মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাপা থেকে জিএম কাদের-চুন্নুকে অব্যাহতি দিলেন রওশন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে অব্যাহতি দিয়ে নিজেকে চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা করেছেন দলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ। পাশাপাশি কাজী মামুনুর রশীদকে পার্টি মহাসচিব হিসেবে ঘোষণা করেন।

রোববার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে গুলশানে রওশন এরশাদের বাসায় এক সভার আয়োজন করেন তিনি। এ সময় দলের বহিষ্কার, প্রত্যাহার হওয়া নেতাদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করেন।

তিনি বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অযোগ্য নেতৃত্ব ও ভুল সিদ্ধান্তের কারণে অভিভাবকহীন হয়ে পড়ে জাতীয় পার্টির তৃণমূল নেতাকর্মীরা। জাতীয় পার্টিতে এখন ক্রান্তিকাল বিরাজ করছে। দলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও কো- চেয়ারম্যান হওয়ায় আমি বেগম রওশন এরশাদ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি।

রওশন বলেন, অব্যাহতি আদেশ বাতিল করে ঐক্যবদ্ধ জাতীয় পার্টি করার আহ্বান জানিয়েছিলাম। কিন্তু তারা (জিএম কাদের-চুন্নু) তা আমলে নেননি। এরই ধারাবাহিকতা গত ২৫ জানুয়ারি জাপার তৃণমূলের ৬৬৮ নেতাকর্মী স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করে সংকট সৃষ্টি করেছেন।

তিনি বলেন, নেতাকর্মীদের অনুরোধে পার্টির গণতন্ত্রের ২০/১ ধারায় ক্ষমতাবলে আমি পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে জিএম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে অব্যাহতি দিলাম।

তিনি বলেন, যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের সপদে বহাল করা হবে। দ্রুতই পার্টির জাতীয় সম্মেলন আহ্বান করা হবে।

জাপা থেকে জিএম কাদের-চুন্নুকে অব্যাহতি দিলেন রওশন

প্রকাশের সময় : ০৩:১৭:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৪

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে অব্যাহতি দিয়ে নিজেকে চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা করেছেন দলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ। পাশাপাশি কাজী মামুনুর রশীদকে পার্টি মহাসচিব হিসেবে ঘোষণা করেন।

রোববার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে গুলশানে রওশন এরশাদের বাসায় এক সভার আয়োজন করেন তিনি। এ সময় দলের বহিষ্কার, প্রত্যাহার হওয়া নেতাদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করেন।

তিনি বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অযোগ্য নেতৃত্ব ও ভুল সিদ্ধান্তের কারণে অভিভাবকহীন হয়ে পড়ে জাতীয় পার্টির তৃণমূল নেতাকর্মীরা। জাতীয় পার্টিতে এখন ক্রান্তিকাল বিরাজ করছে। দলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও কো- চেয়ারম্যান হওয়ায় আমি বেগম রওশন এরশাদ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি।

রওশন বলেন, অব্যাহতি আদেশ বাতিল করে ঐক্যবদ্ধ জাতীয় পার্টি করার আহ্বান জানিয়েছিলাম। কিন্তু তারা (জিএম কাদের-চুন্নু) তা আমলে নেননি। এরই ধারাবাহিকতা গত ২৫ জানুয়ারি জাপার তৃণমূলের ৬৬৮ নেতাকর্মী স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করে সংকট সৃষ্টি করেছেন।

তিনি বলেন, নেতাকর্মীদের অনুরোধে পার্টির গণতন্ত্রের ২০/১ ধারায় ক্ষমতাবলে আমি পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে জিএম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে অব্যাহতি দিলাম।

তিনি বলেন, যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের সপদে বহাল করা হবে। দ্রুতই পার্টির জাতীয় সম্মেলন আহ্বান করা হবে।