শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জুনে বাংলাদেশে আসছে বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টিনা

বাংলাদেশে আসছে বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টিনা ফুটবল দল। দেশটির ফুটবল ফেডারেশন (এএফএ) মৌখিকভাবে সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে (বাফুফে)।

জুনের ফিফা উইন্ডোতে ঢাকার মাঠ মাতাবেন মেসি-ডি মারিয়ারা। তবে তার আগে বাংলাদেশে এসে সব সুযোগ-সুবিধা পর্যবেক্ষণ করে যাবে দেশটির ফুটবল ফেডারেশনের একটি প্রতিনিধি দল।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে বাফুফে।

এক দশকেরও বেশি সময় আগে বাংলাদেশে পা রেখেছিল লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। প্রীতি ম্যাচ খেলতে আসা দলটা তখন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ছিল না। তবে দর্শকদের মন ঠিকই মাতিয়ে গিয়েছিল।

আবারও লাল-সবুজের দেশে আসতে যাচ্ছেন মেসিরা। এবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন তমকা গায়ে জড়িয়ে। বাংলাদেশের মানুষের অকুন্ঠ ভালোবাসার কথা জানে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। তারই প্রেক্ষিতে প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের কথা জানিয়ে দেশটির ফেডারেশনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিল বাফুফে। পাওয়া গেল ইতিবাচক ফলও। বাংলাদেশে আসতে আগ্রহ দেখিয়েছে আর্জেন্টিনা।

সম্প্রতি বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিনও জানিয়েছিলেন, ‘আমরা যোগাযোগ করছি…আসতে চায় ওরা (আর্জেন্টিনা)। আমরা ৪-৫ দিন ধরেই কথা বলছি। (আনার খরচ) যে আনবে তাকেই দিতে হবে।’

২০১১’তে বাংলাদেশে মেসিদের আনতে খরচ হয়েছিল প্রায় ৪০ কোটি টাকা। বর্তমানে আর্জেন্টিনা দল ও মেসিদের ব্রান্ড ভ্যালু বেড়েছে বহুগুণ। মাত্রই তারা জিতেছে বিশ্বকাপ। এবার তাদের আনতে প্রয়োজন প্রায় একশো কোটি টাকা। আর্জেন্টিনার আসা শতভাগ নিশ্চিত হলে তারপরই ঠিক করা হবে তাদের প্রতিপক্ষ। ১২ জুন থেকে ২০ জুনের মধ্যে হতে পারে ম্যাচটি।

শুরুতে পিএসজি-লিভারপুল মধ্যকার ফুটবল ম্যাচ আয়োজনের চেষ্টা করেছিল বাফুফে। তাতে নেইমার, এমবাপ্পে, মোহাম্মদ সালাহদের এক মাঠে দেখার সুযোগ ছিল। কিন্তু পিএসজির চলতি বছর ক্লাব ফ্রেন্ডলি ম্যাচে কোনো সূচি খালি না থাকায় আর্জেন্টিনাকে আনার পথেই হাঁটছে বাফুফে।

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

বঙ্গোপসাগরে ও তৎসংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপ

জুনে বাংলাদেশে আসছে বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টিনা

প্রকাশের সময় : ০৭:০৪:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৩

বাংলাদেশে আসছে বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টিনা ফুটবল দল। দেশটির ফুটবল ফেডারেশন (এএফএ) মৌখিকভাবে সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে (বাফুফে)।

জুনের ফিফা উইন্ডোতে ঢাকার মাঠ মাতাবেন মেসি-ডি মারিয়ারা। তবে তার আগে বাংলাদেশে এসে সব সুযোগ-সুবিধা পর্যবেক্ষণ করে যাবে দেশটির ফুটবল ফেডারেশনের একটি প্রতিনিধি দল।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে বাফুফে।

এক দশকেরও বেশি সময় আগে বাংলাদেশে পা রেখেছিল লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। প্রীতি ম্যাচ খেলতে আসা দলটা তখন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ছিল না। তবে দর্শকদের মন ঠিকই মাতিয়ে গিয়েছিল।

আবারও লাল-সবুজের দেশে আসতে যাচ্ছেন মেসিরা। এবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন তমকা গায়ে জড়িয়ে। বাংলাদেশের মানুষের অকুন্ঠ ভালোবাসার কথা জানে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। তারই প্রেক্ষিতে প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের কথা জানিয়ে দেশটির ফেডারেশনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিল বাফুফে। পাওয়া গেল ইতিবাচক ফলও। বাংলাদেশে আসতে আগ্রহ দেখিয়েছে আর্জেন্টিনা।

সম্প্রতি বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিনও জানিয়েছিলেন, ‘আমরা যোগাযোগ করছি…আসতে চায় ওরা (আর্জেন্টিনা)। আমরা ৪-৫ দিন ধরেই কথা বলছি। (আনার খরচ) যে আনবে তাকেই দিতে হবে।’

২০১১’তে বাংলাদেশে মেসিদের আনতে খরচ হয়েছিল প্রায় ৪০ কোটি টাকা। বর্তমানে আর্জেন্টিনা দল ও মেসিদের ব্রান্ড ভ্যালু বেড়েছে বহুগুণ। মাত্রই তারা জিতেছে বিশ্বকাপ। এবার তাদের আনতে প্রয়োজন প্রায় একশো কোটি টাকা। আর্জেন্টিনার আসা শতভাগ নিশ্চিত হলে তারপরই ঠিক করা হবে তাদের প্রতিপক্ষ। ১২ জুন থেকে ২০ জুনের মধ্যে হতে পারে ম্যাচটি।

শুরুতে পিএসজি-লিভারপুল মধ্যকার ফুটবল ম্যাচ আয়োজনের চেষ্টা করেছিল বাফুফে। তাতে নেইমার, এমবাপ্পে, মোহাম্মদ সালাহদের এক মাঠে দেখার সুযোগ ছিল। কিন্তু পিএসজির চলতি বছর ক্লাব ফ্রেন্ডলি ম্যাচে কোনো সূচি খালি না থাকায় আর্জেন্টিনাকে আনার পথেই হাঁটছে বাফুফে।