শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আর্থ্রাইটিসের সবচেয়ে বড় ওষুধ ওজন কমানো

বাড়ির বয়স্ক সদস‍্যদের লক্ষ করলে দেখা যাবে, অনেকেই এক বার বসলে উঠতে পারেন না। আবার বসতে গেলেও সহজে তা পারেন না। বয়স বাড়লে হাঁটুতে ব‍্যথা হওয়া স্বাভাবিক। অনেকেই ভোগেন এই সমস‍্যায়। এই হাঁটুর ব‍্যথা অনেকেই বাতের ব‍্যথা হিসাবে চেনেন। তবে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় এরই নাম আর্থরাইটিস।

পরিসংখ‍্যান বলছে, আর্থ্রাইটিসে আক্রান্তের সংখ‍্যা কয়েক কোটি। তবে পুরুষদের তুলনায় ৬০ বছর এবং তার বেশি বয়সি মহিলারা আর্থ্রাইটিসে বেশি আক্রান্ত হন। আর্থ্রাইটিসের যন্ত্রণা অত‍্যন্ত কষ্টদায়ক। যে বয়সেই ধরা পড়ুক এই রোগ, নিজের বাড়তি খেয়াল রাখা জরুরি।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, কয়েকটি সাবধানতা মেনে চললে ব‍্যথায় কাতর হয়ে গৃহবন্দী থাকতে হয় না। ব‍্যথা কমানোর অন‍্যতম উপায় হল ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা। আর্থ্রাইটিসের সবচেয়ে বড় ওষুধ হল ওজন কমানো। ওজন ঝরানো আর্থ্রাইটিসের ক্ষেত্রে কতটা গুরুত্বপূর্ণ?

১) বেশি নয়, মাত্র ১০ শতাংশ ওজন কমালেই আর্থ্রাইটিসের ব‍্যথা হাতের মুঠোয় রাখা সম্ভব। হাঁটুর উপর দাঁড়িয়ে থাকে শরীর। ফলে শরীরের ওজন যদি বেশি হয়, বাড়তি ভার সইতে হয় হাঁটুকেই। আর্থ্রাইটিসের আশঙ্কা এতে বাড়ে, সেই সঙ্গে ওষুধ খেয়েও কমতে চায় না ব‍্যথা। তাই আর্থরাইটিস ধরা পড়লে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

২) পেশি সচল রাখতেও ওজন কমানো প্রয়োজন। বেশি ওজন হলে শরীরে পেশি তার নিজস্ব স্থিতিস্থাপকতা হারায়। ফলে ব‍্যথা বেশি হয়। আর্থ্রাইটিসের ক্ষেত্রে পেশি সচল রাখা জরুরি।

৩) ওজন যদি বেশি হয়, সে ক্ষেত্রে আর্থ্রাইটিসের হাত ধরেই জন্ম নিতে আরও অনেক রোগ। হাড় ক্ষয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে হাঁটাচলা বন্ধ হয়ে যাওয়া— নেপথ‍্যে রয়েছে অতিরিক্ত ওজন।

৪) আর্থ্রাইটিসের ক্ষেত্রে অনেক সময় হাঁটুতে অস্ত্রোপচারের দরকার হয়। তা করতেও কিন্তু ওজন রাখতে হবে হাতের মুঠোয়। সূত্র: আনন্দবাজার

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

খালেদা জিয়া মুচলেকা দিয়েছেন, আ: লীগের সাংসদের এমন দাবি ভিত্তিহীন: মির্জা ফখরুল

আর্থ্রাইটিসের সবচেয়ে বড় ওষুধ ওজন কমানো

প্রকাশের সময় : ০৫:৩৪:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৩

বাড়ির বয়স্ক সদস‍্যদের লক্ষ করলে দেখা যাবে, অনেকেই এক বার বসলে উঠতে পারেন না। আবার বসতে গেলেও সহজে তা পারেন না। বয়স বাড়লে হাঁটুতে ব‍্যথা হওয়া স্বাভাবিক। অনেকেই ভোগেন এই সমস‍্যায়। এই হাঁটুর ব‍্যথা অনেকেই বাতের ব‍্যথা হিসাবে চেনেন। তবে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় এরই নাম আর্থরাইটিস।

পরিসংখ‍্যান বলছে, আর্থ্রাইটিসে আক্রান্তের সংখ‍্যা কয়েক কোটি। তবে পুরুষদের তুলনায় ৬০ বছর এবং তার বেশি বয়সি মহিলারা আর্থ্রাইটিসে বেশি আক্রান্ত হন। আর্থ্রাইটিসের যন্ত্রণা অত‍্যন্ত কষ্টদায়ক। যে বয়সেই ধরা পড়ুক এই রোগ, নিজের বাড়তি খেয়াল রাখা জরুরি।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, কয়েকটি সাবধানতা মেনে চললে ব‍্যথায় কাতর হয়ে গৃহবন্দী থাকতে হয় না। ব‍্যথা কমানোর অন‍্যতম উপায় হল ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা। আর্থ্রাইটিসের সবচেয়ে বড় ওষুধ হল ওজন কমানো। ওজন ঝরানো আর্থ্রাইটিসের ক্ষেত্রে কতটা গুরুত্বপূর্ণ?

১) বেশি নয়, মাত্র ১০ শতাংশ ওজন কমালেই আর্থ্রাইটিসের ব‍্যথা হাতের মুঠোয় রাখা সম্ভব। হাঁটুর উপর দাঁড়িয়ে থাকে শরীর। ফলে শরীরের ওজন যদি বেশি হয়, বাড়তি ভার সইতে হয় হাঁটুকেই। আর্থ্রাইটিসের আশঙ্কা এতে বাড়ে, সেই সঙ্গে ওষুধ খেয়েও কমতে চায় না ব‍্যথা। তাই আর্থরাইটিস ধরা পড়লে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

২) পেশি সচল রাখতেও ওজন কমানো প্রয়োজন। বেশি ওজন হলে শরীরে পেশি তার নিজস্ব স্থিতিস্থাপকতা হারায়। ফলে ব‍্যথা বেশি হয়। আর্থ্রাইটিসের ক্ষেত্রে পেশি সচল রাখা জরুরি।

৩) ওজন যদি বেশি হয়, সে ক্ষেত্রে আর্থ্রাইটিসের হাত ধরেই জন্ম নিতে আরও অনেক রোগ। হাড় ক্ষয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে হাঁটাচলা বন্ধ হয়ে যাওয়া— নেপথ‍্যে রয়েছে অতিরিক্ত ওজন।

৪) আর্থ্রাইটিসের ক্ষেত্রে অনেক সময় হাঁটুতে অস্ত্রোপচারের দরকার হয়। তা করতেও কিন্তু ওজন রাখতে হবে হাতের মুঠোয়। সূত্র: আনন্দবাজার