বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম-৭’ চতুর্থবারের মতো জয়ী ড. হাছান মাহমুদ 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনিয়া-বোয়ালখালী আংশিক) আসনে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৯৭৬ ভোট পেয়ে চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী (নৌকার প্রতীক) ড. হাছান মাহমুদ।
রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। বিরতিহীনভাবে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এরপর শুরু হয় ভোট গণনার কাজ।
ভোট গণনা শেষে জানা গেছে এ আসনে নৌকা প্রতীকে ড. হাছান মাহমুদ পেয়েছেন ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৯৭৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ইসলামী ফ্রন্টের
মুহাম্মদ ইকবাল হাছান (মোমবাতি প্রতীক) পেয়েছেন ৯ হাজার ৩০১ভোট। এছাড়া জাতীয় পার্টির মুসা আহমেদ রানা (লাঙল) ২ হাজার ২০৬ , তৃণমূল বিএনপির খোরশেদ আলম (সোনালি আঁশ) ১ হাজার ৩৩১, ইসলামিক ফ্রন্টের আহমদ রেজা (চেয়ার) ১ হাজার ৩৯০, সুপ্রিম পার্টির মোরশেদ আলম (একতারা) ১ হাজার ১৩০ ভোট পেয়েছেন।
রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, বোয়ালখালীর ১টি ইউনিয়ন এবং রাঙ্গুনিয়ার ১টি পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম-৭ আসনে মোট এবারের ভোটারের সংখ্যা ৩ লাখ ১৩ হাজার ৯১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ৬৫ হাজার ১৫০ জন এবং নারী ভোটার ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ৯৪১ জন।
রাঙ্গুনিয়ায় ৯৫টি এবং বোয়ালখালী আংশিক অংশে ৮টিসহ মোট ১০৩টি ভোটকেন্দ্রে ১০৩ জন প্রিজাইডিং অফিসার এবং ৬২১ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ২৪২ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করেন। একই সাথে ৪ জনএক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, ২ জন জুডিশিয়াল মাজিস্ট্রেট, ৪ প্লাটুন বিজিবি এবং ২ প্লাটুন সেনাবাহিনীও দায়িত্ব পালন করেন।
প্রসঙ্গত, ড. হাছান মাহমুদ ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বিএনপি হেভিওয়েট প্রার্থী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে পরাজিত করে প্রথম বার এমপি নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৪ সালের নির্বাচনে ২য় বার ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে ৩য় বারের মতো এমপি হয়ে হ্যাটট্রিক এবং সর্বশেষ ২০১৪ সালের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়ে এমপি নির্বাচিত হন।

চট্টগ্রাম-৭’ চতুর্থবারের মতো জয়ী ড. হাছান মাহমুদ 

প্রকাশের সময় : ১১:০২:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনিয়া-বোয়ালখালী আংশিক) আসনে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৯৭৬ ভোট পেয়ে চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী (নৌকার প্রতীক) ড. হাছান মাহমুদ।
রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। বিরতিহীনভাবে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এরপর শুরু হয় ভোট গণনার কাজ।
ভোট গণনা শেষে জানা গেছে এ আসনে নৌকা প্রতীকে ড. হাছান মাহমুদ পেয়েছেন ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৯৭৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ইসলামী ফ্রন্টের
মুহাম্মদ ইকবাল হাছান (মোমবাতি প্রতীক) পেয়েছেন ৯ হাজার ৩০১ভোট। এছাড়া জাতীয় পার্টির মুসা আহমেদ রানা (লাঙল) ২ হাজার ২০৬ , তৃণমূল বিএনপির খোরশেদ আলম (সোনালি আঁশ) ১ হাজার ৩৩১, ইসলামিক ফ্রন্টের আহমদ রেজা (চেয়ার) ১ হাজার ৩৯০, সুপ্রিম পার্টির মোরশেদ আলম (একতারা) ১ হাজার ১৩০ ভোট পেয়েছেন।
রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, বোয়ালখালীর ১টি ইউনিয়ন এবং রাঙ্গুনিয়ার ১টি পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম-৭ আসনে মোট এবারের ভোটারের সংখ্যা ৩ লাখ ১৩ হাজার ৯১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ৬৫ হাজার ১৫০ জন এবং নারী ভোটার ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ৯৪১ জন।
রাঙ্গুনিয়ায় ৯৫টি এবং বোয়ালখালী আংশিক অংশে ৮টিসহ মোট ১০৩টি ভোটকেন্দ্রে ১০৩ জন প্রিজাইডিং অফিসার এবং ৬২১ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ২৪২ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করেন। একই সাথে ৪ জনএক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, ২ জন জুডিশিয়াল মাজিস্ট্রেট, ৪ প্লাটুন বিজিবি এবং ২ প্লাটুন সেনাবাহিনীও দায়িত্ব পালন করেন।
প্রসঙ্গত, ড. হাছান মাহমুদ ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বিএনপি হেভিওয়েট প্রার্থী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে পরাজিত করে প্রথম বার এমপি নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৪ সালের নির্বাচনে ২য় বার ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে ৩য় বারের মতো এমপি হয়ে হ্যাটট্রিক এবং সর্বশেষ ২০১৪ সালের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়ে এমপি নির্বাচিত হন।