেমিফাইনাল এবং ফাইনাল। ১৮ ডিসেম্বর ফাইনালের আগেই কথার যুদ্ধ শুরু হয়েছে। জল্পনা শুরু হয়েছে বিশ্বকাপটা কি আজই শেষ হয়ে যাচ্ছে কি না। এক দিনেই মাঠে গড়াচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবলের দুই হেভিওয়েট দল ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার খেলা। অনেকের কাছেই বিশ্বকাপ আজই শেষ হয়ে যেতে পারে। বিশেষ করে বাংলাদেশের ফুটবল দর্শকের কাছে তো বটেই। অঙ্কের হিসাব বলছে, আজ ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনা যদি হেরে যায় তাহলে বিশ্বকাপের সব আলো শেষ হয়ে যাবে। ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা বাঁচলে বাংলাদেশের চোখে বিশ্বকাপও বেঁচে থাকবে। বিশ্বকাপের সব আলো বাঁচানোর যুদ্ধ শুরু আজ।

ব্রাজিল খেলবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। আর্জেন্টিনার সামনে নেদারল্যান্ডস। যদি দুই দল জিতে যায় তাহলে সেমিফাইনালে দেখা হবে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের। ফুটবলের সব উত্তেজনার পারদ সেখানেই পড়বে। যেসব দেশ বিশ্বকাপ ফুটবলে নেই, তারাও এমনটাই ভাবছেন। আর বাংলাদেশের ফুটবলের ঘরে তো আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল মানেই সব খেলার ঊর্ধ্বে মেসি-নেইমার।

মেসি এবং নেইমারের ওপর নির্ভর করছে বিশ্বকাপটাকে ধরে রাখার। সবাই যে যা-ই ভাবুক,  ব্রাজিল কোচ তিতে কিংবা আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালিনো কী ভাবছেন। আর্জেন্টিনার সংবাদ সম্মেলনে জর্ডানের সাংবাদিক হিবা সাব্বা প্রশ্ন তুললেন কোয়ার্টার ফাইনাল জিতলে সেমিফাইনালে কাকে চাও ? কথাটা শুনে মঞ্চে বসা কোচ লিওনেল স্কালোনি কপালটা কুচকাচ্ছিলেন। পরে মুখ তুলে স্কালোনি বললেন, ‘এখন বলতে পারব না।’ তাহলে কি ধরে নেব নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে তোমরা ক্রোয়েশিয়াকে চাও? স্কালোনি বললেন, ‘আহ হা। আগে আমি আজকে কোয়ার্টার ফাইনালটা জিতি। তারপর না হয় ভিন্ন কথা।’ কিন্তু আর্জেন্টিনার ম্যাচের আগেই তো ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচের রেজাল্টটা হয়ে যাবে।’ স্কালোনি বললেন, ‘আমরা এখন নিজেদের ম্যাচ নিয়ে ভাবছি। সেমিফাইনালের টিকিট পাওয়ার পর জানতে পারব, আর যদি না জিততে পারি তাহলে সব কিছুই তো উলটে যাবে তাই না।’
নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে টাইব্রেকার হবে কি না ? প্রশ্নটা শুনে মনে হলো স্কালোনি একটু বিব্রতই হলেন। পালটা প্রশ্ন করলেন, ‘কি করে আগেই নিশ্চিত হলেন টাইব্রেকার পর্যন্ত ম্যাচ যাবে। ৯০ মিনিট, নাকি আরও ৩০ মিনিট গড়াবে কে জানে! টাইব্রেকার তো আরও পরের ব্যাপার।’ তাহলে কি আর্জেন্টিনা টাইব্রেকারে যেতে চায় না। আগেই তারা ম্যাচ জয় নিশ্চিত করতে চায় ? স্কালোনি বললেন, ‘আমাদের পরিকল্পনা আছে।’ পরিকল্পনাটা কী, সেটা কি তাহলে ৯০ মিনিটে ম্যাচ জিতে নেওয়া। টাইব্রেকারে যাওয়া মানেই কি ঝুঁকি। স্কালোনি ম্যাচটা ১২০ মিনিট নিতে চান না সেটা পরিষ্কার। তবে আর্জেন্টাইনদের বার্তা দিয়েছেন, ‘আমরা পজিটিভ রেজাল্ট দিতে চাই।’ স্কালোনির পরিষ্কার কথা, ‘১১ দিনে চার ম্যাচ খেলেছি। অস্ট্রেলিয়া, মেক্সিকো, পোল্যান্ডের ম্যাচগুলোর মতোই কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যাচটা দেখছি আমরা।’ দিবালাকে খেলানো হচ্ছে না। প্রশ্নে স্কালোনির কৌশলী জবাব, ‘দিবালা ২৬ ফুটবলারের মধ্যেই একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়।’

আজ একই দিনে আর্জেন্টিনার আগেই মাঠে নামছে ব্রাজিল। গতবারের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে খেলবে। বিশ্বকাপের গত ২০ বছরে ইতিহাসে ব্রাজিল নকআউট পর্ব থেকে খালি হাতে বাড়ি গিয়েছিল। বড় সব তারকা মাথা নিচু করে ফিরেছেন। ২০০৬, ২০১০ ও সর্বশেষ ২০১৮ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায়। ২০১৪ সালে নিজেদের মাটির বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে বিধ্বস্ত হয়েছিল ৭-১ গোলে। এবার কোচ তিতে সেই সব ইতিহাস নিয়ে অঙ্ক করে দেখেছেন কী কী কারণে এমন দুরবস্থা হয়েছিল। পরে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচেও নেদারল্যান্ডসের কাছে হেরেছিল ব্রাজিল। তারপর ব্রাজিল কোচ তিতে এবার খুব আত্মবিশ্বাসী। চ্যাম্পিয়ন ট্রফিটা দেখছেন। বিশ্বকাপের আলো ধরে রেখে ট্রফিটা নিয়ে ঘরে ফিরতে চান। তবে ট্রফি হাতে তোলার আগে  আজকের ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে লড়াইটা নিজের পকেটে পুরে নিতে প্রস্তুত তিতে।