শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে সন্ত্রাসী কাকন বাহিনীর হাতে নির্যাতনের শিকার নারী

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে ১২ হাজার পাওনা টাকার জন্য রেহেনা বেগম (৩৫) নামের এক নারীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে এলাকার প্রভাবশালী ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুবক্কর হাওলাদারের ছেলে সন্ত্রাসী কাকন হাওলাদারের বিরুদ্ধে।
১৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের গাববুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নীর্যাতনের শিকার রেহেনা বেগম অসুস্থ অবস্থায় গলাচিপা সাস্থ্যকমপ্লেক্স এ চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
রেহেনার স্বামী ফেরদাউস প্যাদা জানান, স্থানীয় সমিতির কাছ থেকে তিনি ৪০ হাজার টাকা কিস্তি নেন । ২৮ হাজার টাকা পরিশোধ করলে ১২হাজার টাকা পায় সমিতি । কিন্ত আমরাও সমিতির লোক জনের কাছে ১০হাজার টাকা ও একটি গাছ নিছে আমাদের কাছ থেকে তিন বছর আগে সেই টাকা চাইলে আমার স্ত্রীকে সন্ত্রাসী কাকন হাওলাদার তার বাহিনী নিয়ে হামলা করে, গাছের সাথে বেধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে’ । এতে আমার স্ত্রী শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জখম হয় ।মারধরের এক পর্যায় আমার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পরলে স্থানীয় লোকজন তাকে নিকটতম ফর্মেসিতে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয় ।আমার স্ত্রী রাঙ্গাবালী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।
হামলাকারী সন্ত্রাসী কাকন হাওলাদারের বাবা আবুবক্কর হাওলাদার জানান, ‘দোকানের সামনে বসে আমার ছেলে সাথে টাকা পাওনা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় আমার ছেলে রেহেনার হাত ধরে কিন্ত মারে নাই পড়ে স্থানীয়রা দুই জনকে সরিয়ে দিয়েছে’।
রাঙ্গাবালী থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

যে খবরে ৩ দিনেই ৩ লাখ কোটি রুপি হারাল আদানি গ্রুপ

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে সন্ত্রাসী কাকন বাহিনীর হাতে নির্যাতনের শিকার নারী

প্রকাশের সময় : ০৮:০৩:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২৩
পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে ১২ হাজার পাওনা টাকার জন্য রেহেনা বেগম (৩৫) নামের এক নারীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে এলাকার প্রভাবশালী ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুবক্কর হাওলাদারের ছেলে সন্ত্রাসী কাকন হাওলাদারের বিরুদ্ধে।
১৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের গাববুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নীর্যাতনের শিকার রেহেনা বেগম অসুস্থ অবস্থায় গলাচিপা সাস্থ্যকমপ্লেক্স এ চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
রেহেনার স্বামী ফেরদাউস প্যাদা জানান, স্থানীয় সমিতির কাছ থেকে তিনি ৪০ হাজার টাকা কিস্তি নেন । ২৮ হাজার টাকা পরিশোধ করলে ১২হাজার টাকা পায় সমিতি । কিন্ত আমরাও সমিতির লোক জনের কাছে ১০হাজার টাকা ও একটি গাছ নিছে আমাদের কাছ থেকে তিন বছর আগে সেই টাকা চাইলে আমার স্ত্রীকে সন্ত্রাসী কাকন হাওলাদার তার বাহিনী নিয়ে হামলা করে, গাছের সাথে বেধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে’ । এতে আমার স্ত্রী শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জখম হয় ।মারধরের এক পর্যায় আমার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পরলে স্থানীয় লোকজন তাকে নিকটতম ফর্মেসিতে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয় ।আমার স্ত্রী রাঙ্গাবালী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।
হামলাকারী সন্ত্রাসী কাকন হাওলাদারের বাবা আবুবক্কর হাওলাদার জানান, ‘দোকানের সামনে বসে আমার ছেলে সাথে টাকা পাওনা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় আমার ছেলে রেহেনার হাত ধরে কিন্ত মারে নাই পড়ে স্থানীয়রা দুই জনকে সরিয়ে দিয়েছে’।
রাঙ্গাবালী থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।