বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩, ৯ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অলিম্পিকে রাশিয়ার অংশগ্রহণ রুখতে মরিয়া ইউক্রেন

২০২৪ সালে প্যারিসে আয়োজিত অলিম্পিকে যাতে কোনো রুশ অ্যাথলেট যোগ দিতে না পারেন, সেই দাবি জানিয়ে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটিকে চিঠি পাঠিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। খবর সিএনএনের।

ইউক্রেনের ক্রীড়ামন্ত্রী ভাদিম গুত্তাসেট জানিয়েছেন, অলিম্পিকে যদি বেলারুশ ও রাশিয়ার অ্যাথলেটরা অংশ নেন, তা হলে ইউক্রেন অংশ নেবে না।

রাশিয়ার ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বেশ কয়েকটি খেলায় অংশগ্রহণ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি জানিয়েছে, দুই দেশের খেলোয়াড়দেরই অলিম্পিকের মঞ্চে দেখতে চান তারা।

রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’ আখ্যা দিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, রাশিয়ার যে কোনো নিরপেক্ষ পতাকাতেই রক্তের দাগ লেগে থাকবে। আর অলিম্পিকের নীতি ও যুদ্ধ একে অপরের বিরোধী।

রুশ অ্যাথলেটদের অলিম্পিক থেকে বাদ দিতে জেলেনস্কির পাঁয়তারার বিষয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাকারোভা বলেন, কোনো আন্তর্জাতিক খেলার আসর থেকে মস্কোকে সরানোর যে কোনো উদ্যোগও বিফলে যাবে।

জনপ্রিয়

অলিম্পিকে রাশিয়ার অংশগ্রহণ রুখতে মরিয়া ইউক্রেন

প্রকাশের সময় : ০৪:৩০:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩

২০২৪ সালে প্যারিসে আয়োজিত অলিম্পিকে যাতে কোনো রুশ অ্যাথলেট যোগ দিতে না পারেন, সেই দাবি জানিয়ে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটিকে চিঠি পাঠিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। খবর সিএনএনের।

ইউক্রেনের ক্রীড়ামন্ত্রী ভাদিম গুত্তাসেট জানিয়েছেন, অলিম্পিকে যদি বেলারুশ ও রাশিয়ার অ্যাথলেটরা অংশ নেন, তা হলে ইউক্রেন অংশ নেবে না।

রাশিয়ার ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বেশ কয়েকটি খেলায় অংশগ্রহণ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি জানিয়েছে, দুই দেশের খেলোয়াড়দেরই অলিম্পিকের মঞ্চে দেখতে চান তারা।

রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’ আখ্যা দিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, রাশিয়ার যে কোনো নিরপেক্ষ পতাকাতেই রক্তের দাগ লেগে থাকবে। আর অলিম্পিকের নীতি ও যুদ্ধ একে অপরের বিরোধী।

রুশ অ্যাথলেটদের অলিম্পিক থেকে বাদ দিতে জেলেনস্কির পাঁয়তারার বিষয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাকারোভা বলেন, কোনো আন্তর্জাতিক খেলার আসর থেকে মস্কোকে সরানোর যে কোনো উদ্যোগও বিফলে যাবে।