বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যশোর-১ আসনে বিজয়ী হলেন নৌকার প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দিন

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে যশোর-১ (শার্শা) আসনে জয়ী হলেন নৌকার প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দিন। এবার নিয়ে পর পর চার বার এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন তিনি। এবারের নির্বাচনে তিনি ১ লাখ ৫ হাজার ৪৬৬ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। আফিল উদ্দিনের নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী বেনাপোলের সাবেক মেয়র আশরাফুল আলম লিটন পেয়েছেন ১৯ হাজার ৪৭৭ ভোট। অপর প্রার্থী জাতীয় পার্টির মো: আক্তারুজ্জামান লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন দুই হাজার ১৫১ ভোট।

সহকারী রির্টানিং অফিসার ও শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নয়ন কুমার রাজবংশী বেসরকারীভাবে শেখ আফিল উদ্দিনকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, কয়েকটি কেন্দ্রে বিচ্ছিন ঘটনা ঘটেছে।  ভোটারদের উপস্থিতি কম থাকলেও শান্তিপূর্ন পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ভোট গ্রহনের জন্য সব ধরনর প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়।

যশোর-১ শার্শা আসনটিতে একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। ১০২টি   ভোট কেন্দ্রের ৬৬১টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করা হয়। এ আসনে মোট দুই লাখ ৯৪ হাজার ৬৯২ জন ভোটারের মধ্যে এক লাখ ৪৭ হাজার ৫৭৬ জন পুরুষ ও এক লাখ ৪৭ হাজার ১১৬ জন মহিলা ভোটার রয়েছে।

সকাল ৮ টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয় এবং  শেষ হয় বিকাল ৪ টায়। শীতের  কারনে সকালে ভোট কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও পরে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে থাকে। বিচ্ছিন্ন দু‘একটি ঘটনা ছাড়া শার্শার সকল কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। 

এদিকে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সকাল  সাড়ে ১১ টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলম লিটন ৫৫টি কেন্দ্রে অনিয়ম, পোলিং এজেন্টদের  কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ এনে সাংবাদিক সন্মেলন করে  নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াান। নির্বাচনে জয়লাভের পর পরই শার্শা ও বেনাপোলের বিভিন্ন স্থানে বিজয় মিছিল বের করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন এলাকার নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান।

আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন বিজয়ের পর তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ বিজয় গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বিজয়। এ বিজয় জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা আর আকাঙ্খার প্রতিফলন। যশোর-১ আসনের সকল ভোটারের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানিয়ে তিনি বলেন, এ বিজয় আমার বিজয় নয়, শার্শাবাসীর বিজয়। আমার প্রতি শার্শাবাসী যে ভালোবাসা দিয়েছে, জীবনের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত আমি তার প্রতিদান দিয়ে যাব। দলের পক্ষ থেকে যেসব প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে তা বাস্তবায়নে সর্বদা সচেষ্ট থাকবো। এ জন্য তিনি শার্শাবাসীর দোয়া কামনা করেন।

যশোর-১ আসনে বিজয়ী হলেন নৌকার প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দিন

প্রকাশের সময় : ১০:০০:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে যশোর-১ (শার্শা) আসনে জয়ী হলেন নৌকার প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দিন। এবার নিয়ে পর পর চার বার এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন তিনি। এবারের নির্বাচনে তিনি ১ লাখ ৫ হাজার ৪৬৬ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। আফিল উদ্দিনের নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী বেনাপোলের সাবেক মেয়র আশরাফুল আলম লিটন পেয়েছেন ১৯ হাজার ৪৭৭ ভোট। অপর প্রার্থী জাতীয় পার্টির মো: আক্তারুজ্জামান লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন দুই হাজার ১৫১ ভোট।

সহকারী রির্টানিং অফিসার ও শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নয়ন কুমার রাজবংশী বেসরকারীভাবে শেখ আফিল উদ্দিনকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, কয়েকটি কেন্দ্রে বিচ্ছিন ঘটনা ঘটেছে।  ভোটারদের উপস্থিতি কম থাকলেও শান্তিপূর্ন পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ভোট গ্রহনের জন্য সব ধরনর প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়।

যশোর-১ শার্শা আসনটিতে একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। ১০২টি   ভোট কেন্দ্রের ৬৬১টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করা হয়। এ আসনে মোট দুই লাখ ৯৪ হাজার ৬৯২ জন ভোটারের মধ্যে এক লাখ ৪৭ হাজার ৫৭৬ জন পুরুষ ও এক লাখ ৪৭ হাজার ১১৬ জন মহিলা ভোটার রয়েছে।

সকাল ৮ টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয় এবং  শেষ হয় বিকাল ৪ টায়। শীতের  কারনে সকালে ভোট কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও পরে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে থাকে। বিচ্ছিন্ন দু‘একটি ঘটনা ছাড়া শার্শার সকল কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। 

এদিকে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সকাল  সাড়ে ১১ টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলম লিটন ৫৫টি কেন্দ্রে অনিয়ম, পোলিং এজেন্টদের  কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ এনে সাংবাদিক সন্মেলন করে  নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াান। নির্বাচনে জয়লাভের পর পরই শার্শা ও বেনাপোলের বিভিন্ন স্থানে বিজয় মিছিল বের করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন এলাকার নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান।

আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন বিজয়ের পর তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ বিজয় গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বিজয়। এ বিজয় জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা আর আকাঙ্খার প্রতিফলন। যশোর-১ আসনের সকল ভোটারের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানিয়ে তিনি বলেন, এ বিজয় আমার বিজয় নয়, শার্শাবাসীর বিজয়। আমার প্রতি শার্শাবাসী যে ভালোবাসা দিয়েছে, জীবনের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত আমি তার প্রতিদান দিয়ে যাব। দলের পক্ষ থেকে যেসব প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে তা বাস্তবায়নে সর্বদা সচেষ্ট থাকবো। এ জন্য তিনি শার্শাবাসীর দোয়া কামনা করেন।