শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে ১০ গ্রামের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৪০

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে ১০ গ্রামের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ অন্তত ৪০ জন আহত হয়েছেন।

চাঁদাবাজি-নাশকতা মামলায় সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ গ্রেপ্তার মুখোশ পরে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম, আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা রাজধানীতে বিস্ফোরণ, আহত ৪ মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ১০টি গ্রামের মধ্যে দফায় দফায় এ সংঘর্ষ হয়।

সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করতে ৫৪ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। এসময় হামলাকারীরা ৩/৪টি দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করে। সংঘর্ষে আহতদের ভাঙ্গা ও ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টার সময় ভাঙ্গা কে, এম কলেজ মাঠে পৌরসভা ও আলগী ইউনিয়নের কিছু যুবকদের মধ্যে ক্রিকেট খেলা নিয়ে প্রথমে মারামারির সূত্র হয়। পরে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৌরসভার কাপুড়িয়া সদরদী, হোগলাডাঙ্গি সদরদীসহ আশপাশের গ্রাম ও আলগী ইউনিয়নের সোনাখোলা, মাজারদিয়া, বালিয়াচরাসহ আশপাশের গ্রাম দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বেলা ১২টা থেকে চলা সংঘর্ষ ৩টা পর্যন্ত দুই পক্ষে ১০টি গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও ইটপটকেল নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু করে। পুলিশের ভূমিকায় বড় ধরনের ক্ষতি থেকে শত শত দোকান পাট রক্ষা পায়।

এব্যাপারে ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়ারুল ইসলাম জানান, সকালে কয়েকজন যুবক ছেলেদের কে, এম কলেজ মাঠে ক্রিকেট খেলা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। পরে তাদের অবিভাবকেরা মাইকে ঘোষণা দিয়ে সংঘর্ষ জড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৫৪ রাউন্ড গুলি ছুড়তে বাধ্য হই। এখন পর্যন্ত কোন পক্ষেই অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এলাকায় পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

‘পাঠান’ দিয়ে ৩২ বছর পর কাশ্মীরের সিনেমা হল হাউসফুল

ফরিদপুরে ১০ গ্রামের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৪০

প্রকাশের সময় : ০৭:৫৯:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে ১০ গ্রামের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ অন্তত ৪০ জন আহত হয়েছেন।

চাঁদাবাজি-নাশকতা মামলায় সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ গ্রেপ্তার মুখোশ পরে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম, আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা রাজধানীতে বিস্ফোরণ, আহত ৪ মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ১০টি গ্রামের মধ্যে দফায় দফায় এ সংঘর্ষ হয়।

সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করতে ৫৪ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। এসময় হামলাকারীরা ৩/৪টি দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করে। সংঘর্ষে আহতদের ভাঙ্গা ও ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টার সময় ভাঙ্গা কে, এম কলেজ মাঠে পৌরসভা ও আলগী ইউনিয়নের কিছু যুবকদের মধ্যে ক্রিকেট খেলা নিয়ে প্রথমে মারামারির সূত্র হয়। পরে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৌরসভার কাপুড়িয়া সদরদী, হোগলাডাঙ্গি সদরদীসহ আশপাশের গ্রাম ও আলগী ইউনিয়নের সোনাখোলা, মাজারদিয়া, বালিয়াচরাসহ আশপাশের গ্রাম দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বেলা ১২টা থেকে চলা সংঘর্ষ ৩টা পর্যন্ত দুই পক্ষে ১০টি গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও ইটপটকেল নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু করে। পুলিশের ভূমিকায় বড় ধরনের ক্ষতি থেকে শত শত দোকান পাট রক্ষা পায়।

এব্যাপারে ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়ারুল ইসলাম জানান, সকালে কয়েকজন যুবক ছেলেদের কে, এম কলেজ মাঠে ক্রিকেট খেলা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। পরে তাদের অবিভাবকেরা মাইকে ঘোষণা দিয়ে সংঘর্ষ জড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৫৪ রাউন্ড গুলি ছুড়তে বাধ্য হই। এখন পর্যন্ত কোন পক্ষেই অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এলাকায় পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।