সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিএনপির সমাবেশ প্রতিহত করার ঘোষণা, ছাত্রলীগের

আগামীকাল শনিবার, ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিএনপি আবারও দেশকে ‘অস্থিতিশীল’ পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে এমন অভিযোগ তুলে তাদের প্রতিহত করতে ‘রুখে দাঁড়াও ছাত্রসমাজ’ ব্যানারে প্রতিবাদী মিছিল করেছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) মিছিলটি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তিলোত্তমা সিকদারের নেতৃত্বে হাইকোর্টের মোড় থেকে শুরু হয়ে দোয়েল চত্বর, ঢাকা মেডিক্যাল, শহীদ মিনার হয়ে রাজু ভাস্কর্যে এসে এক প্রতিবাদী সমাবেশ করে। পরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মধুর ক্যান্টিনে অবস্থান নেয়। 

এছাড়া ঢাবি ক্যাম্পাসের কার্জন হল, দোয়েল চত্বর, টিএসসি, পলাশী মোড়, শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ এলাকা ও নীলক্ষেত পয়েন্টসহ কয়েকটি স্থানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। 

প্রতিবাদী মিছিল ও অবস্থানের বিষয়ে তিলোত্তমা সিকদার অভিযোগ করেন, ‘বিএনপি ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশের কথা বলে গত কয়েক দিন ধরে বিএনপি নয়াপল্টনে যে বোমা সন্ত্রাস ও পুলিশের ওপর হামলা করেছে তাতে দেশের সাধারণ মানুষ ও শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।’

এদিকে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ঢাবি ক্যাম্পাসে এসে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অতীতেও আমরা তাদের এ ধরনের কর্মকাণ্ড দেখেছি। তাই সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি এড়াতে ছাত্রলীগ প্রস্তুত আছে, এটা জানান দিতেই আমাদের এ প্রতিবাদী সমাবেশ।’ 

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

ঠাকুরগাঁওয়ে কুয়াশায় ঢাকা চারপাশ, কমেছে তাপমাত্রা

বিএনপির সমাবেশ প্রতিহত করার ঘোষণা, ছাত্রলীগের

প্রকাশের সময় : ১০:৫২:১৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২

আগামীকাল শনিবার, ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিএনপি আবারও দেশকে ‘অস্থিতিশীল’ পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে এমন অভিযোগ তুলে তাদের প্রতিহত করতে ‘রুখে দাঁড়াও ছাত্রসমাজ’ ব্যানারে প্রতিবাদী মিছিল করেছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) মিছিলটি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তিলোত্তমা সিকদারের নেতৃত্বে হাইকোর্টের মোড় থেকে শুরু হয়ে দোয়েল চত্বর, ঢাকা মেডিক্যাল, শহীদ মিনার হয়ে রাজু ভাস্কর্যে এসে এক প্রতিবাদী সমাবেশ করে। পরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মধুর ক্যান্টিনে অবস্থান নেয়। 

এছাড়া ঢাবি ক্যাম্পাসের কার্জন হল, দোয়েল চত্বর, টিএসসি, পলাশী মোড়, শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ এলাকা ও নীলক্ষেত পয়েন্টসহ কয়েকটি স্থানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। 

প্রতিবাদী মিছিল ও অবস্থানের বিষয়ে তিলোত্তমা সিকদার অভিযোগ করেন, ‘বিএনপি ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশের কথা বলে গত কয়েক দিন ধরে বিএনপি নয়াপল্টনে যে বোমা সন্ত্রাস ও পুলিশের ওপর হামলা করেছে তাতে দেশের সাধারণ মানুষ ও শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।’

এদিকে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ঢাবি ক্যাম্পাসে এসে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অতীতেও আমরা তাদের এ ধরনের কর্মকাণ্ড দেখেছি। তাই সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি এড়াতে ছাত্রলীগ প্রস্তুত আছে, এটা জানান দিতেই আমাদের এ প্রতিবাদী সমাবেশ।’