বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শৈলকুপায় সাংবাদিককে প্রাণ নাশের হুমকী থানায় জিডি

ঝিনাইদহের শৈলকূপায় মাদক বিরোধী অভিযানের সংবাদ প্রকাশ করায় স্থানীয় সাংবাদিক শেখ ইমনের উপর হামলা ও হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান নওরোজের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বুধবার (২৪ জানুয়ারি) শৈলকূপা থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরি করেছেন বাংলা একাত্তরের সাংবাদিক শেখ ইমন। জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, বুধবার উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে সংবাদ সংগ্রহের কাজে গেলে নওরোজের সাথে দেখা হয়। এ সময় তিনি সংবাদ প্রকাশ করার জন্য অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। একপর্যায়ে উপজেলা পরিষদের দুইতলা থেকে ইমনের জামার কলার ধরে নিচে নামিয়ে নিয়ে এসে মারপিট করতে গেলে স্থানীয়রা তাকে বাঁধা দেয়। সাংবাদিক শেখ ইমন জানান, এ ঘটনার পর থেকে ‘আমি ও আমার পরিবার শংকার মধ্যে আছি। বিষয়টি থানায় অবগত করে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান নওরোজ কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। শৈলকূপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, সাংবাদিকদের পেশাগত কাজে বাঁধাদান করা কাম্য নয়। এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শৈলকুপায় সাংবাদিককে প্রাণ নাশের হুমকী থানায় জিডি

প্রকাশের সময় : ১০:০৯:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪
ঝিনাইদহের শৈলকূপায় মাদক বিরোধী অভিযানের সংবাদ প্রকাশ করায় স্থানীয় সাংবাদিক শেখ ইমনের উপর হামলা ও হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান নওরোজের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বুধবার (২৪ জানুয়ারি) শৈলকূপা থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরি করেছেন বাংলা একাত্তরের সাংবাদিক শেখ ইমন। জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, বুধবার উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে সংবাদ সংগ্রহের কাজে গেলে নওরোজের সাথে দেখা হয়। এ সময় তিনি সংবাদ প্রকাশ করার জন্য অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। একপর্যায়ে উপজেলা পরিষদের দুইতলা থেকে ইমনের জামার কলার ধরে নিচে নামিয়ে নিয়ে এসে মারপিট করতে গেলে স্থানীয়রা তাকে বাঁধা দেয়। সাংবাদিক শেখ ইমন জানান, এ ঘটনার পর থেকে ‘আমি ও আমার পরিবার শংকার মধ্যে আছি। বিষয়টি থানায় অবগত করে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান নওরোজ কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। শৈলকূপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, সাংবাদিকদের পেশাগত কাজে বাঁধাদান করা কাম্য নয়। এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।