বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩, ৯ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হাজারো বন্দিকে ক্ষমা ঘোষণা করলেন আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি

হাজারো বন্দিকে ক্ষমা ঘোষণা করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি। দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, সম্প্রতি দেশটিতে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা লঙ্ঘনের অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া অনেক ব্যক্তিই এ ক্ষমা পাচ্ছেন। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ইরনার বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা।

খবরে বলা হয়, বিদেশিদের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি, বিদেশি গোয়েন্দাদের সরাসরি সহযোগিতা, ইচ্ছাকৃত খুন ও কাউকে আহত করা, রাষ্ট্রীয় সম্পদের ক্ষতি ও লুটপাটের অভিযোগ এবং কারো বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত মামলা না থাকলে গ্রেফতার ব্যক্তিদের ক্ষমা করা হচ্ছে। ১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে এ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়।

ইরানের মানবাধিকারকর্মীদের প্রতিষ্ঠা করা হিউম্যান রাইটস অ্যাক্টিভিস্ট নিউজ এজেন্সির (এইচআরএএনএ) তথ্য অনুযায়ী, গত সেপ্টেম্বরে দেশটির নীতি পুলিশের হেফাজতে কুর্দি তরুণী মাসা আমিনির মৃত্যুর পর দেশজুড়ে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। এরপর ২০ হাজারের বেশি মানুষকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ইরানের বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত করতে বন্দিদের ক্ষমা বা শাস্তি কমিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন ইরানের বিচার বিভাগীয় প্রধান গোলাম হোসেন মোহসেনি-এজেই। তার অনুরোধে সাড়া দিয়ে হাজারো বন্দিকে ক্ষমা ঘোষণা করেন খামেনি।

জনপ্রিয়

হাজারো বন্দিকে ক্ষমা ঘোষণা করলেন আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি

প্রকাশের সময় : ০৯:০৩:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

হাজারো বন্দিকে ক্ষমা ঘোষণা করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি। দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, সম্প্রতি দেশটিতে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা লঙ্ঘনের অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া অনেক ব্যক্তিই এ ক্ষমা পাচ্ছেন। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ইরনার বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা।

খবরে বলা হয়, বিদেশিদের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি, বিদেশি গোয়েন্দাদের সরাসরি সহযোগিতা, ইচ্ছাকৃত খুন ও কাউকে আহত করা, রাষ্ট্রীয় সম্পদের ক্ষতি ও লুটপাটের অভিযোগ এবং কারো বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত মামলা না থাকলে গ্রেফতার ব্যক্তিদের ক্ষমা করা হচ্ছে। ১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে এ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়।

ইরানের মানবাধিকারকর্মীদের প্রতিষ্ঠা করা হিউম্যান রাইটস অ্যাক্টিভিস্ট নিউজ এজেন্সির (এইচআরএএনএ) তথ্য অনুযায়ী, গত সেপ্টেম্বরে দেশটির নীতি পুলিশের হেফাজতে কুর্দি তরুণী মাসা আমিনির মৃত্যুর পর দেশজুড়ে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। এরপর ২০ হাজারের বেশি মানুষকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ইরানের বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত করতে বন্দিদের ক্ষমা বা শাস্তি কমিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন ইরানের বিচার বিভাগীয় প্রধান গোলাম হোসেন মোহসেনি-এজেই। তার অনুরোধে সাড়া দিয়ে হাজারো বন্দিকে ক্ষমা ঘোষণা করেন খামেনি।