বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মাঘের শেষে শীতে কাঁপছে ঠাকুরগাঁও জেলা

 তিন দিন ধরে ঠাকুরগাঁও জেলায় বইছে মাঝারি থেকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। মাঘের শেষেও এজেলায় দাপট দেখাচ্ছে শৈত্যপ্রবাহ। রবিবার সকাল ৯টায় তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে, ভোর ৬টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলার প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাসেল শাহ। আপাতত ঠাকুরগাঁওয়ে আবহাওয়া অফিস নেই তাই পঞ্চগড় থেকে তথা নেওয়া।
তিনি বলেন, গত তিন দিন ধরে শৈত্যপ্রবাহ বইছে এ জেলায়। সকাল ৯টায় তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে, ভোর ৬টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ ঠাকুরগাঁও জেলা পঞ্চগড় সহ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। জেলায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বইছে। মাঘ মাস পর্যন্ত ওঠানামা করতে পারে তাপমাত্রা।
এদিকে, কনকনে শীতে ফের বেড়েছে ভোগান্তি। তবে সকালে রোদ দেখা দেওয়ায় স্বস্তি মিলেছে কাজকর্মে। বিভিন্ন পেশার শ্রমজীবীদের কাজে যেতে দেখা গেছে।

মৌলভীবাজারে প্রতিপক্ষের হামলার শিকার শিশু মিনহাজ বাদ পড়েনি 

মাঘের শেষে শীতে কাঁপছে ঠাকুরগাঁও জেলা

প্রকাশের সময় : ০৯:৪৩:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
 তিন দিন ধরে ঠাকুরগাঁও জেলায় বইছে মাঝারি থেকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। মাঘের শেষেও এজেলায় দাপট দেখাচ্ছে শৈত্যপ্রবাহ। রবিবার সকাল ৯টায় তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে, ভোর ৬টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলার প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাসেল শাহ। আপাতত ঠাকুরগাঁওয়ে আবহাওয়া অফিস নেই তাই পঞ্চগড় থেকে তথা নেওয়া।
তিনি বলেন, গত তিন দিন ধরে শৈত্যপ্রবাহ বইছে এ জেলায়। সকাল ৯টায় তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে, ভোর ৬টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ ঠাকুরগাঁও জেলা পঞ্চগড় সহ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। জেলায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বইছে। মাঘ মাস পর্যন্ত ওঠানামা করতে পারে তাপমাত্রা।
এদিকে, কনকনে শীতে ফের বেড়েছে ভোগান্তি। তবে সকালে রোদ দেখা দেওয়ায় স্বস্তি মিলেছে কাজকর্মে। বিভিন্ন পেশার শ্রমজীবীদের কাজে যেতে দেখা গেছে।