শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্যারিসে অলিম্পিক বয়কট করতে পারে ৪০টি দেশ

আগামী বছরে অলিম্পিক বসতে চলেছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। সেখানে রাশিয়া ও বেলারুশদের ক্রীড়াবিদদের খেলতে দিলে অন্তত ৪০টি দেশ সেই আসর বয়কট করতে পারে। এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পোল্যান্ডের ক্রীড়া ও পর্যটনমন্ত্রী কামিল বোরনিউক।
তার মতে, রাশিয়া ও বেলারুশের ক্রীড়াবিদদের খেলতে দিলে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডাসহ বিপুলসংখ্যক দেশের জোট প্যারিস অলিম্পিকে অংশ নেবে না। তবে যেকোনো ধরনের বয়কটে খেলোয়াড়দের ক্ষতিই করা হয়, মনে করিয়ে দিয়ে সম্ভাব্য বয়কটকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)।
শুধু ইউক্রেন নয়, অন্তত ৪০টি দেশ প্যারিস অলিম্পিক বয়কট করতে পারে জানিয়ে বৃহস্পতিবার পোল্যান্ডের ক্রীড়ামন্ত্রী বলেন, ‘যদি অলিম্পিক গেমস বয়কট করতে হয়, আমরা সেই জোটের অংশ হব। আর জোটগত বয়কট হলে গেমস আয়োজন গুরুত্বহীন হয়ে পড়বে।’
বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ২০২৪ অলিম্পিকে রাশিয়া ও বেলারুশের খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণের সুযোগ দিতে চায় আইওসি। ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোয় রাশিয়া এখন আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে নিষিদ্ধ। যুদ্ধে রাশিয়ার সহযোগী বেলারুশকেও বয়কট করেছে ইউরোপের কয়েকটি দেশ। এমন অবস্থায় দেশ দুটির খেলোয়াড়দের অলিম্পিকে খেলতে দেওয়ার বিপক্ষে দেশগুলো। তবে আইওসি চায় ‘নিরপেক্ষ পতাকা’য় খেলোয়াড়দের সুযোগ দিতে।
‘পাসপোর্টের কারণে কোনো ক্রীড়াবিদকে প্রতিযোগিতার বাইরে রাখা উচিত নয়’ এমন প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে একটি পরিকল্পনাপত্র প্রকাশ করা হয়েছে গত সপ্তাহে।
তবে এই পত্রের নিন্দা করে যুক্তরাজ্যের সাংস্কৃতিক মন্ত্রী মিচেল ডোনেলান বলেন, ‘পরিকল্পনাটি এমনভাবে করা হয়েছে, যেন পৃথিবী এখন যুদ্ধ-বাস্তবতার বাইরে। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট প্যারিস অলিম্পিক বয়কটেরই হুমকি দিয়েছেন।’
যদিও যুক্তরাষ্ট্রের হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি ক্যারিন ইয়ান-পিয়েরে অবশ্য আইওসির পরিকল্পনার পক্ষে তার দেশের সায় আছে বলে জানিয়েছেন, ‘এটি নিশ্চিত করতে হবে যেন কোনো খেলোয়াড় রাশিয়া বা বেলারুশের প্রতিনিধিত্ব করতে না পারে।’
এরই মধ্যে রাশিয়া ও বেলারুশের খেলোয়াড়দের নিরপেক্ষ পতাকায় খেলতে দেওয়ার পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছে লাটভিয়া, লিথায়ানিয়া, এস্তোনিয়া ও পোল্যান্ড।

প্যারিসে অলিম্পিক বয়কট করতে পারে ৪০টি দেশ

প্রকাশের সময় : ০৮:৫৬:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

আগামী বছরে অলিম্পিক বসতে চলেছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। সেখানে রাশিয়া ও বেলারুশদের ক্রীড়াবিদদের খেলতে দিলে অন্তত ৪০টি দেশ সেই আসর বয়কট করতে পারে। এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পোল্যান্ডের ক্রীড়া ও পর্যটনমন্ত্রী কামিল বোরনিউক।
তার মতে, রাশিয়া ও বেলারুশের ক্রীড়াবিদদের খেলতে দিলে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডাসহ বিপুলসংখ্যক দেশের জোট প্যারিস অলিম্পিকে অংশ নেবে না। তবে যেকোনো ধরনের বয়কটে খেলোয়াড়দের ক্ষতিই করা হয়, মনে করিয়ে দিয়ে সম্ভাব্য বয়কটকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)।
শুধু ইউক্রেন নয়, অন্তত ৪০টি দেশ প্যারিস অলিম্পিক বয়কট করতে পারে জানিয়ে বৃহস্পতিবার পোল্যান্ডের ক্রীড়ামন্ত্রী বলেন, ‘যদি অলিম্পিক গেমস বয়কট করতে হয়, আমরা সেই জোটের অংশ হব। আর জোটগত বয়কট হলে গেমস আয়োজন গুরুত্বহীন হয়ে পড়বে।’
বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ২০২৪ অলিম্পিকে রাশিয়া ও বেলারুশের খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণের সুযোগ দিতে চায় আইওসি। ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোয় রাশিয়া এখন আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে নিষিদ্ধ। যুদ্ধে রাশিয়ার সহযোগী বেলারুশকেও বয়কট করেছে ইউরোপের কয়েকটি দেশ। এমন অবস্থায় দেশ দুটির খেলোয়াড়দের অলিম্পিকে খেলতে দেওয়ার বিপক্ষে দেশগুলো। তবে আইওসি চায় ‘নিরপেক্ষ পতাকা’য় খেলোয়াড়দের সুযোগ দিতে।
‘পাসপোর্টের কারণে কোনো ক্রীড়াবিদকে প্রতিযোগিতার বাইরে রাখা উচিত নয়’ এমন প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে একটি পরিকল্পনাপত্র প্রকাশ করা হয়েছে গত সপ্তাহে।
তবে এই পত্রের নিন্দা করে যুক্তরাজ্যের সাংস্কৃতিক মন্ত্রী মিচেল ডোনেলান বলেন, ‘পরিকল্পনাটি এমনভাবে করা হয়েছে, যেন পৃথিবী এখন যুদ্ধ-বাস্তবতার বাইরে। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট প্যারিস অলিম্পিক বয়কটেরই হুমকি দিয়েছেন।’
যদিও যুক্তরাষ্ট্রের হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি ক্যারিন ইয়ান-পিয়েরে অবশ্য আইওসির পরিকল্পনার পক্ষে তার দেশের সায় আছে বলে জানিয়েছেন, ‘এটি নিশ্চিত করতে হবে যেন কোনো খেলোয়াড় রাশিয়া বা বেলারুশের প্রতিনিধিত্ব করতে না পারে।’
এরই মধ্যে রাশিয়া ও বেলারুশের খেলোয়াড়দের নিরপেক্ষ পতাকায় খেলতে দেওয়ার পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছে লাটভিয়া, লিথায়ানিয়া, এস্তোনিয়া ও পোল্যান্ড।