মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবার ইরাকে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে মধ্যপ্রাচ্যে বেশ সোচ্চার যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য দেশটিতে মূল্যও দিতে হয়েছে বেশ। তবে এসব পাশ কাটিয়ে এবার ইরাকে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, তাদের সেনারা ইরানপন্থি সশস্ত্র গোষ্ঠীদের লক্ষ্য করে ইরাকে হামলা চালিয়েছে। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন বলেন, কাতাইব হিজবুল্লাহকে লক্ষ্য করে এ হামলা চালানো হয়েছে।

তিনি বলেন, সিরিয়া ও ইরাকে মার্কিন জোটের সামরিক ঘাঁটিকে হামলার জবাবে পাল্টা এ হামলা চালানো হয়েছে।

ইরাকের এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, এ ধরনের হামলা ইরাকের সার্বভৌমত্বের স্পষ্ট লংঘন। দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা কাসেম আল-আরাজি বলেন, মার্কিন হামলা তাদের শান্তি ফেরাতে কোনো সাহায্য করেনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক পোস্টে তিনি জানান, ইরাকের জাতীয় সংস্থার ঘাঁটিকে নিশানা ও এগুলোতে বোমা হামলার পরিবর্তে গাজায় ইসরায়েলি আক্রমণ বন্ধের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের চাপ তৈরি করা উচিত।

এর আগে গত সপ্তাহে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলে সামরিক ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে করে বেশ কয়েকজন সেনা আহত হয়। মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ঘাঁটিতে হামলার কারণে সেনারা ব্রেনের আঘাতে ট্রমার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন।

পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয় এমন কাজ থেকে বিরত থাকুন- এসপি 

এবার ইরাকে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশের সময় : ০৯:৫১:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে মধ্যপ্রাচ্যে বেশ সোচ্চার যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য দেশটিতে মূল্যও দিতে হয়েছে বেশ। তবে এসব পাশ কাটিয়ে এবার ইরাকে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, তাদের সেনারা ইরানপন্থি সশস্ত্র গোষ্ঠীদের লক্ষ্য করে ইরাকে হামলা চালিয়েছে। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন বলেন, কাতাইব হিজবুল্লাহকে লক্ষ্য করে এ হামলা চালানো হয়েছে।

তিনি বলেন, সিরিয়া ও ইরাকে মার্কিন জোটের সামরিক ঘাঁটিকে হামলার জবাবে পাল্টা এ হামলা চালানো হয়েছে।

ইরাকের এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, এ ধরনের হামলা ইরাকের সার্বভৌমত্বের স্পষ্ট লংঘন। দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা কাসেম আল-আরাজি বলেন, মার্কিন হামলা তাদের শান্তি ফেরাতে কোনো সাহায্য করেনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক পোস্টে তিনি জানান, ইরাকের জাতীয় সংস্থার ঘাঁটিকে নিশানা ও এগুলোতে বোমা হামলার পরিবর্তে গাজায় ইসরায়েলি আক্রমণ বন্ধের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের চাপ তৈরি করা উচিত।

এর আগে গত সপ্তাহে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলে সামরিক ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে করে বেশ কয়েকজন সেনা আহত হয়। মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ঘাঁটিতে হামলার কারণে সেনারা ব্রেনের আঘাতে ট্রমার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন।