বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্বাচনে সারাদেশে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে–সিইসি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী সারা দেশে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। একই সঙ্গে তিনি জানান, এই সংখ্যা বাড়তে পারে বা কমতেও পারে।

রবিবার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। ভোটগ্রহণ শেষে সন্ধ্যার দিকে ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

এর আগে বিকালের দিকে বেলা ৩টা পর্যন্ত ২৭ শতাংশ ভোট পড়ার তথ্য জানিয়েছিলেন নির্বাচন কমিশনের সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘সারা দেশে প্রায় ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে। এখন পর্যন্ত এটাই নির্ভরযোগ্য তথ্য। পরে সব তথ্য যোগ হলে এই পরিসংখ্যান বাড়তে বা কমতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচনে কোনো ধরনের সহিংসতা বা গুরুতর কোনো ঘটনা ঘটেনি। যখনই আমরা কোনো তথ্য পেয়েছি তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। শেষ মুহূর্তে একজন প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।’

ভোটকেন্দ্রে অনিয়ম নিয়ে সিইসি বলেন, ‘জাল ভোটসহ নানা অনিয়মের কারণে কয়েকটি কেন্দ্রে ভোট বাতিল করা হয়েছে। কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর প্রার্থীতা বাতিল নিয়ে তিনি বলেন, ‘একাধিকবার নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে দুর্ব্যবহারের কারণে নির্বাচন কমিশন সর্বসম্মতিক্রমে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে। গণপ্রজাতন্ত্রী আদেশের ৯১ ই (২) ধারার বিধান অনুসারে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়। এর আগে কোনো নির্বাচনে ভোট চলাকালে কারো প্রার্থীতা বাতিলের ঘটনা ঘটেনি।’

নির্বাচনে সারাদেশে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে–সিইসি

প্রকাশের সময় : ০৬:০৯:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী সারা দেশে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। একই সঙ্গে তিনি জানান, এই সংখ্যা বাড়তে পারে বা কমতেও পারে।

রবিবার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। ভোটগ্রহণ শেষে সন্ধ্যার দিকে ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

এর আগে বিকালের দিকে বেলা ৩টা পর্যন্ত ২৭ শতাংশ ভোট পড়ার তথ্য জানিয়েছিলেন নির্বাচন কমিশনের সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘সারা দেশে প্রায় ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে। এখন পর্যন্ত এটাই নির্ভরযোগ্য তথ্য। পরে সব তথ্য যোগ হলে এই পরিসংখ্যান বাড়তে বা কমতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচনে কোনো ধরনের সহিংসতা বা গুরুতর কোনো ঘটনা ঘটেনি। যখনই আমরা কোনো তথ্য পেয়েছি তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। শেষ মুহূর্তে একজন প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।’

ভোটকেন্দ্রে অনিয়ম নিয়ে সিইসি বলেন, ‘জাল ভোটসহ নানা অনিয়মের কারণে কয়েকটি কেন্দ্রে ভোট বাতিল করা হয়েছে। কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর প্রার্থীতা বাতিল নিয়ে তিনি বলেন, ‘একাধিকবার নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে দুর্ব্যবহারের কারণে নির্বাচন কমিশন সর্বসম্মতিক্রমে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে। গণপ্রজাতন্ত্রী আদেশের ৯১ ই (২) ধারার বিধান অনুসারে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়। এর আগে কোনো নির্বাচনে ভোট চলাকালে কারো প্রার্থীতা বাতিলের ঘটনা ঘটেনি।’