রবিবার, ২৮ মে ২০২৩, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবে কক্সবাজারের ২ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবে কক্সবাজারের ২ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক শাহিন ইমরান। এ ছাড়া ঘূর্ণিঝড়ে জেলার আরো ১০ হাজার ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান তিনি। রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে তিনি সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।
জেলা প্রশাসক বলেন, ঘূণিঝড় মোখার প্রভাবে জেলার অন্তত: ২ হাজার ঘরবাড়ি পুরোপুরি ভেঙে গেছে। এ ছাড়া ১০ হাজার ঘর আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি আরো জানান, ঘূর্ণিঝড়ে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন দ্বীপে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে। শুধু সেন্ট মার্টিন দ্বীপের ১ হাজার ২০০ ঘরবাড়ি পুরোপুরি লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে।
ঘূর্ণিঝড়ে বেশ কয়েকজনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে বলেও জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। তবে এখন পর্যন্ত কেউ নিহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

 

মহাশক্তিশালী সুপার টাইফুন ‘বেটি’ধেয়ে আসছে প্রবল শক্তিতে

ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবে কক্সবাজারের ২ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

প্রকাশের সময় : ১২:০৫:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩
ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবে কক্সবাজারের ২ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক শাহিন ইমরান। এ ছাড়া ঘূর্ণিঝড়ে জেলার আরো ১০ হাজার ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান তিনি। রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে তিনি সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।
জেলা প্রশাসক বলেন, ঘূণিঝড় মোখার প্রভাবে জেলার অন্তত: ২ হাজার ঘরবাড়ি পুরোপুরি ভেঙে গেছে। এ ছাড়া ১০ হাজার ঘর আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি আরো জানান, ঘূর্ণিঝড়ে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন দ্বীপে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে। শুধু সেন্ট মার্টিন দ্বীপের ১ হাজার ২০০ ঘরবাড়ি পুরোপুরি লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে।
ঘূর্ণিঝড়ে বেশ কয়েকজনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে বলেও জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। তবে এখন পর্যন্ত কেউ নিহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।