বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বব্যাপী এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে –রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দাবি করে বলেন, ‘ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাপী এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। গণতান্ত্রিক বিশ্বকে উপেক্ষা করে তথাকথিত এই ভোট রঙ্গ দেশকে ভয়ঙ্কর বিপদের মুখে নিয়ে যাচ্ছে।’ 

শনিবার (৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ভার্চুয়ালি এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

রিজভী বলেন, ‘বাংলাদেশের ইতিহাসে আগামীকাল ৭ জানুয়ারি আরও একটি একতরফা পাতানো নির্বাচনের সবচেয়ে অন্ধকারময়-তিমিরাচ্ছন্ন অধ্যায় রচিত হতে যাচ্ছে। আজ এক কঠিন সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে প্রিয় মাতৃভূমি। দেশ এক গভীর ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইতোমধ্যে তামাশার ভোটের একদিন আগেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রোববারের ভোটের ব্যালট পেপারে নৌকায় সিল মারা ছবি দিয়ে পোস্ট করছে আওয়ামী লীগের লোকজন। এসব ছবি প্রমাণ করে কী ধরনের নির্বাচনী তামাশা মঞ্চস্থ হতে যাচ্ছে।’

ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘রাষ্ট্রের একজন নাগরিক হিসেবে যারা আপনাকে গত ১৫ বছর অধিকারবঞ্চিত রেখেছে, তাদেরকে আপনি ৭ জানুয়ারি রোববার অন্তত একদিন বয়কট করুন। বিশ্বাস রাখুন, আপনার এই একদিনের সিদ্ধান্তেই বাংলাদেশে ফ্যাসিবাদী সরকারের কবর রচিত হবে। স্বাধীনতার সম্মান-গৌরব-মর্যাদা ফিরে পাবে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত লাল-সবুজের পতাকা।’

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মোহাম্মদ নবী উল্লাহ নবীসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি আরও বলেন, ‘সম্পূর্ণ বিনা অপরাধে তাদের তুলে নিয়ে গেছে ডিবি পুলিশ। এখন তাদেরকে নৃশংস নির্যাতন করে ট্রেনে আগুন লাগানোর দোষ চাপাচ্ছে বিএনপির ওপর। প্রতিটি নাশকতার ঘটনার পর বিএনপির ওপর দোষ চাপানো আওয়ামী লীগ ও পুলিশ প্রশাসনের মজ্জাগত বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

রিজভী আরও জানান, গত ৪৮ ঘণ্টায় বিএনপির ২৫৫ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আহত হয়েছে ৬০ জন, মামলা করা হয়েছে ১৬টি। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ১৩৫৫ জন নেতাকর্মীকে।

বিশ্বব্যাপী এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে –রিজভী

প্রকাশের সময় : ০৮:৪৫:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৪

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দাবি করে বলেন, ‘ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাপী এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। গণতান্ত্রিক বিশ্বকে উপেক্ষা করে তথাকথিত এই ভোট রঙ্গ দেশকে ভয়ঙ্কর বিপদের মুখে নিয়ে যাচ্ছে।’ 

শনিবার (৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ভার্চুয়ালি এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

রিজভী বলেন, ‘বাংলাদেশের ইতিহাসে আগামীকাল ৭ জানুয়ারি আরও একটি একতরফা পাতানো নির্বাচনের সবচেয়ে অন্ধকারময়-তিমিরাচ্ছন্ন অধ্যায় রচিত হতে যাচ্ছে। আজ এক কঠিন সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে প্রিয় মাতৃভূমি। দেশ এক গভীর ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইতোমধ্যে তামাশার ভোটের একদিন আগেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রোববারের ভোটের ব্যালট পেপারে নৌকায় সিল মারা ছবি দিয়ে পোস্ট করছে আওয়ামী লীগের লোকজন। এসব ছবি প্রমাণ করে কী ধরনের নির্বাচনী তামাশা মঞ্চস্থ হতে যাচ্ছে।’

ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘রাষ্ট্রের একজন নাগরিক হিসেবে যারা আপনাকে গত ১৫ বছর অধিকারবঞ্চিত রেখেছে, তাদেরকে আপনি ৭ জানুয়ারি রোববার অন্তত একদিন বয়কট করুন। বিশ্বাস রাখুন, আপনার এই একদিনের সিদ্ধান্তেই বাংলাদেশে ফ্যাসিবাদী সরকারের কবর রচিত হবে। স্বাধীনতার সম্মান-গৌরব-মর্যাদা ফিরে পাবে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত লাল-সবুজের পতাকা।’

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মোহাম্মদ নবী উল্লাহ নবীসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি আরও বলেন, ‘সম্পূর্ণ বিনা অপরাধে তাদের তুলে নিয়ে গেছে ডিবি পুলিশ। এখন তাদেরকে নৃশংস নির্যাতন করে ট্রেনে আগুন লাগানোর দোষ চাপাচ্ছে বিএনপির ওপর। প্রতিটি নাশকতার ঘটনার পর বিএনপির ওপর দোষ চাপানো আওয়ামী লীগ ও পুলিশ প্রশাসনের মজ্জাগত বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

রিজভী আরও জানান, গত ৪৮ ঘণ্টায় বিএনপির ২৫৫ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আহত হয়েছে ৬০ জন, মামলা করা হয়েছে ১৬টি। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ১৩৫৫ জন নেতাকর্মীকে।