সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারে শিশু নারীসহ ৬ রোহিঙ্গা আটক

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মুন্সীবাজার বাজার এলাকা থেকে শিশুসহ ৬ রোহিঙ্গাকে আটক করেছেন স্থানীয়রা। বিষয়টি নিশ্চিত করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাহিদ আহমেদ তরফদার। বুধবার (২৪জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা মুন্সিবাজারের পাশে কৃষি জমি থেকে তাদের আটক করা হয়।
জানা যায়, রাত আনুমানিক ১০টার দিকে উপজেলার মুন্সিবাজারের পাশে কৃষি জমিতে দুইজন পুরুষ, দুইজন মহিলা ও দুই শিশুসহ মোট ৬ জনকে দেখে স্থানীয়রা। পরে তাদের কথাবার্তায় সন্দেহজনক হলে তাদের আটক করে স্থানীয় চেয়ারম্যানকে জানায় তারা। পরে চেয়ারম্যান সেখান থেকে তাদের নিয়ে আসেন চেয়ারম্যান মালিকানাধীন মেসার্স তুষার ফিলিং স্টেশনে। এসময় তাদের কাছে রোহিঙ্গা আইডি কার্ড পাওয়া যায়।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাহিদ আহমেদ তরফদার জানান, স্থানীয়রা শিশুসহ ৬ রোহিঙ্গা আটক করে আমায় খবর দেন। পরে আমি তাদের আটক করে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে আসি। তারপর কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ও ইউএনওকে অবগত করি।
তিনি আরও বলেন,একজন রোহিঙ্গা মহিলা ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তাদের কাছে রোহিঙ্গা পরিচয় পত্র পাওয়া যায়। তিনি আরও বলেন, দালাদের মাধ্যমে তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে চলে আসে হয়তো তাদের ভারত পাঠাতে পারে বলে ধারণা করছেন।
কমলগঞ্জ থানার ওসি সাইফুল আলম জানান, স্থানীয়রা আটক করে পুলিশ অবগত করলে থানার নিয়ে আসা হয়। তাদেরকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠানোর জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বিএনপির নেতাকর্মীদের কারাগারে প্রেরণ সরকারের প্রধান কর্মসূচি -মির্জা ফখরুল

মৌলভীবাজারে শিশু নারীসহ ৬ রোহিঙ্গা আটক

প্রকাশের সময় : ০৪:৩৭:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মুন্সীবাজার বাজার এলাকা থেকে শিশুসহ ৬ রোহিঙ্গাকে আটক করেছেন স্থানীয়রা। বিষয়টি নিশ্চিত করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাহিদ আহমেদ তরফদার। বুধবার (২৪জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা মুন্সিবাজারের পাশে কৃষি জমি থেকে তাদের আটক করা হয়।
জানা যায়, রাত আনুমানিক ১০টার দিকে উপজেলার মুন্সিবাজারের পাশে কৃষি জমিতে দুইজন পুরুষ, দুইজন মহিলা ও দুই শিশুসহ মোট ৬ জনকে দেখে স্থানীয়রা। পরে তাদের কথাবার্তায় সন্দেহজনক হলে তাদের আটক করে স্থানীয় চেয়ারম্যানকে জানায় তারা। পরে চেয়ারম্যান সেখান থেকে তাদের নিয়ে আসেন চেয়ারম্যান মালিকানাধীন মেসার্স তুষার ফিলিং স্টেশনে। এসময় তাদের কাছে রোহিঙ্গা আইডি কার্ড পাওয়া যায়।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাহিদ আহমেদ তরফদার জানান, স্থানীয়রা শিশুসহ ৬ রোহিঙ্গা আটক করে আমায় খবর দেন। পরে আমি তাদের আটক করে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে আসি। তারপর কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ও ইউএনওকে অবগত করি।
তিনি আরও বলেন,একজন রোহিঙ্গা মহিলা ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তাদের কাছে রোহিঙ্গা পরিচয় পত্র পাওয়া যায়। তিনি আরও বলেন, দালাদের মাধ্যমে তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে চলে আসে হয়তো তাদের ভারত পাঠাতে পারে বলে ধারণা করছেন।
কমলগঞ্জ থানার ওসি সাইফুল আলম জানান, স্থানীয়রা আটক করে পুলিশ অবগত করলে থানার নিয়ে আসা হয়। তাদেরকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠানোর জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।